X

২০ অক্টোবর ২০১৭ ২২:১৫:০০ | ৬ কাতর্িক ১৪২৪ শুক্রবার | ২৯ মহরম ১৪৩৯
বার বার সময় নিয়ে বিচারিক কার্যক্রমকে বিলম্বিত করছেন বেগম খালেদা জিয়া brak বিএনপি যাতে আগামী নির্বাচনে আসতে না পারে সে জন্য নানামুখী ষড়যন্ত্র করছে brak ঢাবি ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের অভিযোগে ১৫ জন আটক brak জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর দীর্ঘায়ূ ও সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত brak গ্রামের পর গ্রাম প্লাবিত কলাপাড়ায় জোয়ারের পানিতে বেড়িবাঁধ বিধ্বস্ত।। brak সাংবাদিক জসিম পারভেজ এর বাবা আর নেই brak নারায়ণগঞ্জের খন্দকার ডকইয়ার্ডে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৪ জন দগ্ধ brak নকলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুব আলী চৌধুরী মনিরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার brak আইজিপি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১৭ পেলেন হাবিব ও মাকসুদুন্নবী brak

প্রচ্ছদ  »   এক্সক্লুসিভ

কলাপাড়ায় মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহণ করে শিক্ষিত যুবকরা স্বাবলম্বী

কলাপাড়ায় মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহণ করে শিক্ষিত যুবকরা স্বাবলম্বী

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহণ করে শিক্ষিত যুবকরা এখন স্বাবলম্বী হয়েছে।এ উপজেলার অন্তত ২০ টি রুটে শিক্ষিত বেকার যুবকরা পেশায় এগিয়ে আসছে। অধিকাংশই উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে চাকরি না পেয়ে শক্ত হাতে মোটরসাইকেলের হ্যান্ডেল ধরেছেন। দিনমজুরসহ অন্য কাজে আপত্তি থাকলেও মোটরসাইকেলে যাত্রী বহন করে অর্থ উপার্জনে আপত্তি নেই ওইসব শিক্ষিত যুবকদের। এদিকে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটায় পর্যটক বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি পায়রা সমুদ্র বন্দর, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দ্রুত গতিতে কাজ চলায় এ এলাকা ধীরে ধীরে জনবহুল এলাকায় পরিনত হতে চলেছে। ফলে এসব যানবাহনের চাহিদাও বেড়ে গেছে।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এক সময় যেসব এলাকার মানুষ মাইলের পর মাইল পায়ে হেঁটে অথবা ভ্যানে বিংবা নৌকায় যাতায়াত করতো এখন তাদের প্রধান বাহন মোটরসাইকেল। এটি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করার পথ
বেছে নেয় এ অঞ্চলের বড় একটি বেকার জনগোষ্ঠী। উপজেলার বড় হাট-বাজার থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে এমন কোনো স্থান নাই যেখানে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল পাওয়া যায় না। চাকুরী না পেয়ে কিংবা চাকুরীর পেছনে সময় ব্যয় না করে ওইসব যুবকরা বেছে নেয় এ পেশা। এসব মোটর সাইকেল চালকেদের অধিকাংশই এইচএসসি সহ ডিগ্রি ধারী বলে জানা গেছে। কলাপাড়া পৌর শহর মোটরসাইকেল চালক সমিতির সভাপতি মামুন হাওলাদার জানান, এ উপজেলায় আনুমানিক ৭/৮ হাজার মোটরসাইকেল চালক রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই শিক্ষিত। গ্রামগঞ্জে যারা মোটরসাইকেল চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন তারা সকলেই পরিবার-পরিজন নিয়ে ভালভাবে দিন কাটাচ্ছে। অনেকে দৈনিক অথবা চুক্তিভিত্তিক এসব যানবাহন ভাড়া দিয়ে বাড়তি আয় করে বেশ স্বাবলম্বী হয়েছে। প্রতিদিন সকল খরচ বাদ দিয়ে চার-পাঁচশ টাকা আয় হয়। বিশেষ সময়ে দ্বিগুণ উপার্জন হয়। এছাড়া উপার্জনের টাকা সঞ্চয় করে কেউ কেউ একাধিক মোটরসাইকেলের মালিক হয়েছেন।মোটরসাইকেল চালক জুয়েল হাওলাদার জানান, বি এ পাশ করে বিভিন্ন স্থানে চাকুরির জন্য একাধিক আবেদন করেছে। কিন্তু চাকুরি হয়নি। বাধ্য হয়েএই পথ বেছে নিয়েছে। এখন বেশ ভালই আছি বলে ওই শিক্ষিত যুবক জানিয়েছেন।
শিক্ষক মজিবর রহমান বলেন, নিরিবিলি ও জরুরী যাতায়াতের জন্য
মোটরসাইকেল ভালো পরিবহণ।

উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী, রোববার, ৩০ এপ্রিল, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

User Comments

  • এক্সক্লুসিভ