দুদকের কর্মকর্তা পরিচয়ে অর্থ আদায়ের অভিযোগে ২ জন আটক

সিনিয়র রিপোর্টার,ঢাকা: দুদক এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতির মামলার ভয় দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের অভিযোগে রাজধানীর হাজারীবাগ থেকে ২ (দুই) জনকে আটক করেছে র‌্যাব-২‌। এই সময় প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত বিকাশ হিসাব সহ ২২ টি মোবাইল ফোন জব্দ করেছে র‌্যাব।
শনিবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী এই সব তথ্য জানান।
গত ২৭ জানুয়ারি দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কার্যালয় থেকে র‌্যাব ডিজি বরাবর পত্রযোগে দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরিচয়ে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দফতরে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ফোন করে দুর্নীতির মামলা রুজু ও তদন্ত চলছে- মর্মে ভয় দেখিয়ে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ করা হয়। হয়রানি বন্ধ ও তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দুদক ওই পত্রযোগে অনুরোধ করে র‌্যাবকে। র‌্যাব সদর দফতর বিষয়টি অনুসন্ধানের জন্য র‌্যাব-২-কে নির্দেশনা দেয়।
এরপর অনুসন্ধানের মাধ্যমে রাজধানীর হাজারীবাগের বউবাজার এলাকা হতে শুক্রবার রাতে আনিছুর রহমান ওরফে বাবুল (৩৬) ও বিকাশ এজেন্ট মো. ইয়াসিন তালুকদারকে (২৩) আটক করে র‌্যাব-২। এরপর তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য বেরিয়ে আসে। আটক বাবুলের কাছ থেকে ৩টি মোবাইলফোন ও ভুয়া রেজিস্ট্রিশনকৃত ১৪টি সিম ও ইয়াসিনের কাছ থেকে ১২টি সিম ও ১৮টি মোবাইলফোন জব্দ করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, চক্রটি সক্রিয় ২০১৪ সাল থেকে। তবে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরুর পর তাদের প্রতারণার কৌশল বদলে যায়। দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃক দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান জোরদারের পর প্রতারকচক্র নতুন কৌশলে নামে। তারা দুর্নীতিগ্রস্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টার্গেট করে। টার্গেটকৃতদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন সরকারি ব্যাংক, ভূমি অফিস, স্বাস্থ্য অধিদফতর, পুলিশ, বিভিন্ন এনজিওসহ উন্নয়ন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী।
আটক আনিছুর রহমান বাবুল জিজ্ঞাসাবাদে জানান, মাদারীপুরের রাজৈর থানা এলাকার এক ব্যক্তি এই চক্রের মূলহোতা। তার হাতধরেই এই প্রতারণাচক্রে তার হাতেখড়ি।
র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, প্রথমে চক্রটি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দুর্নীতিগ্রস্তদের সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেয়। এরপর সরকারি টেলিফোন ইনডেক্স থেকে মোবাইল কিংবা টেলিফোন নম্বর সংগ্রহ করে ফোন দেয়। বলে, ‘হ্যালো, আমি দুদকের পরিচালক বলছি, আপনার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা হয়েছে। সেটি আমি তদন্ত করছি। তদন্তের স্বার্থে আপনার সাক্ষাৎ প্রয়োজন।’
এরপর অনেকে তাদের ব্যক্তিগত নম্বর চেয়ে নিয়ে যোগাযোগ করে বিকাশের মাধ্যমে টাকা দিয়ে বিষয়টি মিটিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন। আবার অনেকে দেখা করে টাকা দেন। তবে দুর্নীতিগ্রস্ত নন এমন কর্মকর্তারা দুদককে বিষয়টি অভিযোগ করেন। এরপর বিষয়টি নজরে আসে।
মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, ২০১৪ সালে থেকে এ পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দফতরের পাঁচ শতাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে ৪০ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে চক্রটি। আটক দুজনের বিকাশ অ্যাকাউন্টেও এর তথ্য-প্রমাণ মিলেছে। আনিছুরের ব্যক্তিগত বিকাশ নম্বরেই গত ছয় মাসে জমা হয়েছে ১২ লাখ টাকা। আর ইয়াসিনের বিকাশ নম্বরে ৫০ হাজার টাকা পাওয়া গেলেও লেনদেন হয়েছে নয় লাখেরও বেশি।
জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াসিন তালুকদার জানান, এইচএসসি পাস করার পর ডিগ্রি পাস কোর্সে ভর্তি হলেও পড়াশোনা শেষ না করেই ব্যবসায় নামেন। ফ্লেক্সিলোড ও বিকাশ এজেন্টের ব্যবসা তার। তিনি গার্মেন্টসকর্মী, রিকশাচালক দিনমজুরের এনআইডি কার্ডের ও হতের ফিঙ্গারপ্রিন্ট একাধিকবার নিয়ে সিম রেজিস্ট্রেশন করে বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলেন। পরে সেটি প্রতারণার কাজে ব্যবহার করে আসছিলেন।
এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাব-২ এর এই কর্মকর্তা বলেন, যারা দুর্নীতির মামলার তদন্তের কথা শুনে বিকাশে টাকা দিয়েছেন, যোগাযোগ করেছেন তাদের ব্যাপারেও আমরা তথ্য সংগ্রহ করছি। এ ঘটনায় মামলা হবে। যেই তদন্ত করুক না কেন দুর্নীতির কথা শুনেই যারা টাকা দিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি প্রতারকচক্রের মোবাইলফোনে যোগাযোগকারীদের তালিকা প্রস্তুত করা হবে।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,শনিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» সংরক্ষিত আসনের নবনির্বাচিত ৪৯ সংসদ সদস্য আজ বুধবার শপথ নিয়েছেন

» জার্মানি ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

» রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়কের লালমনিরহাটের বড়বাড়িতে বাসের সঙ্গে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩

» ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানি ২৪ ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ২২ ফেব্রুয়ারি

» মেয়র পদপ্রার্থী আতিকুর রহমানের আগামী প্রজন্মের স্বপ্নের ঢাকা শীর্ষক গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

» ডাকসু’র নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু

» খাগড়াছড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে সাতজন দগ্ধ

» জাজিরা প্রান্তে বসছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর সপ্তম স্প্যান

» শাজাহান খানের নেতৃত্বে সড়কে শৃঙ্খলার কমিটি হাস্যকর ও তামাশা : রিজভী

» একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মহানগরীর নিরাপত্তায় ১৬ হাজার পুলিশ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

দুদকের কর্মকর্তা পরিচয়ে অর্থ আদায়ের অভিযোগে ২ জন আটক

সিনিয়র রিপোর্টার,ঢাকা: দুদক এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতির মামলার ভয় দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের অভিযোগে রাজধানীর হাজারীবাগ থেকে ২ (দুই) জনকে আটক করেছে র‌্যাব-২‌। এই সময় প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত বিকাশ হিসাব সহ ২২ টি মোবাইল ফোন জব্দ করেছে র‌্যাব।
শনিবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী এই সব তথ্য জানান।
গত ২৭ জানুয়ারি দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কার্যালয় থেকে র‌্যাব ডিজি বরাবর পত্রযোগে দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরিচয়ে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দফতরে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ফোন করে দুর্নীতির মামলা রুজু ও তদন্ত চলছে- মর্মে ভয় দেখিয়ে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ করা হয়। হয়রানি বন্ধ ও তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দুদক ওই পত্রযোগে অনুরোধ করে র‌্যাবকে। র‌্যাব সদর দফতর বিষয়টি অনুসন্ধানের জন্য র‌্যাব-২-কে নির্দেশনা দেয়।
এরপর অনুসন্ধানের মাধ্যমে রাজধানীর হাজারীবাগের বউবাজার এলাকা হতে শুক্রবার রাতে আনিছুর রহমান ওরফে বাবুল (৩৬) ও বিকাশ এজেন্ট মো. ইয়াসিন তালুকদারকে (২৩) আটক করে র‌্যাব-২। এরপর তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য বেরিয়ে আসে। আটক বাবুলের কাছ থেকে ৩টি মোবাইলফোন ও ভুয়া রেজিস্ট্রিশনকৃত ১৪টি সিম ও ইয়াসিনের কাছ থেকে ১২টি সিম ও ১৮টি মোবাইলফোন জব্দ করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, চক্রটি সক্রিয় ২০১৪ সাল থেকে। তবে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরুর পর তাদের প্রতারণার কৌশল বদলে যায়। দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃক দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান জোরদারের পর প্রতারকচক্র নতুন কৌশলে নামে। তারা দুর্নীতিগ্রস্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টার্গেট করে। টার্গেটকৃতদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন সরকারি ব্যাংক, ভূমি অফিস, স্বাস্থ্য অধিদফতর, পুলিশ, বিভিন্ন এনজিওসহ উন্নয়ন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী।
আটক আনিছুর রহমান বাবুল জিজ্ঞাসাবাদে জানান, মাদারীপুরের রাজৈর থানা এলাকার এক ব্যক্তি এই চক্রের মূলহোতা। তার হাতধরেই এই প্রতারণাচক্রে তার হাতেখড়ি।
র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, প্রথমে চক্রটি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দুর্নীতিগ্রস্তদের সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেয়। এরপর সরকারি টেলিফোন ইনডেক্স থেকে মোবাইল কিংবা টেলিফোন নম্বর সংগ্রহ করে ফোন দেয়। বলে, ‘হ্যালো, আমি দুদকের পরিচালক বলছি, আপনার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা হয়েছে। সেটি আমি তদন্ত করছি। তদন্তের স্বার্থে আপনার সাক্ষাৎ প্রয়োজন।’
এরপর অনেকে তাদের ব্যক্তিগত নম্বর চেয়ে নিয়ে যোগাযোগ করে বিকাশের মাধ্যমে টাকা দিয়ে বিষয়টি মিটিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন। আবার অনেকে দেখা করে টাকা দেন। তবে দুর্নীতিগ্রস্ত নন এমন কর্মকর্তারা দুদককে বিষয়টি অভিযোগ করেন। এরপর বিষয়টি নজরে আসে।
মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, ২০১৪ সালে থেকে এ পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দফতরের পাঁচ শতাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে ৪০ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে চক্রটি। আটক দুজনের বিকাশ অ্যাকাউন্টেও এর তথ্য-প্রমাণ মিলেছে। আনিছুরের ব্যক্তিগত বিকাশ নম্বরেই গত ছয় মাসে জমা হয়েছে ১২ লাখ টাকা। আর ইয়াসিনের বিকাশ নম্বরে ৫০ হাজার টাকা পাওয়া গেলেও লেনদেন হয়েছে নয় লাখেরও বেশি।
জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াসিন তালুকদার জানান, এইচএসসি পাস করার পর ডিগ্রি পাস কোর্সে ভর্তি হলেও পড়াশোনা শেষ না করেই ব্যবসায় নামেন। ফ্লেক্সিলোড ও বিকাশ এজেন্টের ব্যবসা তার। তিনি গার্মেন্টসকর্মী, রিকশাচালক দিনমজুরের এনআইডি কার্ডের ও হতের ফিঙ্গারপ্রিন্ট একাধিকবার নিয়ে সিম রেজিস্ট্রেশন করে বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলেন। পরে সেটি প্রতারণার কাজে ব্যবহার করে আসছিলেন।
এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাব-২ এর এই কর্মকর্তা বলেন, যারা দুর্নীতির মামলার তদন্তের কথা শুনে বিকাশে টাকা দিয়েছেন, যোগাযোগ করেছেন তাদের ব্যাপারেও আমরা তথ্য সংগ্রহ করছি। এ ঘটনায় মামলা হবে। যেই তদন্ত করুক না কেন দুর্নীতির কথা শুনেই যারা টাকা দিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি প্রতারকচক্রের মোবাইলফোনে যোগাযোগকারীদের তালিকা প্রস্তুত করা হবে।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,শনিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited