ঈদুলু ফিতরের ছুটির শেষ হলেও -কুয়াকাটা সৈকত জুড়ে উপচেপড়া পর্যটক

কলাপাড়া(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি২১জুন ।। ঈদুলু ফিতরের ছুটির শেষ হলেও পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার পর্যটক স্পট গুলো এখনও উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পরিবার পরিজন এখানে এসেছে। আবার কেউ বা পছন্দের মানুষটিকে নিয়ে সাগর কন্যা খ্যাত কুয়াকাটার নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে ছুটে এসেছেন। তারা স্মার্ট ফোনের সেলফি ও ভিডিও ক্লিপস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছে। হাজারো পর্যটকদের পদচারনায় হোটেলসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেনা বেচার ধুম পড়েছে। এদিকে দর্শনীয় স্থানসহ পর্যটকদের নিরাপদ ভ্রমনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করেছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ওখানকার অধিকাংশ হোটেল, মোটেলের রুম বুকিং রয়েছে। ভালো রুম পেতে কষ্ট হলেও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সব দু:খ ভুলিয়ে দিয়েছে তাদের। জিরো পয়েন্টে, শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধবিহার, মিশ্রিপাড়া সিমা বৌদ্ধ বিহার, জাতীয় উদ্যান, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী, রাখাইন মহিলা মার্কেট, গঙ্গামতি, কাউয়ারচর, লাল কাকড়ার চর, ইলিশ পার্ক সহ পর্যটন স্পটগুলো এখন পর্যটকদের পদভাড়ে মুখরিত। বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ আনন্দ-উচ্ছাসে সমুদ্রের লেনাজলে গোসল করতে দেখে গেছে। সৈকতে জেগে ওঠা পুরনো স্থাপনার অংশ অপসারনের দাবি জানিয়েছেন অনেকে পর্যটকসহ স্থানীয়রা।
ভ্রমনে আসা ব্যবসায়ি মো. কিবরিয়া বলেন, কুয়াকাটার ভাঙ্গন রক্ষায় সরকারের ব্যবস্থা নেয়া উচিত। সৈকতে গোসল করতে অনেক কষ্ট হয়েছে। এছাড়া কুয়াকাটা মহাসড়কের পাখিমারা থেকে মহিপুর পর্যন্ত সড়কের অবস্থা খুবই খারাপ। তবে এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সব কষ্ট ঘুচিয়ে দিয়েছে। অপর পর্যটক শম্পা আক্তার জানান, সৈকতে গোসল করতে গিয়ে আমাদের বেশ কয়েকজনের পা কেটে গেছে। এর পরও সৈকতে বেঞ্চিতে বসে রাতের সমুদ্র ও তার বিক্ষুব্দ গর্জন অসাধারণ লেগেছে। তবে বিদ্যুতের লোড শেডিংয়ের কারনে ছেলে-মেয়েরা হোটেলে একটু অস্বস্তি বোধ করেছে। কুয়াকাটা ইলিশ পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুমান ইমতিয়াজ তুষার জানান, পর্যটকদের ব্যাপক ভিড় রয়েছে। আমরাও চেষ্টা করছি পর্যটকদের নিরাপত্তা সহ বিনোদন নিশ্চিত করতে।
কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক
মো.মোতালেব শরিফ জানান, ঈদের পরদিন থেকে এখানকার হোটেল মোটেল আগাম বুকিং ছিলো। কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জেনের এস আই মো.নজরুল ইসলাম জানান, সৈকতে পর্যটকদের নির্বিঘ্নে চলাফেরা এবং অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে দিকে সার্বক্ষনিক নজর রাখা হচ্ছে। এছাড়া পর্যটকের নিরাপত্তায় বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
মহিপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, পর্যটকের একটু চাপ রয়েছে। তাদের নিরাপত্তা দিতে ট্যুরিষ্ট পুলিশ, নৌ-পুলিশ সহ মহিপুর থানা পুলিশ দর্শনীয় স্থানে টহল জোরদার করা হয়েছে।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী,বৃহস্পতিবার,২১ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ

» কক্সবাজার হিমছড়ি এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত

» এইচএসসির ফল প্রকাশ : পাসের হার ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ

» দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়তে শিক্ষিত জাতির কোনো বিকল্প নেই প্রধানমন্ত্রী

» প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দিয়েছেন এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল

» বেগম খালেদা জিয়ার জামিন ২৬ শে জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়েছেন হাইকোর্ট

» কলাপাড়ায় শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে শহীদদের স্মরনে বৃক্ষ রোপনের উদ্বোধন।।

» এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ হবে আগামীকাল

» বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে কোনো স্বর্ণ গায়েবের মতো ঘটনা ঘটেনি-ওবায়দুল কাদের

» কোটা সংস্কার এবং খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে কোনো রাজনীতি করছি না-মির্জা ফখরুল

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

ঈদুলু ফিতরের ছুটির শেষ হলেও -কুয়াকাটা সৈকত জুড়ে উপচেপড়া পর্যটক

কলাপাড়া(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি২১জুন ।। ঈদুলু ফিতরের ছুটির শেষ হলেও পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার পর্যটক স্পট গুলো এখনও উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পরিবার পরিজন এখানে এসেছে। আবার কেউ বা পছন্দের মানুষটিকে নিয়ে সাগর কন্যা খ্যাত কুয়াকাটার নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে ছুটে এসেছেন। তারা স্মার্ট ফোনের সেলফি ও ভিডিও ক্লিপস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছে। হাজারো পর্যটকদের পদচারনায় হোটেলসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেনা বেচার ধুম পড়েছে। এদিকে দর্শনীয় স্থানসহ পর্যটকদের নিরাপদ ভ্রমনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করেছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ওখানকার অধিকাংশ হোটেল, মোটেলের রুম বুকিং রয়েছে। ভালো রুম পেতে কষ্ট হলেও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সব দু:খ ভুলিয়ে দিয়েছে তাদের। জিরো পয়েন্টে, শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধবিহার, মিশ্রিপাড়া সিমা বৌদ্ধ বিহার, জাতীয় উদ্যান, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী, রাখাইন মহিলা মার্কেট, গঙ্গামতি, কাউয়ারচর, লাল কাকড়ার চর, ইলিশ পার্ক সহ পর্যটন স্পটগুলো এখন পর্যটকদের পদভাড়ে মুখরিত। বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ আনন্দ-উচ্ছাসে সমুদ্রের লেনাজলে গোসল করতে দেখে গেছে। সৈকতে জেগে ওঠা পুরনো স্থাপনার অংশ অপসারনের দাবি জানিয়েছেন অনেকে পর্যটকসহ স্থানীয়রা।
ভ্রমনে আসা ব্যবসায়ি মো. কিবরিয়া বলেন, কুয়াকাটার ভাঙ্গন রক্ষায় সরকারের ব্যবস্থা নেয়া উচিত। সৈকতে গোসল করতে অনেক কষ্ট হয়েছে। এছাড়া কুয়াকাটা মহাসড়কের পাখিমারা থেকে মহিপুর পর্যন্ত সড়কের অবস্থা খুবই খারাপ। তবে এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সব কষ্ট ঘুচিয়ে দিয়েছে। অপর পর্যটক শম্পা আক্তার জানান, সৈকতে গোসল করতে গিয়ে আমাদের বেশ কয়েকজনের পা কেটে গেছে। এর পরও সৈকতে বেঞ্চিতে বসে রাতের সমুদ্র ও তার বিক্ষুব্দ গর্জন অসাধারণ লেগেছে। তবে বিদ্যুতের লোড শেডিংয়ের কারনে ছেলে-মেয়েরা হোটেলে একটু অস্বস্তি বোধ করেছে। কুয়াকাটা ইলিশ পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুমান ইমতিয়াজ তুষার জানান, পর্যটকদের ব্যাপক ভিড় রয়েছে। আমরাও চেষ্টা করছি পর্যটকদের নিরাপত্তা সহ বিনোদন নিশ্চিত করতে।
কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক
মো.মোতালেব শরিফ জানান, ঈদের পরদিন থেকে এখানকার হোটেল মোটেল আগাম বুকিং ছিলো। কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জেনের এস আই মো.নজরুল ইসলাম জানান, সৈকতে পর্যটকদের নির্বিঘ্নে চলাফেরা এবং অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে দিকে সার্বক্ষনিক নজর রাখা হচ্ছে। এছাড়া পর্যটকের নিরাপত্তায় বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
মহিপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, পর্যটকের একটু চাপ রয়েছে। তাদের নিরাপত্তা দিতে ট্যুরিষ্ট পুলিশ, নৌ-পুলিশ সহ মহিপুর থানা পুলিশ দর্শনীয় স্থানে টহল জোরদার করা হয়েছে।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী,বৃহস্পতিবার,২১ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY Abir bbm