আজকে ভোট ডাকাতি করে সরকার উৎসব করছে-ঐক্যফ্রন্ট

নির্বাচনের নামে জনগণের ভোটাধিকার ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে আজকে আমরা কালো ব্যাজ ধারণ করে প্রতিবাদ করছি।এর প্রতিবাদে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার হুঁশিয়ারিও দেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।বুধবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে বুকে ‘কালো ব্যাজ’ ধারণ ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা এ কথা বলেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত এ কর্মসূচি বিকেল ৩টায় শুরু হয়ে ৪টায় শেষ হয়।
কর্মসূচিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের যোগ দেয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তাকে কর্মসূচিতে দেখা যায়নি। কর্মসূচি চলাকালে বিএনপি, গণফোরাম, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্যসহ অন্য দলের নেতারা বক্তব্য রাখেন। জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, বেগম খালেদা জিয়া ও লাখ লাখ নেতাকর্মীকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে হবে। তাদের মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, এর জন্য আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।আজকে ভোট ডাকাতি করে সরকার উৎসব করছে। যে দেশের প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অনিয়ম করে, সেখানে ভবিষ্যৎ থাকে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। প্রধান বক্তা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেন, সরকার খালেদা জিয়াকে বন্দি করে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল, কিন্তু ব্যর্থ হয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দেশের পুলিশ, বিচার বিভাগ থেকে শুরু করে সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। মেগা উন্নয়নের নামে তারা মেগা দুর্নীতি করেছে। এই হলো উন্নয়নের নমুনা। এটাই স্বৈরাচারী সরকারের চরিত্র।গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্ট্রি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, দেশের অবস্থা মর্মান্তিক। মানুষের ভোটাধিকারকে কবর দেওয়া হয়েছে। এখন চলছে পুরস্কার দেওয়ার উৎসব। অপেক্ষা করেন, সামনে প্রশাসন ও পুলিশের রঙ্গলীলা দেখার জন্য।
মানববন্ধন বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, মহানগর নেতা কাজী আবুল বাশার, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, হাবিবুল ইসলাম হাবীব, এমএ আউয়াল খান, শামীমুর রহমান শামীম, শিরিন আক্তার, শিরিন সুলতানা প্রমুখ।
ঢাকা,বুধবার,০৬ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়কের লালমনিরহাটের বড়বাড়িতে বাসের সঙ্গে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩

» ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানি ২৪ ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ২২ ফেব্রুয়ারি

» মেয়র পদপ্রার্থী আতিকুর রহমানের আগামী প্রজন্মের স্বপ্নের ঢাকা শীর্ষক গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

» ডাকসু’র নির্বাচনের মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু

» খাগড়াছড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে সাতজন দগ্ধ

» জাজিরা প্রান্তে বসছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর সপ্তম স্প্যান

» শাজাহান খানের নেতৃত্বে সড়কে শৃঙ্খলার কমিটি হাস্যকর ও তামাশা : রিজভী

» একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মহানগরীর নিরাপত্তায় ১৬ হাজার পুলিশ

» বিশ্বশান্তি ও কল্যাণ কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের ইজতেমা

» সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

আজকে ভোট ডাকাতি করে সরকার উৎসব করছে-ঐক্যফ্রন্ট

নির্বাচনের নামে জনগণের ভোটাধিকার ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে আজকে আমরা কালো ব্যাজ ধারণ করে প্রতিবাদ করছি।এর প্রতিবাদে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার হুঁশিয়ারিও দেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।বুধবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে বুকে ‘কালো ব্যাজ’ ধারণ ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা এ কথা বলেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত এ কর্মসূচি বিকেল ৩টায় শুরু হয়ে ৪টায় শেষ হয়।
কর্মসূচিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের যোগ দেয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তাকে কর্মসূচিতে দেখা যায়নি। কর্মসূচি চলাকালে বিএনপি, গণফোরাম, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্যসহ অন্য দলের নেতারা বক্তব্য রাখেন। জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, বেগম খালেদা জিয়া ও লাখ লাখ নেতাকর্মীকে কারাগার থেকে মুক্ত করতে হবে। তাদের মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, এর জন্য আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।আজকে ভোট ডাকাতি করে সরকার উৎসব করছে। যে দেশের প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অনিয়ম করে, সেখানে ভবিষ্যৎ থাকে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। প্রধান বক্তা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেন, সরকার খালেদা জিয়াকে বন্দি করে বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল, কিন্তু ব্যর্থ হয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দেশের পুলিশ, বিচার বিভাগ থেকে শুরু করে সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। মেগা উন্নয়নের নামে তারা মেগা দুর্নীতি করেছে। এই হলো উন্নয়নের নমুনা। এটাই স্বৈরাচারী সরকারের চরিত্র।গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্ট্রি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, দেশের অবস্থা মর্মান্তিক। মানুষের ভোটাধিকারকে কবর দেওয়া হয়েছে। এখন চলছে পুরস্কার দেওয়ার উৎসব। অপেক্ষা করেন, সামনে প্রশাসন ও পুলিশের রঙ্গলীলা দেখার জন্য।
মানববন্ধন বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, মহানগর নেতা কাজী আবুল বাশার, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, হাবিবুল ইসলাম হাবীব, এমএ আউয়াল খান, শামীমুর রহমান শামীম, শিরিন আক্তার, শিরিন সুলতানা প্রমুখ।
ঢাকা,বুধবার,০৬ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited