নির্বাচন হবে কি হবে না জানি না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই- হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ

‘আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। জাতীয় পার্টি আগামী নির্বাচনে ঐক্যের মাধ্যমে অংশ নেবে। আবারও ৩০০ আসনে প্রার্থী দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। আজ শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত মহাসমাবেশে এসব কথা বলেন এইচ এম এরশাদ। জাতীয় পার্টি নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় পার্টি ওই মহাসমাবেশের আয়োজন করে।আগামী নির্বাচনের আগে জাতীয় স্বার্থে রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ হতে পারে বলেও আভাস দিয়েছেন হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতীয় পার্টির ১৮ দফা লক্ষ্য ঘোষণা করেন এরশাদ। সভাপতির বক্তব্যে জাতীয়পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন তার দল ৩শ’ আসনে প্রার্থী দেবে। এছাড়া ক্ষমতায় আসতে পারলে প্রাদেশিক সরকার গঠন, প্রশাসনের বিকেন্দ্রীকরণ ও বিচার বিভাগের সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দেবেন।তিনি বলেন, ‘নির্বাচন হবে কি হবে না জানি না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। আমরা নির্বাচন পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই।’দল ও জোটের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আপনারা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন। মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে দলের চেয়ে ব্যক্তির যোগ্যতাকে মূল্যায়ন করা হবে।’ জোটের অংশীদারদের প্রার্থী তালিকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।
এরশাদ বলেন, ‘মানুষ পরিবর্তন চায়।’ তিনি বলেন, ‘আমি সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদ। আমার ওপরে বয়োজ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদ নেই।’
সমাবেশে এরশাদ আরো বলেন, ‘আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। এখন থেকেই যাত্রা শুরু হোক। আমরা ৩০০ আসনে মনোনয়ন দেব। নির্বাচনের যারা করতে চাও, এগিয়ে আস। এ মাসের মধ্যেই পার্লামেন্টারি বোর্ড গঠন করা হবে। তৃণমূলের সমর্থনে মনোনয়ন দেওয়া হবে।’
চেয়ারম্যান আরো বলেন, ‘শেষ কথা, নির্বাচনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আমি নতুন করে ১৮ দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আমরা নির্বাচনের পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চাই। শিক্ষা পদ্ধতি সংস্কার চাই। স্বাস্থ্যসেবার সম্প্রসারণ চাই। শান্তির রাজনীতি চাই। সড়ক নিরাপত্তা চাই। ক্ষমতায় গেলে শিক্ষা-স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় পরিবর্তন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত ও প্রাদেশিক পদ্ধতি আনবেন বলেও জানান এরশাদ।
মহাসমাবেশে বক্তব্য দেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র কোচেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কোচেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার প্রমুখ।
এ সময় রওশন এরশাদ বলেন, ‘আমরা জাতীয় পার্টি সবসময় নির্বাচন করেছি। আজও আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। তবে আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। অবাধ নির্বাচন চাই। নিশ্চয়তা চাই, আমরা যারা সংসদে আছি সবার সমন্বয়ে নির্বাচনকালীর সরকার গঠন করতে হবে।’জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, জাতীয় পার্টিকে ধ্বংস করতে বারবার চেষ্টা করা হয়েছে। পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদকে কারাগারে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। যারা এই ষড়যন্ত্র করেছে, তারাই আজ দুর্নীতি মামলায় সাজাগ্রস্ত।
ঢাকা,শনিবার,২০ অক্টোম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» ‘উন্নয়ন ও উত্তরণ, আয়করের অর্জন’ স্লোগানে সারাদেশে মঙ্গলবার থেকে আয়কর মেলা শুরু

» নির্বাচনকে সামনে রেখে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করেছে যুক্তফ্রন্ট

» আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সাথে বিকল্পধারা প্রতিনিধি দলের বৈঠক

» নির্বাচন পেছানোর দাবি নিয়ে বুধবার দুপুর ১২টায় ইসিতে যাবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতারা

» আগামীকাল দুপুর ১২টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ড. কামাল হোসেনসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা

» জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ আর পেছানোর সুযোগ নেই সিইসি

» অং সান সু চি’র থেকে কেড়ে নেওয়া হলো অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের খেতাবও

» নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের আজ ৭০তম জন্মদিন

» নৌকা প্রতীকে প্রতিন্দ্বন্দ্বিতা করতে দলটির মনোনয়ন ফরম কিনেছেন ৪০২৩ জন

» জনগণকে নিয়ে আমরা যে রাজনৈতিক ঐক্য গড়েছি সেই ঐক্যের জন্য খালেদা জিয়া দোয়া করেছেন

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

নির্বাচন হবে কি হবে না জানি না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই- হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ

‘আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। জাতীয় পার্টি আগামী নির্বাচনে ঐক্যের মাধ্যমে অংশ নেবে। আবারও ৩০০ আসনে প্রার্থী দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। আজ শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত মহাসমাবেশে এসব কথা বলেন এইচ এম এরশাদ। জাতীয় পার্টি নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় পার্টি ওই মহাসমাবেশের আয়োজন করে।আগামী নির্বাচনের আগে জাতীয় স্বার্থে রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ হতে পারে বলেও আভাস দিয়েছেন হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতীয় পার্টির ১৮ দফা লক্ষ্য ঘোষণা করেন এরশাদ। সভাপতির বক্তব্যে জাতীয়পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন তার দল ৩শ’ আসনে প্রার্থী দেবে। এছাড়া ক্ষমতায় আসতে পারলে প্রাদেশিক সরকার গঠন, প্রশাসনের বিকেন্দ্রীকরণ ও বিচার বিভাগের সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দেবেন।তিনি বলেন, ‘নির্বাচন হবে কি হবে না জানি না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। আমরা নির্বাচন পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই।’দল ও জোটের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আপনারা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন। মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে দলের চেয়ে ব্যক্তির যোগ্যতাকে মূল্যায়ন করা হবে।’ জোটের অংশীদারদের প্রার্থী তালিকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।
এরশাদ বলেন, ‘মানুষ পরিবর্তন চায়।’ তিনি বলেন, ‘আমি সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদ। আমার ওপরে বয়োজ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদ নেই।’
সমাবেশে এরশাদ আরো বলেন, ‘আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। এখন থেকেই যাত্রা শুরু হোক। আমরা ৩০০ আসনে মনোনয়ন দেব। নির্বাচনের যারা করতে চাও, এগিয়ে আস। এ মাসের মধ্যেই পার্লামেন্টারি বোর্ড গঠন করা হবে। তৃণমূলের সমর্থনে মনোনয়ন দেওয়া হবে।’
চেয়ারম্যান আরো বলেন, ‘শেষ কথা, নির্বাচনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আমি নতুন করে ১৮ দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আমরা নির্বাচনের পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চাই। শিক্ষা পদ্ধতি সংস্কার চাই। স্বাস্থ্যসেবার সম্প্রসারণ চাই। শান্তির রাজনীতি চাই। সড়ক নিরাপত্তা চাই। ক্ষমতায় গেলে শিক্ষা-স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় পরিবর্তন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত ও প্রাদেশিক পদ্ধতি আনবেন বলেও জানান এরশাদ।
মহাসমাবেশে বক্তব্য দেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র কোচেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কোচেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার প্রমুখ।
এ সময় রওশন এরশাদ বলেন, ‘আমরা জাতীয় পার্টি সবসময় নির্বাচন করেছি। আজও আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। তবে আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। অবাধ নির্বাচন চাই। নিশ্চয়তা চাই, আমরা যারা সংসদে আছি সবার সমন্বয়ে নির্বাচনকালীর সরকার গঠন করতে হবে।’জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, জাতীয় পার্টিকে ধ্বংস করতে বারবার চেষ্টা করা হয়েছে। পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদকে কারাগারে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। যারা এই ষড়যন্ত্র করেছে, তারাই আজ দুর্নীতি মামলায় সাজাগ্রস্ত।
ঢাকা,শনিবার,২০ অক্টোম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited