আন্দোলন করার মত জনসমর্থন বিএনপির নেই-সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

সিনিয়ার নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,আন্দোলন করার মত জনসমর্থন বিএনপির নেই। তাই তারা আজকে কোটা সংস্কার আন্দোলনের উপর ভর করেছে। এখান থেকে যদি আন্দোলনের কোনো ইস্যু পিকআপ করা যায় এটাই তাদের দূরভিসন্ধি।
আজ সোমবার (০৯ জুলাই ২০১৮)দুপুর ২টায় রাজধানীর বনানী সেতু ভবনে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের বলেন, কোটা আন্দোলনের নতুন যাত্রার সময় আমি একেবারে অসুস্থ ছিলাম। দু-দিন খবরের কাগজও পড়তে পারিনি। পরবর্তীতে যা জেনেছি-শুনেছি এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে যতটা জানতে পেরেছি। এখন একটা কমিটি হয়েছে, এতদিন একটা অনিশ্চয়তা, সবাই বলছে কমিটি নেই। এখন তো একটা কমিটি মন্ত্রণালয়ের সচিবদের দিয়ে করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই কমিটি তাদের কার্যক্রমের প্রথম মিটিং হয়েছে কিছু তথ্য উপাত্তের জন্য দেশে-বিদেশে কমপ্লেক্স এবং কমপ্লিকেটিভ বিষয়। কাজেই
এই বিষয়টা হুট করে সমাধান করা যাবে না। সরকারের আন্তরিকতা সদ ইচ্ছার সামান্যতমও কমতি নেই।
সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোটা আন্দোলনের নতুন যাত্রার সময় আমি একেবারে অসুস্থ ছিলাম। দু-দিন খবরের কাগজও পড়তে পারিনি। পরবর্তীতে যা জেনেছি-শুনেছি এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে যতটা জানতে পেরেছি। এখন একটা কমিটি হয়েছে, এতদিন একটা অনিশ্চয়তা, সবাই বলছে কমিটি নেই। এখন তো একটা কমিটি মন্ত্রণালয়ের সচিবদের দিয়ে করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই কমিটি তাদের কার্যক্রমের প্রথম মিটিং হয়েছে কিছু তথ্য উপাত্তের জন্য দেশে-বিদেশে কমপ্লেক্স এবং কমপ্লিকেটিভ বিষয়। কাজেই এই বিষয়টা হুট
করে সমাধান করা যাবে না। সরকারের আন্তরিকতা সদ ইচ্ছার সামান্যতমও কমতি নেই।
আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, যারা এই আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত তাদের আবারও বলবো যে, প্রধানমন্ত্রী যেখানে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, একটা শক্তিশালী কমিটি করে দিয়েছেন।
কমিটিও তাদের তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে তার নির্দেশে কমিটির কাজ এগিয়ে চলছে এই কর্মকাণ্ডের উপর আস্থা রেখে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধৈর্য ধরে কিছুটা সময় অপেক্ষার জন্য অনুরোধ করছি।
প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা করেন, তিনি কথা দিলে কথা রাখেন।
কোটা আন্দোলন নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি সরকারের যে কোনো কথা, যে কোনো আশ্বাস তাদের কোনো দিনই পছন্দের নয়। তাদের ব্যাপারটা এমন ‘যারে দেখতে নাড়ি তার চলন বাঁকা’। সরকার যাই করে তাতে তাদের কোনো আস্থা নেই। এই ব্যাপারে তাদের কোন সায় নেই। আন্দোলন ছাড়া বিএনপি নেত্রীকে জেল থেকে বের করা সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা মানুষ পুড়িয়ে মারার আন্দোলন করে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের মানুষ এই ধরনের আন্দোলন প্রত্যাখ্যান করেছে। কাজেই জনগণকে সম্পৃক্ত করে যে আন্দোলন সেই আন্দোলন করতে গিয়ে তারা বার বার ডাক দিয়েছে কিন্তু জনগণ সাড়া দেয়নি। তারা এই যে কোটা সংস্কার আন্দোলন অর্থাৎ অন্য কোনো আন্দোলনকে তারা ইস্যু করার চেষ্টা করে আসছে, তা আমরা লক্ষ্য করে আসছি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তিনিও কোটা সংস্কারের অন্দোলনে জড়িয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে ফোন দিয়েছিলেন এটা সবারই জানা।
সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, যারা এই আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত তাদের আবারও বলবো যে, প্রধানমন্ত্রী যেখানে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, একটা শক্তিশালী কমিটি করে দিয়েছেন। কমিটিও তাদের তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে তার নির্দেশে
কমিটির কাজ এগিয়ে চলছে এই কর্মকাণ্ডের উপর আস্থা রেখে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধৈর্য ধরে কিছুটা সময় অপেক্ষার জন্য অনুরোধ করছি। প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা করেন, তিনি কথা দিলে কথা রাখেন। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন দাবির
প্রসঙ্গে কাদের বলেন, বিষয়টাতো সেটা না। আইনি প্রক্রিয়ায় বেগম জিয়া যদি বেরিয়ে আসে তাহলে তো মুক্ত হচ্ছে। আইনি প্রক্রিয়ার বাইরে বেগম জিয়াকে মুক্ত করার অন্য কোনো পথ আমাদের জানা নেই। এখন বিএনপি বলছে তারা আন্দোলন করে তাকে মুক্ত করবে। দেখা যাক।
নির্বাচনের আগে বিএনপি নেত্রীর জেলখানায় থাকা নিয়ে মানুষের মাথা ব্যথা নেই বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের কোটা আন্দোলন নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি সরকারের যে কোনো কথা, যে কোনো আশ্বাস তাদের কোনো দিনই পছন্দের নয়। তাদের ব্যাপারটা এমন ‘যারে দেখতে নাড়ি তার চলন বাঁকা’। সরকার যাই করে তাতে তাদের কোনো আস্থা নেই। এই ব্যাপারে তাদের কোন সায় নেই।
আন্দোলন ছাড়া বিএনপি নেত্রীকে জেল থেকে বের করা সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা মানুষ পুড়িয়ে মারার আন্দোলন করে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের মানুষ এই ধরনের আন্দোলন প্রত্যাখ্যান করেছে। কাজেই জনগণকে সম্পৃক্ত করে যে আন্দোলন সেই আন্দোলন করতে গিয়ে তারা বার বার ডাক দিয়েছে কিন্তু জনগণ সাড়া দেয়নি। তারা এই যে কোটা সংস্কার আন্দোলন অর্থাৎ অন্য কোনো আন্দোলনকে তারা ইস্যু করার চেষ্টা করে আসছে, তা আমরা লক্ষ্য করে আসছি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তিনিও কোটা সংস্কারের অন্দোলনে জড়িয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে ফোন দিয়েছিলেন এটা সবারই জানা। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন দাবির প্রসঙ্গে কাদের বলেন, বিষয়টাতো সেটা না। আইনি প্রক্রিয়ায় বেগম জিয়া যদি বেরিয়ে আসে তাহলে তো মুক্ত হচ্ছে। আইনি প্রক্রিয়ার বাইরে বেগম জিয়াকে মুক্ত করার অন্য কোনো পথ আমাদের জানা নেই। এখন বিএনপি বলছে তারা আন্দোলন করে তাকে মুক্ত করবে। দেখা যাক। নির্বাচনের আগে বিএনপি নেত্রীর জেলখানায় থাকা নিয়ে মানুষের মাথা ব্যথা নেই বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচনের মাত্র তিন মাস বাকি। মানুষ এখন ইলেকশনের মুডে আছে। মানুষ এখন ঝুঁকে গেছে নির্বাচনের দিকে। এ সময়ে বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে কারও মাথা ব্যথা অছে মনে হয় না। এটা বিএনপির থাকতে পারে। আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্তি পেলে আমাদের কোনো সমস্যা নাই।
বিএনপিকেও ভারত কিছুতেই ভরসা করবে না দিল্লিতে এইচ টি ইমামের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এইচ টি ইমাম সাহেব সম্পর্কে মিডিয়ায় যে খবর এসেছে সেটা আমি তার সঙ্গে আলাপ
করে চেক করার সুযোগটা পাইনি। কারণ তিনি নয়া দিল্লি থেকে বেলজিয়ামে ব্রাসেলস এ ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের একটা প্রোগ্রামে গেছেন। বাংলাদেশকে রিপ্রেজেন্ট করতে। ব্রাসেলস এ আছেন। বিষয়টা তার কাছে চেক না করে কোনো কমেন্ট করা উচিৎ না।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, তারপরও আমি একটা বিষয় সাধারণভাবে বলতে পারি ভারত একটা স্বাধীন স্বার্বভৌম দেশ। ভারত অন্য কোনো দেশের সরকারি-বেসরকারি রাজনৈতিক অন্য কোন দেশের লোককে পাত্তা দিল কি, দিল না এটা আমাদের বলার বিষয় নয়। তিনি যদি সেটা বলে থাকেন সঠিক বলেননি। তিনি বলেছেন কিনা সেটা আমাকে কনফার্ম হতে হবে।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা, সোমবার,০৯ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» বুড়িমারী স্থলবন্দর ও মোংলা বন্দরে ঘুষ ছাড়া কোনও কাজ হয় না-টিআইবি

» ৭ উইকেট হারিয়ে ২৩৭ রান করেছে পাকিস্তান

» আফগানিস্তানকে ২৫০ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ

» নারায়ণগঞ্জে স্কুলছাত্রী মোনালিসা ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামীকে আটকের পর দেশে আনা হলো

» ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন

» জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তির কাছে বন্দুকের জোর বেশি দিন টেকে না, টিকতে পারে না-রিজভী

» আওয়ামী লীগের মতো জনপ্রিয় দলকে বাদ দিয়ে ঐক্য তা হবে জাতীয়তাবাদী সাম্প্রদায়িক ঐক্য

» গাজীপুরে ‘নিউটেক্স কারখানা’র শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

» রাজধানী মধ্যবাড্ডা লিংক রোডে বাসের ধাক্কায় অজ্ঞাত এক যুবক নিহত হয়েছেন।

» ডিএনসিসি’র প্যানেল মেয়র মোঃ ওসমান গণির মরদেহ ঢাকায় পৌঁছেছে

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

আন্দোলন করার মত জনসমর্থন বিএনপির নেই-সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

সিনিয়ার নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,আন্দোলন করার মত জনসমর্থন বিএনপির নেই। তাই তারা আজকে কোটা সংস্কার আন্দোলনের উপর ভর করেছে। এখান থেকে যদি আন্দোলনের কোনো ইস্যু পিকআপ করা যায় এটাই তাদের দূরভিসন্ধি।
আজ সোমবার (০৯ জুলাই ২০১৮)দুপুর ২টায় রাজধানীর বনানী সেতু ভবনে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের বলেন, কোটা আন্দোলনের নতুন যাত্রার সময় আমি একেবারে অসুস্থ ছিলাম। দু-দিন খবরের কাগজও পড়তে পারিনি। পরবর্তীতে যা জেনেছি-শুনেছি এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে যতটা জানতে পেরেছি। এখন একটা কমিটি হয়েছে, এতদিন একটা অনিশ্চয়তা, সবাই বলছে কমিটি নেই। এখন তো একটা কমিটি মন্ত্রণালয়ের সচিবদের দিয়ে করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই কমিটি তাদের কার্যক্রমের প্রথম মিটিং হয়েছে কিছু তথ্য উপাত্তের জন্য দেশে-বিদেশে কমপ্লেক্স এবং কমপ্লিকেটিভ বিষয়। কাজেই
এই বিষয়টা হুট করে সমাধান করা যাবে না। সরকারের আন্তরিকতা সদ ইচ্ছার সামান্যতমও কমতি নেই।
সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোটা আন্দোলনের নতুন যাত্রার সময় আমি একেবারে অসুস্থ ছিলাম। দু-দিন খবরের কাগজও পড়তে পারিনি। পরবর্তীতে যা জেনেছি-শুনেছি এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে যতটা জানতে পেরেছি। এখন একটা কমিটি হয়েছে, এতদিন একটা অনিশ্চয়তা, সবাই বলছে কমিটি নেই। এখন তো একটা কমিটি মন্ত্রণালয়ের সচিবদের দিয়ে করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সেই কমিটি তাদের কার্যক্রমের প্রথম মিটিং হয়েছে কিছু তথ্য উপাত্তের জন্য দেশে-বিদেশে কমপ্লেক্স এবং কমপ্লিকেটিভ বিষয়। কাজেই এই বিষয়টা হুট
করে সমাধান করা যাবে না। সরকারের আন্তরিকতা সদ ইচ্ছার সামান্যতমও কমতি নেই।
আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, যারা এই আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত তাদের আবারও বলবো যে, প্রধানমন্ত্রী যেখানে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, একটা শক্তিশালী কমিটি করে দিয়েছেন।
কমিটিও তাদের তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে তার নির্দেশে কমিটির কাজ এগিয়ে চলছে এই কর্মকাণ্ডের উপর আস্থা রেখে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধৈর্য ধরে কিছুটা সময় অপেক্ষার জন্য অনুরোধ করছি।
প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা করেন, তিনি কথা দিলে কথা রাখেন।
কোটা আন্দোলন নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি সরকারের যে কোনো কথা, যে কোনো আশ্বাস তাদের কোনো দিনই পছন্দের নয়। তাদের ব্যাপারটা এমন ‘যারে দেখতে নাড়ি তার চলন বাঁকা’। সরকার যাই করে তাতে তাদের কোনো আস্থা নেই। এই ব্যাপারে তাদের কোন সায় নেই। আন্দোলন ছাড়া বিএনপি নেত্রীকে জেল থেকে বের করা সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা মানুষ পুড়িয়ে মারার আন্দোলন করে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের মানুষ এই ধরনের আন্দোলন প্রত্যাখ্যান করেছে। কাজেই জনগণকে সম্পৃক্ত করে যে আন্দোলন সেই আন্দোলন করতে গিয়ে তারা বার বার ডাক দিয়েছে কিন্তু জনগণ সাড়া দেয়নি। তারা এই যে কোটা সংস্কার আন্দোলন অর্থাৎ অন্য কোনো আন্দোলনকে তারা ইস্যু করার চেষ্টা করে আসছে, তা আমরা লক্ষ্য করে আসছি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তিনিও কোটা সংস্কারের অন্দোলনে জড়িয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে ফোন দিয়েছিলেন এটা সবারই জানা।
সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, যারা এই আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত তাদের আবারও বলবো যে, প্রধানমন্ত্রী যেখানে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, একটা শক্তিশালী কমিটি করে দিয়েছেন। কমিটিও তাদের তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে তার নির্দেশে
কমিটির কাজ এগিয়ে চলছে এই কর্মকাণ্ডের উপর আস্থা রেখে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধৈর্য ধরে কিছুটা সময় অপেক্ষার জন্য অনুরোধ করছি। প্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা করেন, তিনি কথা দিলে কথা রাখেন। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন দাবির
প্রসঙ্গে কাদের বলেন, বিষয়টাতো সেটা না। আইনি প্রক্রিয়ায় বেগম জিয়া যদি বেরিয়ে আসে তাহলে তো মুক্ত হচ্ছে। আইনি প্রক্রিয়ার বাইরে বেগম জিয়াকে মুক্ত করার অন্য কোনো পথ আমাদের জানা নেই। এখন বিএনপি বলছে তারা আন্দোলন করে তাকে মুক্ত করবে। দেখা যাক।
নির্বাচনের আগে বিএনপি নেত্রীর জেলখানায় থাকা নিয়ে মানুষের মাথা ব্যথা নেই বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের কোটা আন্দোলন নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি সরকারের যে কোনো কথা, যে কোনো আশ্বাস তাদের কোনো দিনই পছন্দের নয়। তাদের ব্যাপারটা এমন ‘যারে দেখতে নাড়ি তার চলন বাঁকা’। সরকার যাই করে তাতে তাদের কোনো আস্থা নেই। এই ব্যাপারে তাদের কোন সায় নেই।
আন্দোলন ছাড়া বিএনপি নেত্রীকে জেল থেকে বের করা সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা মানুষ পুড়িয়ে মারার আন্দোলন করে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের মানুষ এই ধরনের আন্দোলন প্রত্যাখ্যান করেছে। কাজেই জনগণকে সম্পৃক্ত করে যে আন্দোলন সেই আন্দোলন করতে গিয়ে তারা বার বার ডাক দিয়েছে কিন্তু জনগণ সাড়া দেয়নি। তারা এই যে কোটা সংস্কার আন্দোলন অর্থাৎ অন্য কোনো আন্দোলনকে তারা ইস্যু করার চেষ্টা করে আসছে, তা আমরা লক্ষ্য করে আসছি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তিনিও কোটা সংস্কারের অন্দোলনে জড়িয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে ফোন দিয়েছিলেন এটা সবারই জানা। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন সম্ভব নয় বিএনপি নেতাদের এমন দাবির প্রসঙ্গে কাদের বলেন, বিষয়টাতো সেটা না। আইনি প্রক্রিয়ায় বেগম জিয়া যদি বেরিয়ে আসে তাহলে তো মুক্ত হচ্ছে। আইনি প্রক্রিয়ার বাইরে বেগম জিয়াকে মুক্ত করার অন্য কোনো পথ আমাদের জানা নেই। এখন বিএনপি বলছে তারা আন্দোলন করে তাকে মুক্ত করবে। দেখা যাক। নির্বাচনের আগে বিএনপি নেত্রীর জেলখানায় থাকা নিয়ে মানুষের মাথা ব্যথা নেই বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচনের মাত্র তিন মাস বাকি। মানুষ এখন ইলেকশনের মুডে আছে। মানুষ এখন ঝুঁকে গেছে নির্বাচনের দিকে। এ সময়ে বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে কারও মাথা ব্যথা অছে মনে হয় না। এটা বিএনপির থাকতে পারে। আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্তি পেলে আমাদের কোনো সমস্যা নাই।
বিএনপিকেও ভারত কিছুতেই ভরসা করবে না দিল্লিতে এইচ টি ইমামের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এইচ টি ইমাম সাহেব সম্পর্কে মিডিয়ায় যে খবর এসেছে সেটা আমি তার সঙ্গে আলাপ
করে চেক করার সুযোগটা পাইনি। কারণ তিনি নয়া দিল্লি থেকে বেলজিয়ামে ব্রাসেলস এ ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের একটা প্রোগ্রামে গেছেন। বাংলাদেশকে রিপ্রেজেন্ট করতে। ব্রাসেলস এ আছেন। বিষয়টা তার কাছে চেক না করে কোনো কমেন্ট করা উচিৎ না।
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, তারপরও আমি একটা বিষয় সাধারণভাবে বলতে পারি ভারত একটা স্বাধীন স্বার্বভৌম দেশ। ভারত অন্য কোনো দেশের সরকারি-বেসরকারি রাজনৈতিক অন্য কোন দেশের লোককে পাত্তা দিল কি, দিল না এটা আমাদের বলার বিষয় নয়। তিনি যদি সেটা বলে থাকেন সঠিক বলেননি। তিনি বলেছেন কিনা সেটা আমাকে কনফার্ম হতে হবে।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা, সোমবার,০৯ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY Abir bbm