নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে ভেজাল বিরোধী অভিযান জোরদার করা হবে-প্রধানমন্ত্রী

খাদ্যে ভেজাল মেনে নেওয়া যায় না। এই ভেজাল বন্ধ করতে হবে।দেশের মানুষের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে ভেজাল বিরোধী অভিযান জোরদারের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ রোববার সকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবসের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু ব্যবসায়ী অতি মুনাফা লাভের আশায় খাদ্যে ভেজাল মেশান যা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। এর বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। ভেজালবিরোধী অভিযানের যে লোকবলের সংকট রয়েছে তা অবিলম্বে দূর করা হবে। তিনি খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘খাদ্য শুধু উৎপাদন করলেই হবে না। খাদ্যটা যথাযথ মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে। সেই খাদ্য পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও আমরা নিয়েছি। খাদ্যে ভেজাল দেওয়া-এটা আমাদের দেশের কিছু কিছু শ্রেণির এটা বোধহয় তাদের চরিত্রগত বদঅভ্যাস। এটা বন্ধ করতে হবে। হাটে-ঘাটে-মাঠেও যেন এই যে ভেজালবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকে তার ব্যবস্থাও আমরা নিচ্ছি। ভবিষ্যতে আমরা আরো নেব। সাথে সাথে আমি মনে করি এসব ক্ষেত্রে মানুষকে সচেতন করা দরকার। যে আপনি কেন ভেজাল দিয়ে বিক্রি করবেন? আপনি ভালোটাই বিক্রি করেন। আপনার যে দাম পড়ে আপনি সেই দাম নেন। একটু বেশি লাভ নিতে চান, লাভও নেন। কিন্তু যেটা করবেন ভালোভাবে করেন।’‘‘এবারের নিরাপদ খাদ্য দিবসের প্রতিপাদ্য ‘সুস্থ-সবল জাতি চাই, নিরাপদ খাদ্যের বিকল্প নাই’ খুবই সময়োপযোগী স্লোগান। আমরা প্রথমবার সরকারে আসার পরই দেশে পুষ্টিহীনতা দূর করার জন্য নানা ধরনের প্রকল্প হাতে নিই। যদিও পরবর্তী সরকার এসে তা বন্ধ করে দেয়। তবে আমরা নতুন করে আরও নানা উদ্যোগ নিয়েছি।’’
শেখ হাসিনা বলেন, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে আলাদাভাবে বাংলাদেশ নিরাপদ কর্তৃপক্ষ করে দিয়েছি। যাতে মাঠে-ঘাটে সবখানেই ভেজালের বিরুদ্ধে কাজ করা যায়। তবে এক্ষেত্রে মানুষকে সচেতন করতে হবে। দেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চলছে, ভেজালও এক ধরনের দুর্নীতি। এই দুর্নীতি রোধেও কঠোর অভিযান চলছে। দেশের মানুষের নিরাপদ খাদ্য আমরা দেবো এবং নিশ্চিত করবো। নির্বাচনী ইশতেহারের কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, দেশের মানুষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তারা আমাদের আবারও তাদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। দেশের মানুষের নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতের বিষয়টি আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারেও রয়েছে, তা বাস্তবায়নে উদ্যোগ নেওয়া হবে।
‘শুধু ভাত খেলেই হবে না শাক-সবজিসহ পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। আমাদের এখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন খাদ্য পরীক্ষা করবার জন্য একটি ল্যাবরেটরি; এই ল্যাব করা হবে। কেন্দ্রীয় ল্যাবরেটরির পাশাপাশি প্রতিটি বিভাগেও খাদ্য পরীক্ষাগারের শাখা চালু করা হবে। আমরা উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করে তার কন্যা বলেন, আমরা জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চাই। আবারও সেবা করার সুযোগ দেওয়ায় আমরা জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞ। তাদের ভোটের মর্যার্দা আমরা রক্ষা করবো। বাংলাদেশ হাতে পেতে চলবে না। উন্নত দেশ হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।
ঢাকা,রোববার,০৩ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» জার্মানি ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

» রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়কের লালমনিরহাটের বড়বাড়িতে বাসের সঙ্গে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩

» ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানি ২৪ ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ২২ ফেব্রুয়ারি

» মেয়র পদপ্রার্থী আতিকুর রহমানের আগামী প্রজন্মের স্বপ্নের ঢাকা শীর্ষক গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

» ডাকসু’র নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু

» খাগড়াছড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে সাতজন দগ্ধ

» জাজিরা প্রান্তে বসছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর সপ্তম স্প্যান

» শাজাহান খানের নেতৃত্বে সড়কে শৃঙ্খলার কমিটি হাস্যকর ও তামাশা : রিজভী

» একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মহানগরীর নিরাপত্তায় ১৬ হাজার পুলিশ

» বিশ্বশান্তি ও কল্যাণ কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের ইজতেমা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে ভেজাল বিরোধী অভিযান জোরদার করা হবে-প্রধানমন্ত্রী

খাদ্যে ভেজাল মেনে নেওয়া যায় না। এই ভেজাল বন্ধ করতে হবে।দেশের মানুষের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে ভেজাল বিরোধী অভিযান জোরদারের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ রোববার সকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবসের উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু ব্যবসায়ী অতি মুনাফা লাভের আশায় খাদ্যে ভেজাল মেশান যা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। এর বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। ভেজালবিরোধী অভিযানের যে লোকবলের সংকট রয়েছে তা অবিলম্বে দূর করা হবে। তিনি খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘খাদ্য শুধু উৎপাদন করলেই হবে না। খাদ্যটা যথাযথ মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে। সেই খাদ্য পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও আমরা নিয়েছি। খাদ্যে ভেজাল দেওয়া-এটা আমাদের দেশের কিছু কিছু শ্রেণির এটা বোধহয় তাদের চরিত্রগত বদঅভ্যাস। এটা বন্ধ করতে হবে। হাটে-ঘাটে-মাঠেও যেন এই যে ভেজালবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকে তার ব্যবস্থাও আমরা নিচ্ছি। ভবিষ্যতে আমরা আরো নেব। সাথে সাথে আমি মনে করি এসব ক্ষেত্রে মানুষকে সচেতন করা দরকার। যে আপনি কেন ভেজাল দিয়ে বিক্রি করবেন? আপনি ভালোটাই বিক্রি করেন। আপনার যে দাম পড়ে আপনি সেই দাম নেন। একটু বেশি লাভ নিতে চান, লাভও নেন। কিন্তু যেটা করবেন ভালোভাবে করেন।’‘‘এবারের নিরাপদ খাদ্য দিবসের প্রতিপাদ্য ‘সুস্থ-সবল জাতি চাই, নিরাপদ খাদ্যের বিকল্প নাই’ খুবই সময়োপযোগী স্লোগান। আমরা প্রথমবার সরকারে আসার পরই দেশে পুষ্টিহীনতা দূর করার জন্য নানা ধরনের প্রকল্প হাতে নিই। যদিও পরবর্তী সরকার এসে তা বন্ধ করে দেয়। তবে আমরা নতুন করে আরও নানা উদ্যোগ নিয়েছি।’’
শেখ হাসিনা বলেন, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে আলাদাভাবে বাংলাদেশ নিরাপদ কর্তৃপক্ষ করে দিয়েছি। যাতে মাঠে-ঘাটে সবখানেই ভেজালের বিরুদ্ধে কাজ করা যায়। তবে এক্ষেত্রে মানুষকে সচেতন করতে হবে। দেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চলছে, ভেজালও এক ধরনের দুর্নীতি। এই দুর্নীতি রোধেও কঠোর অভিযান চলছে। দেশের মানুষের নিরাপদ খাদ্য আমরা দেবো এবং নিশ্চিত করবো। নির্বাচনী ইশতেহারের কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, দেশের মানুষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তারা আমাদের আবারও তাদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। দেশের মানুষের নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতের বিষয়টি আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারেও রয়েছে, তা বাস্তবায়নে উদ্যোগ নেওয়া হবে।
‘শুধু ভাত খেলেই হবে না শাক-সবজিসহ পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। আমাদের এখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন খাদ্য পরীক্ষা করবার জন্য একটি ল্যাবরেটরি; এই ল্যাব করা হবে। কেন্দ্রীয় ল্যাবরেটরির পাশাপাশি প্রতিটি বিভাগেও খাদ্য পরীক্ষাগারের শাখা চালু করা হবে। আমরা উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার কথা উল্লেখ করে তার কন্যা বলেন, আমরা জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চাই। আবারও সেবা করার সুযোগ দেওয়ায় আমরা জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞ। তাদের ভোটের মর্যার্দা আমরা রক্ষা করবো। বাংলাদেশ হাতে পেতে চলবে না। উন্নত দেশ হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।
ঢাকা,রোববার,০৩ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited