ওরা ধান কুড়ানির দল

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,০৭ ডিসেম্বর।।কারো হাতে খোন্তা কিংবা কোদাল, কারো হাতে ব্যাগ। সদ্য ফসল সাফ হওয়া ক্ষেতে অনুসন্ধিৎসু চোখ খুঁজে ফিরছে ইঁদুরের গর্ত। সেখানে ইঁদুরের জমানো ধানে ভাগ বসাচ্ছে তারা। ক্ষেতে পড়ে থাকে ধানের শিষের মালিকানাও তাদের। এ দৃশ্য গ্রামের পর গ্রাম জুড়ে। প্রতিদিনই ধান কুড়ানি শিশুরা দল
বেধে ছুটে যায় ফসলের মাঠে। এমন এক দলের ব্যস্ত শিশু রুবেল ও পারুল। দূর থেকেই সতর্ক দৃষ্টিতে তাকাচ্ছে আর ধানের শিষ তুলছে। খুব এক ব্যস্ত বেশ। যেন দম ফেলার ফুসরত নেই। তাদের সাড়া গায়ে লেগে আছে ছোপ ছোপ কাঁদামাটির দাগ, সে দিকে কে তাকায় ! এমন চিত্র এখন উপকূলীয় পটুয়াখালীর কলাপাড়ার বিস্তীর্র্ণ মাঠ জুড়ে।
উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, স্কুল ছুটি হলে ছোট ছোট শিশুরা হাতে ডালা, চালুন, খোন্তা, কোদাল ও ব্যাগ নিয়ে নেমে পড়ছে মাঠে। ইঁদুরের গর্ত খুরে বের করে আনছে তাদের মজুদ করা ধান। কেউ আবার পরিত্যক্ত ক্ষেতের নাড়ার সঙ্গে থাকা ধান কুড়াচ্ছে। সংগৃহীত এ ধান একসঙ্গে বিক্রি করে কেউ কিনবে নতুন জামা, কেউ নতুন বই। কেউবা আবার সঙ্গে সঙ্গে ধান বিক্রি করে ফেরিওয়ালার কাছ থেকে মিঠাই-মন্ডাসহ বাহারি খাদ্য কিংবা হরেক রকম সামগ্রী কিনছে। ধান কুড়ানি শিশুদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাঠের ধান কেটে নিয়ে যাওয়ার পর অনেক ধানের শিষ এমনিতেই পড়ে থাকে। সেগুলো কুড়ানো হয়। এছাড়া ইঁদুরের গর্ত খুঁড়লে পাওয়া যায় ধান। এক পর্যায় শিশু রুবেল
জানায়, স্কুল ছুটি হলেই ধান কুড়াতে মাঠে চলে যাই। এই ধান কুড়িয়ে
আমরা এক জায়গায় জমা করি। যখন পরিমানে বেশি হবে তখন তা বিক্রি
করব। কৃষক ইব্রাহিম মোল্লা জানান, স্কুল ছুটি হলেই ছোট ছোট শিশুরা মাঠে চলে আসে। আমাদের ধান কাটার পরে নাড়ার সাথে দুই এক গোছা
ধান থাকলে সেগুলো তারা কুড়িয়ে নেয়। এছাড়া গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের বউ-ঝি এবং ছেলেমেয়েরা দল বেঁধে ধান কুড়িয়ে নিচ্ছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মন্নান জানান, কৃষকরা ধান কাটার সময় দুই একাটা ধানের ছড়া ক্ষেতে পড়ে থাকে। ওই ধানের ছড়া এলাকার দরিদ্র শ্রেনীর শিশুরা কুড়িয়ে নেয়। এছাড়া অনেক শিশুরা ক্ষেতে ইঁদুরের গর্তে হাত দেয়। এটা নিরাপদ নয়। গর্তে সাপ থাকতে পারে। তবে আধুনিক পদ্ধতিতে কৃষকরা ক্ষেতের ধান কাটলে মাঠে ধান পড়ে থাকবেনা। এতে কৃষকরাও উপকৃত হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,বৃহস্পতিবার,০৭ ডিসেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে সড়ক দুর্ঘটনায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী নিহত

» গণভবনে আগামীকাল বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্রুনাই সফর-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন

» বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে হাইকোর্টের নির্দেশ

» দলকে অগ্রাহ্য করে সাংসদ হিসেবে শপথ নিলেন বিএনপির মো. জাহিদুর রহমান

» চট্টগ্রামে কাঠ বোঝাই ট্রাকচাপায় ঘুমন্ত চার শ্রমিকের মৃত্যু

» রাজশাহী-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন বনলতা এক্সপ্রেস উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী

» নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কায় বনানী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন এইচ এম এরশাদ

» মোবাইল চুরির অভিযোগে প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার

» শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা হামলায় নিহত শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরীর জানাজা সম্পন্ন হয়েছে।

» জায়ান চৌধুরীকে শেষবার দেখতে শেখ সেলিমের বাসায় প্রধানমন্ত্রী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

ওরা ধান কুড়ানির দল

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,০৭ ডিসেম্বর।।কারো হাতে খোন্তা কিংবা কোদাল, কারো হাতে ব্যাগ। সদ্য ফসল সাফ হওয়া ক্ষেতে অনুসন্ধিৎসু চোখ খুঁজে ফিরছে ইঁদুরের গর্ত। সেখানে ইঁদুরের জমানো ধানে ভাগ বসাচ্ছে তারা। ক্ষেতে পড়ে থাকে ধানের শিষের মালিকানাও তাদের। এ দৃশ্য গ্রামের পর গ্রাম জুড়ে। প্রতিদিনই ধান কুড়ানি শিশুরা দল
বেধে ছুটে যায় ফসলের মাঠে। এমন এক দলের ব্যস্ত শিশু রুবেল ও পারুল। দূর থেকেই সতর্ক দৃষ্টিতে তাকাচ্ছে আর ধানের শিষ তুলছে। খুব এক ব্যস্ত বেশ। যেন দম ফেলার ফুসরত নেই। তাদের সাড়া গায়ে লেগে আছে ছোপ ছোপ কাঁদামাটির দাগ, সে দিকে কে তাকায় ! এমন চিত্র এখন উপকূলীয় পটুয়াখালীর কলাপাড়ার বিস্তীর্র্ণ মাঠ জুড়ে।
উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, স্কুল ছুটি হলে ছোট ছোট শিশুরা হাতে ডালা, চালুন, খোন্তা, কোদাল ও ব্যাগ নিয়ে নেমে পড়ছে মাঠে। ইঁদুরের গর্ত খুরে বের করে আনছে তাদের মজুদ করা ধান। কেউ আবার পরিত্যক্ত ক্ষেতের নাড়ার সঙ্গে থাকা ধান কুড়াচ্ছে। সংগৃহীত এ ধান একসঙ্গে বিক্রি করে কেউ কিনবে নতুন জামা, কেউ নতুন বই। কেউবা আবার সঙ্গে সঙ্গে ধান বিক্রি করে ফেরিওয়ালার কাছ থেকে মিঠাই-মন্ডাসহ বাহারি খাদ্য কিংবা হরেক রকম সামগ্রী কিনছে। ধান কুড়ানি শিশুদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মাঠের ধান কেটে নিয়ে যাওয়ার পর অনেক ধানের শিষ এমনিতেই পড়ে থাকে। সেগুলো কুড়ানো হয়। এছাড়া ইঁদুরের গর্ত খুঁড়লে পাওয়া যায় ধান। এক পর্যায় শিশু রুবেল
জানায়, স্কুল ছুটি হলেই ধান কুড়াতে মাঠে চলে যাই। এই ধান কুড়িয়ে
আমরা এক জায়গায় জমা করি। যখন পরিমানে বেশি হবে তখন তা বিক্রি
করব। কৃষক ইব্রাহিম মোল্লা জানান, স্কুল ছুটি হলেই ছোট ছোট শিশুরা মাঠে চলে আসে। আমাদের ধান কাটার পরে নাড়ার সাথে দুই এক গোছা
ধান থাকলে সেগুলো তারা কুড়িয়ে নেয়। এছাড়া গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের বউ-ঝি এবং ছেলেমেয়েরা দল বেঁধে ধান কুড়িয়ে নিচ্ছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মন্নান জানান, কৃষকরা ধান কাটার সময় দুই একাটা ধানের ছড়া ক্ষেতে পড়ে থাকে। ওই ধানের ছড়া এলাকার দরিদ্র শ্রেনীর শিশুরা কুড়িয়ে নেয়। এছাড়া অনেক শিশুরা ক্ষেতে ইঁদুরের গর্তে হাত দেয়। এটা নিরাপদ নয়। গর্তে সাপ থাকতে পারে। তবে আধুনিক পদ্ধতিতে কৃষকরা ক্ষেতের ধান কাটলে মাঠে ধান পড়ে থাকবেনা। এতে কৃষকরাও উপকৃত হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,বৃহস্পতিবার,০৭ ডিসেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited