বাবার পৈতৃক বাড়ি বাংলাদেশে বেড়াতে এসে পাকিস্তানি নাগরিক এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার

বাবার পৈতৃক বাড়ি বাংলাদেশে বেড়াতে এসে পাকিস্তানি নাগরিক এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পেয়েছে পুলিশ। টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানায় দায়ের করা অভিযোগে বলা হয়েছে, ওই কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণ করা হয়।গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাতে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার একটি গ্রাম থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী পাকিস্তানের করাচিতে একটি সরকারি স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে গোপালপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।স্থানীয়রা জানান, পঁচিশ বছর আগে ব্যবসা করার জন্য বাংলাদেশের টাঙ্গাইল থেকে পাকিস্তানে যান ওই কিশোরীর বাবা। তিনি সেখানে গার্মেন্টের ব্যবসা করতেন। একপর্যায়ে সেখানে তিনি এক পাকিস্তানি নারীকে বিয়ে করে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। কিশোরীর জন্মও পাকিস্তানের করাচিতে। সেখানেই একটি সরকারি স্কুলে সে নবম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে।
কিশোরীর বাবার টাঙ্গাইলের আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। তিনি কয়েক বছর আগে হঠাৎ করেই মারা যান। প্রায় পাঁচ মাস আগে মায়ের সঙ্গে কিশোরী তার বাবার পৈতৃক বাড়িতে বেড়াতে আসে। বাবার এক বড় ভাইয়ের বাড়িতে ওঠে কিশোরী। সেখান থেকেই এক আত্মীয় যুবক তাকে অপহরণ করে ধর্ষণ করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন বলেন, ‘পাঁচ মাস আগে মেয়েকে নিয়ে গোপালপুরে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন পাকিস্তানি মা। তিনি উঠেছিলেন তাঁর স্বামীর বড় ভাই, অর্থাৎ ভাশুরের বাড়িতে। সেই বাড়িতেই আরেক ভাশুরের ছেলে কিশোরীকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করত। বিষয়টি পারিবারিকভাবে মীমাংসার চেষ্টাও করা হয়।’
এরই মধ্যে মা ও মেয়ের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছিল। ফলে পাকিস্তানে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। এ কথা জানতে পেরে উত্ত্যক্তকারী যুবক ক্ষুব্ধ হয়।
ওসি আরো বলেন, গত বুধবার রাতে কয়েকজন ওই কিশোরীকে কৌশলে অপহরণ করে। এ ঘটনায় তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন কিশোরীর মা। মামলার আসামি ‘উত্ত্যক্তকারী’ যুবকের মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
টাঙ্গাইল,শুক্রবার,১৯ এপ্রিল,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জোটের বিশাল জয়, নরেন্দ্র মোদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিনন্দন

» আসন্ন ঈদ উপলক্ষে নগরীতে জনগণের নিরাপত্তা বিধানে সবধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে-ডিএমপি কমিশনার

» ঈদযাত্রা স্বস্তির করতে সম্মিলিত উদ্যোগ নিতে হবে-ওবায়দুল কাদের

» ৫২টি মানহীন পণ্যের একটিও বাজার থেকে না সরানোয় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানকে হাইকোর্টে তলব

» ব্যাংককে চিকিৎসা শেষে আজ সন্ধায় দেশে ফিরবেন মির্জা ফখরুল

» নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের পথে এগিয়ে চলেছে বিজেপি

» সংগীতশিল্পী খালিদ হোসেনকে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা

» গাজীপুরে সিলিন্ডার লিকেজ থেকে অগ্নিকাণ্ড দুই শিশুসহ এক পরিবারের চারজনের মৃত্যু

» রাজধানীর বনশ্রী এলাকায় কাভার্ড ভ্যানচাপায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু

» কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসছে মৃত কচ্ছপ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

বাবার পৈতৃক বাড়ি বাংলাদেশে বেড়াতে এসে পাকিস্তানি নাগরিক এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার

বাবার পৈতৃক বাড়ি বাংলাদেশে বেড়াতে এসে পাকিস্তানি নাগরিক এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পেয়েছে পুলিশ। টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানায় দায়ের করা অভিযোগে বলা হয়েছে, ওই কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণ করা হয়।গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাতে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার একটি গ্রাম থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী পাকিস্তানের করাচিতে একটি সরকারি স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে গোপালপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।স্থানীয়রা জানান, পঁচিশ বছর আগে ব্যবসা করার জন্য বাংলাদেশের টাঙ্গাইল থেকে পাকিস্তানে যান ওই কিশোরীর বাবা। তিনি সেখানে গার্মেন্টের ব্যবসা করতেন। একপর্যায়ে সেখানে তিনি এক পাকিস্তানি নারীকে বিয়ে করে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। কিশোরীর জন্মও পাকিস্তানের করাচিতে। সেখানেই একটি সরকারি স্কুলে সে নবম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে।
কিশোরীর বাবার টাঙ্গাইলের আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। তিনি কয়েক বছর আগে হঠাৎ করেই মারা যান। প্রায় পাঁচ মাস আগে মায়ের সঙ্গে কিশোরী তার বাবার পৈতৃক বাড়িতে বেড়াতে আসে। বাবার এক বড় ভাইয়ের বাড়িতে ওঠে কিশোরী। সেখান থেকেই এক আত্মীয় যুবক তাকে অপহরণ করে ধর্ষণ করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন বলেন, ‘পাঁচ মাস আগে মেয়েকে নিয়ে গোপালপুরে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন পাকিস্তানি মা। তিনি উঠেছিলেন তাঁর স্বামীর বড় ভাই, অর্থাৎ ভাশুরের বাড়িতে। সেই বাড়িতেই আরেক ভাশুরের ছেলে কিশোরীকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করত। বিষয়টি পারিবারিকভাবে মীমাংসার চেষ্টাও করা হয়।’
এরই মধ্যে মা ও মেয়ের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছিল। ফলে পাকিস্তানে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। এ কথা জানতে পেরে উত্ত্যক্তকারী যুবক ক্ষুব্ধ হয়।
ওসি আরো বলেন, গত বুধবার রাতে কয়েকজন ওই কিশোরীকে কৌশলে অপহরণ করে। এ ঘটনায় তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন কিশোরীর মা। মামলার আসামি ‘উত্ত্যক্তকারী’ যুবকের মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
টাঙ্গাইল,শুক্রবার,১৯ এপ্রিল,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited