X

২০ অক্টোবর ২০১৭ ৩:৪৩:১৬ | ৬ কাতর্িক ১৪২৪ শুক্রবার | ২৯ মহরম ১৪৩৯

প্রচ্ছদ  »   জাতীয়

শুধু মানবিক কারণেই রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ-প্রধানমন্ত্রী

শুধু মানবিক কারণেই রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ-প্রধানমন্ত্রী

শুধু মানবিক কারণেই রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। এখন ফেরত দেওয়াসহ রোহিঙ্গাদের সহায়তায় প্রয়োজনীয় সবকিছুই করা হচ্ছে।জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগদান শেষে যুক্তরাজ্য হয়ে শনিবার সকালে দেশে ফিরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিপন্ন মানুষকে আশ্রয় দেওয়াই আমাদের জাতীয় কর্তব্য। এটাই আমাদের রাজনীতি। আমরা ১৬ কোটি মানুষ। আরো ৫-৭ লাখ বেশি লোককেও আমরা খাওয়াতে পারব। এটা আত্মবিশ্বাসের ব্যাপার। এক বেলা আমরা ভাত খাব, আরেক বেলা তাদের ভাগ দেব।’‘কে কী দেবে এই আশা নিয়ে আমরা বসে থাকিনি। কারো সাহায্যের অপেক্ষায় না থেকে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিয়ে বিপন্ন মানুষের পাশে আমরা দাঁড়িয়েছি। তাদের থাকার স্বাস্থ্যসম্মত ব্যবস্থা করব। এখন আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে মিয়ানমার রোহিঙ্গা বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছে। আমি মিয়ানমারকে আলোচনা শুরু করার জন্য ধন্যবাদ জানাই। আশা করি, আলোচনার মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করব’, যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় পদ্মাসেতু প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পদ্মা সেতু বিরাট চ্যালেঞ্জ ছিল। এ নিয়ে আমাদের সরকার, আমার পরিবারের উপর অনেক অপবাদ দেওয়া হয়েছে, হেয় করা হয়েছে বিভিন্ন স্থানে। মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চেয়েছে। কিন্তু এটি দৃশ্যমান হওয়ায় সেসব অপমানের জবাব দেওয়া হয়েছে।’বাংলাদেশ যদি এই অবস্থান না নিতো তাহলে বাংলাদেশ সম্প্রদায়ের এতটা দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারতো না। আর পদ্মা সেতুতে দুর্নীতি অভিযোগে তারা সরে যায়। তদন্ত করে তারা কিছু পায়নি।'যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে তিন সপ্তাহের সফর শেষে আজ শনিবার সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। বিমানবন্দরে সরকারের উচ্চপদস্ত মন্ত্রী, আওয়ামী লীগের নেতা এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিরা প্রধানমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। সেখানেই এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও কথা বলেন।
ঢাকা,শনিবার,০৭ অক্টোবর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

User Comments

  • জাতীয়