শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ নিয়ে চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে

আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ নিয়ে চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, এর মানে এই নয় যে, এ বিষয়কে কেন্দ্র করে অরাজকতা চলতে থাকবে আর পুলিশ চুপ করে বসে দৃশ্য দেখবে। আমাদেরও ধৈর্যের সীমা আছে, সীমা অতিক্রম করলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রোববার (০৫ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর গুলিস্তান জিরো পয়েন্টে ‘ট্রাফিক সপ্তাহ-২০১৮’ উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গুজবের বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সামাজিক মাধ্যমজুড়ে শুধু মিথ্যাচার আর গুজব। একজন অভিনেত্রী গতকাল (শনিবার) কীভাবে কথাগুলো বললেন, কীভাবে অভিনয়টা করলেন আপনারা তা দেখেছেন। একটি মহল কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দাবি ভিন্নখাতে নিয়ে যেতে এই অপতৎপরতা চালাচ্ছে।
‘একজন দায়িত্বশীল নেতা কুমিল্লা থেকে ঢাকায় এসে আক্রমণ করার আহ্বান জানাচ্ছেন। ঢাকায় প্রবেশের সময় আমরা এমনসব ছাত্রবেশী লোকজনকে আটক করেছি, যাদের ব্যাকপ্যাক ভর্তি পাথর। এ কয়েকদিনে হাজার হাজার স্কুল ড্রেস তৈরি করা হয়েছে, হাজার হাজার আইডি কার্ড বানানো হলো। আইডি কার্ড ঝুলিয়ে অছাত্ররা কোমলমতি ছাত্রদের আন্দোলনে প্রবেশ করেছে।’
এ ধরনের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে পুলিশ যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। শিক্ষার্থীদের ৯ দফা দাবির সবকটিই পূর্ণ হয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের নানা অপপ্রচার চালিয়ে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। তাই ছাত্র ও অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান, তারা যেন রাস্তা থেকে ফিরে যান।কোনো দাবি অপূর্ণ নেই উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নয়টা দাবি ছিল, নয়টা দাবিই মেনে নেওয়া হয়েছে। ফ্লাইওভার, আন্ডারপাস সেটাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন, তাঁরা কাজ শুরু করতাছেন।’
‘ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধনের মাধ্যমে আইন মেনে চলার প্রক্রিয়া শুরু হলো, সারাবছর যেন এটা চলমান থাকে সে প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’
চার কারণে রাজধানীতে ট্রাফিক অব্যবস্থাপনার কথা জানিয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, এডুকেশন, ইঞ্জিনিয়ারিং, এনভায়রনমেন্ট ও এনফোর্সমেন্ট ট্রাফিক অব্যবস্থাপনায় এই চার ‘ই’ দায়ী। আইন মেনে চলতে বাধ্য করার জন্য আইন তৈরি হয় না।
‘আইন তৈরি হয়, সবাই মেনে চলবে আর দুই-একজন ভায়োলেন্ট করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিন্তু আমাদের দেশে বাধ্য করে সবাইকে আইন মানাতে হয়।’
সবাইকে সঙ্গে নিয়ে ট্রাফিক আইন নিশ্চিত করার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আশা করবো কেউ অযথা রাস্তায় জমায়েত করে জনগণের স্বাভাবিক চলাচল বিঘ্নিত করবেন না।ট্রাফিক সপ্তাহের মাধ্যমে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় যে গতি শুরু হবে তা চলমান রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন ডিএমপি কমিশনার।
ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধন শেষে ট্রাফিক জনসচেতনতায় জনসাধারণেল মাঝে লিফলেট বিতরণ করা হয়।
ঢাকা,রোববার,০৫ আগস্ট,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» রাজনৈতিক কারণে ব্যারিস্টার মইনুলকে ধরা হয়নি।সুনির্দিষ্ট মামলার প্রেক্ষিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে

» ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মালিকানাধীন ফার্মাসিউটিক্যালস ও গণস্বাস্থ্য হাসপাতালকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

» ওষুধের এক্সপায়ার ডেট ২০১৩, বিক্রি হচ্ছে ২০১৮ সালেও দুই ফার্মেসিকে এক লাখ টাকা জরিমানা

» দুর্নীতিবাজ ও যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতির মাঠে পুনর্বাসনের জন্যই ড. কামাল হোসেন বিএনপির সঙ্গে ঐক্য গড়েছেন

» ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের ফোনালাপের ফাঁস করা অডিও ক্লিপ আমরা বিশ্বাস করি না

» মোবাইলের আইএমইআই পরিবর্তন করে হত্যা, মুক্তিপণ,অপহরণ অপরাধের সাথে জড়িত চক্রের সদস্য ১৫ আটক

» ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

» আওয়ামী লীগের যৌথসভার পর নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার বিষয়ে সিদ্ধান্ত

» খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি চেয়ে করা আবেদনের ওপর দুদক এবং রাষ্ট্রপক্ষের শুনানি শেষ আদেশ বুধবার

» যশোরের নওয়াপাড়ায় ট্রাকের সঙ্গে ট্রেনের সংঘর্ষ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ নিয়ে চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে

আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ নিয়ে চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, এর মানে এই নয় যে, এ বিষয়কে কেন্দ্র করে অরাজকতা চলতে থাকবে আর পুলিশ চুপ করে বসে দৃশ্য দেখবে। আমাদেরও ধৈর্যের সীমা আছে, সীমা অতিক্রম করলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রোববার (০৫ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর গুলিস্তান জিরো পয়েন্টে ‘ট্রাফিক সপ্তাহ-২০১৮’ উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গুজবের বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সামাজিক মাধ্যমজুড়ে শুধু মিথ্যাচার আর গুজব। একজন অভিনেত্রী গতকাল (শনিবার) কীভাবে কথাগুলো বললেন, কীভাবে অভিনয়টা করলেন আপনারা তা দেখেছেন। একটি মহল কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দাবি ভিন্নখাতে নিয়ে যেতে এই অপতৎপরতা চালাচ্ছে।
‘একজন দায়িত্বশীল নেতা কুমিল্লা থেকে ঢাকায় এসে আক্রমণ করার আহ্বান জানাচ্ছেন। ঢাকায় প্রবেশের সময় আমরা এমনসব ছাত্রবেশী লোকজনকে আটক করেছি, যাদের ব্যাকপ্যাক ভর্তি পাথর। এ কয়েকদিনে হাজার হাজার স্কুল ড্রেস তৈরি করা হয়েছে, হাজার হাজার আইডি কার্ড বানানো হলো। আইডি কার্ড ঝুলিয়ে অছাত্ররা কোমলমতি ছাত্রদের আন্দোলনে প্রবেশ করেছে।’
এ ধরনের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে পুলিশ যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। শিক্ষার্থীদের ৯ দফা দাবির সবকটিই পূর্ণ হয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের নানা অপপ্রচার চালিয়ে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। তাই ছাত্র ও অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান, তারা যেন রাস্তা থেকে ফিরে যান।কোনো দাবি অপূর্ণ নেই উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘নয়টা দাবি ছিল, নয়টা দাবিই মেনে নেওয়া হয়েছে। ফ্লাইওভার, আন্ডারপাস সেটাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন, তাঁরা কাজ শুরু করতাছেন।’
‘ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধনের মাধ্যমে আইন মেনে চলার প্রক্রিয়া শুরু হলো, সারাবছর যেন এটা চলমান থাকে সে প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’
চার কারণে রাজধানীতে ট্রাফিক অব্যবস্থাপনার কথা জানিয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, এডুকেশন, ইঞ্জিনিয়ারিং, এনভায়রনমেন্ট ও এনফোর্সমেন্ট ট্রাফিক অব্যবস্থাপনায় এই চার ‘ই’ দায়ী। আইন মেনে চলতে বাধ্য করার জন্য আইন তৈরি হয় না।
‘আইন তৈরি হয়, সবাই মেনে চলবে আর দুই-একজন ভায়োলেন্ট করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিন্তু আমাদের দেশে বাধ্য করে সবাইকে আইন মানাতে হয়।’
সবাইকে সঙ্গে নিয়ে ট্রাফিক আইন নিশ্চিত করার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আশা করবো কেউ অযথা রাস্তায় জমায়েত করে জনগণের স্বাভাবিক চলাচল বিঘ্নিত করবেন না।ট্রাফিক সপ্তাহের মাধ্যমে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় যে গতি শুরু হবে তা চলমান রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন ডিএমপি কমিশনার।
ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধন শেষে ট্রাফিক জনসচেতনতায় জনসাধারণেল মাঝে লিফলেট বিতরণ করা হয়।
ঢাকা,রোববার,০৫ আগস্ট,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited