প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন বঙ্গমাতা

প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন তিনি।বঙ্গমাতা সব সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর রাখতেন এবং সহযোগিতা করতেন বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।যারা এ দেশের স্বাধীনতা চায়নি তারাই ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করেছিল বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।বুধবার(০৮ আগস্ট) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৮৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।এ দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বঙ্গমাতা বিশেষ অবদান রেখেছিলেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন তিনি। বঙ্গমাতা সব সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর রাখতেন এবং সহযোগিতা করতেন বলেও জানান শেখ হাসিনা।সরকারপ্রধান আরো বলেন, ‘আমার ছোট ফুফুর সোবহানবাগ ফ্ল্যাটে কিছু বিহারি থাকত, তারা বোরখা পরে থাকত। চকচকে পাথরওয়ালা স্যান্ডেল পরত। সেখান থেকে শাড়ি নিয়ে আমার মা ফুফুর বাসায় শাড়ি চেঞ্জ করে, একটা স্কুটার ডেকে, বোরখা পরে যেতেন। আজিমপুর কলোনিতে আমাদের কিছু দুঃসম্পর্কের আত্মীয় ছিল। তাঁদের বাসায় বা এই রকম কোনো আত্মীয়ের বাসায় ছাত্রনেতাদের সঙ্গে মা বৈঠক করতেন। আব্বা কারাগারে বসে যে নির্দেশনাগুলো দিতেন, স্লোগান থেকে শুরু করে সবকিছুই মা সেগুলো তাঁদের কাছে পৌঁছে দিতেন।’
এ সময় শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘এই স্বাধীনতা অর্জনের পেছনে তার যে অবদান রয়েছে। তার যে ত্যাগ তিতিক্ষা রয়েছে, তিনি জীবনে কিছু চাননি। তিনি সাদাসিধা কাপড় পড়তেন। এমনকি ধানমন্ডি ৩২ এর বাড়িতেই তিনি ছিলেন। পাকিস্তানের হানাদার বাহিনীর দালালরা যারা দেশের স্বাধীনতা চাননি। যারা দেশের সঙ্গে বেইমানি করেছে তারাই ১৫ আগস্টের ঘটনা ঘটিয়েছে। আমার মাকেও তারা ছাড়েনি। পুরো পরিবারকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। যে স্বাধীনতার জন্যে আমার মা ত্যাগ স্বীকার করেছে। আমার আব্বার আকাঙ্ক্ষা ছিল ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্য মুক্ত দেশ গড়ার লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছি।’
ঢাকা, বুধবার,০৮ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» রাজনৈতিক কারণে ব্যারিস্টার মইনুলকে ধরা হয়নি।সুনির্দিষ্ট মামলার প্রেক্ষিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে

» ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মালিকানাধীন ফার্মাসিউটিক্যালস ও গণস্বাস্থ্য হাসপাতালকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

» ওষুধের এক্সপায়ার ডেট ২০১৩, বিক্রি হচ্ছে ২০১৮ সালেও দুই ফার্মেসিকে এক লাখ টাকা জরিমানা

» দুর্নীতিবাজ ও যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতির মাঠে পুনর্বাসনের জন্যই ড. কামাল হোসেন বিএনপির সঙ্গে ঐক্য গড়েছেন

» ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের ফোনালাপের ফাঁস করা অডিও ক্লিপ আমরা বিশ্বাস করি না

» মোবাইলের আইএমইআই পরিবর্তন করে হত্যা, মুক্তিপণ,অপহরণ অপরাধের সাথে জড়িত চক্রের সদস্য ১৫ আটক

» ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

» আওয়ামী লীগের যৌথসভার পর নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার বিষয়ে সিদ্ধান্ত

» খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি চেয়ে করা আবেদনের ওপর দুদক এবং রাষ্ট্রপক্ষের শুনানি শেষ আদেশ বুধবার

» যশোরের নওয়াপাড়ায় ট্রাকের সঙ্গে ট্রেনের সংঘর্ষ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন বঙ্গমাতা

প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন তিনি।বঙ্গমাতা সব সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর রাখতেন এবং সহযোগিতা করতেন বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।যারা এ দেশের স্বাধীনতা চায়নি তারাই ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করেছিল বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।বুধবার(০৮ আগস্ট) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৮৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।এ দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বঙ্গমাতা বিশেষ অবদান রেখেছিলেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন তিনি। বঙ্গমাতা সব সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর রাখতেন এবং সহযোগিতা করতেন বলেও জানান শেখ হাসিনা।সরকারপ্রধান আরো বলেন, ‘আমার ছোট ফুফুর সোবহানবাগ ফ্ল্যাটে কিছু বিহারি থাকত, তারা বোরখা পরে থাকত। চকচকে পাথরওয়ালা স্যান্ডেল পরত। সেখান থেকে শাড়ি নিয়ে আমার মা ফুফুর বাসায় শাড়ি চেঞ্জ করে, একটা স্কুটার ডেকে, বোরখা পরে যেতেন। আজিমপুর কলোনিতে আমাদের কিছু দুঃসম্পর্কের আত্মীয় ছিল। তাঁদের বাসায় বা এই রকম কোনো আত্মীয়ের বাসায় ছাত্রনেতাদের সঙ্গে মা বৈঠক করতেন। আব্বা কারাগারে বসে যে নির্দেশনাগুলো দিতেন, স্লোগান থেকে শুরু করে সবকিছুই মা সেগুলো তাঁদের কাছে পৌঁছে দিতেন।’
এ সময় শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘এই স্বাধীনতা অর্জনের পেছনে তার যে অবদান রয়েছে। তার যে ত্যাগ তিতিক্ষা রয়েছে, তিনি জীবনে কিছু চাননি। তিনি সাদাসিধা কাপড় পড়তেন। এমনকি ধানমন্ডি ৩২ এর বাড়িতেই তিনি ছিলেন। পাকিস্তানের হানাদার বাহিনীর দালালরা যারা দেশের স্বাধীনতা চাননি। যারা দেশের সঙ্গে বেইমানি করেছে তারাই ১৫ আগস্টের ঘটনা ঘটিয়েছে। আমার মাকেও তারা ছাড়েনি। পুরো পরিবারকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। যে স্বাধীনতার জন্যে আমার মা ত্যাগ স্বীকার করেছে। আমার আব্বার আকাঙ্ক্ষা ছিল ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্য মুক্ত দেশ গড়ার লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছি।’
ঢাকা, বুধবার,০৮ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited