করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
২৯৯৬ ২,৬৩,৫০৩ ১,৫১,৯৭২ ৩৪৭১

২০ কোটি টাকা খাবার বিলের খবর মিথ্যা এ ধরনের কথা ভিত্তিহীন

২০ কোটি টাকা খাবার বিলের খবর মিথ্যা,ওই বিলে শুধু চিকিৎসকদের খাবার খরচ নয়, হাসপাতালের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকা-খাওয়া, যাতায়াতসহ সব ধরনের খরচ দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।বুধবার (১ জুলাই) বেলা ১২টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন।সংবাদ সম্মেলনে ২০ কোটি টাকার খাবার বিল প্রসঙ্গে ঢামেক পরিচালক বলেন, ওই বিলে শুধু চিকিৎসক নয়, নার্সসহ হাসপাতালের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকা, খাওয়া, পরিবহন খরচসহ সব খরচ দেখানো হয়েছে। গত ২ মে থেকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে করোনা রোগী ভর্তির কার্যক্রম শুরু হয়। তখন থেকে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্সসহ কর্মচারীদের কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য কিছু আবাসিক হোটেল ভাড়া নেওয়া হয়। পরিচালক বলেন, এ পর্যন্ত চিকিৎসক-নার্স কর্মচারী ও আনসার সদস্য মিলে কোভিড রোগীদের চিকিৎসায় ৩ হাজার ৬২৮ জন দায়িত্ব পালন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে অধ্যাপক বিল্লাল আলম বলেন, শুধু চিকিৎসকদের খাওয়া খরচ ২০ কোটি টাকা, আমারা কী এমন ডাক্তার, যে একটি কলা ১ হাজার টাকা দিয়ে কিনে খাবো? এসব কথা যেখানে বলা হয়েছে, আমার মনে হয়ে এর কোনো ভিত্তি নাই। এতে চিকিৎসক সমাজকে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। অবশ্যই এর তদন্ত হওয়ার দরকার ছিল।
এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, যদি স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতি হয়ে থাকে অবশ্যই তদন্ত করা উচিত। পরিচালক এ কে এম নাসির উদ্দিন জানান, যাতায়াতের জন্য প্রায় ১৫টি মিনিবাস, দুটি মাইক্রোবাস ও দুটি বাস রাখা হয়েছে। সেগুলো দিয়ে প্রতিদিন তিন বেলা তাদের আনা-নেওয়া করা হচ্ছে। দুই মাসের জন্য কী পরিমাণ খরচ হতে পারে তা মন্ত্রণালয় থেকে তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল। তখন তারা হিসাব করে দেখেছেন- দুই মাসে ২০ কোটি টাকার মত লাগতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা মেডিকেল সবকিছুর প্রমাণ দেবে। ইতোমধ্যে ঢাকা মেডিকেলে প্রায় ১৫০ জনের চিকিৎসক, ২৫০ জন নার্স ও ১০০ জনের বেশি কর্মচারী ও আনসার সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তাই স্বাস্থ্যকর্মীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে হোটেলে রাখা হচ্ছে।ঢামেক পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসিরউদ্দিন বলেন, ‘চিকিৎসকের থাকা খাওয়া খরচ নিয়ে গণমাধ্যমে যেসব খবর প্রচার করা হচ্ছে তা মিথ্যা, ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা সকলেই এই অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’
ঢাকা,বুধবার,০১ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» আগামী ৩রা অক্টোবর বাফুফের বহুল কাক্ষিত নির্বাচন

» মেজর সিনহা হত্যায় আরো ৩ জন গ্রেফতার

» বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের অনুমোদন রাশিয়ার

» বামনা থানার এএসআইয়ের গালে চড় মারা সেই ওসি মো. ইলিয়াস আলী প্রত্যাহার

» বঙ্গবন্ধু হত্যা ছিল সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রকে হত্যার ষড়যন্ত্রের অংশ-তথ্যমন্ত্রী

» গোপালগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় আহত যুবলীগ নেতা রাসেল মোল্লা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন

» নতুন করে আরও ২৯৯৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত,মৃত্যু ৩৩ জন

» পয়লা অক্টোবরের মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে কোনও ঝুলন্ত ক্যাবল থাকবে না-মেয়র

» ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন

» করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন পুলিশের আরেক গর্বিত সদস্য

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

২০ কোটি টাকা খাবার বিলের খবর মিথ্যা এ ধরনের কথা ভিত্তিহীন

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

২০ কোটি টাকা খাবার বিলের খবর মিথ্যা,ওই বিলে শুধু চিকিৎসকদের খাবার খরচ নয়, হাসপাতালের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকা-খাওয়া, যাতায়াতসহ সব ধরনের খরচ দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।বুধবার (১ জুলাই) বেলা ১২টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন।সংবাদ সম্মেলনে ২০ কোটি টাকার খাবার বিল প্রসঙ্গে ঢামেক পরিচালক বলেন, ওই বিলে শুধু চিকিৎসক নয়, নার্সসহ হাসপাতালের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকা, খাওয়া, পরিবহন খরচসহ সব খরচ দেখানো হয়েছে। গত ২ মে থেকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে করোনা রোগী ভর্তির কার্যক্রম শুরু হয়। তখন থেকে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্সসহ কর্মচারীদের কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য কিছু আবাসিক হোটেল ভাড়া নেওয়া হয়। পরিচালক বলেন, এ পর্যন্ত চিকিৎসক-নার্স কর্মচারী ও আনসার সদস্য মিলে কোভিড রোগীদের চিকিৎসায় ৩ হাজার ৬২৮ জন দায়িত্ব পালন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে অধ্যাপক বিল্লাল আলম বলেন, শুধু চিকিৎসকদের খাওয়া খরচ ২০ কোটি টাকা, আমারা কী এমন ডাক্তার, যে একটি কলা ১ হাজার টাকা দিয়ে কিনে খাবো? এসব কথা যেখানে বলা হয়েছে, আমার মনে হয়ে এর কোনো ভিত্তি নাই। এতে চিকিৎসক সমাজকে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। অবশ্যই এর তদন্ত হওয়ার দরকার ছিল।
এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, যদি স্বাস্থ্যখাতে দুর্নীতি হয়ে থাকে অবশ্যই তদন্ত করা উচিত। পরিচালক এ কে এম নাসির উদ্দিন জানান, যাতায়াতের জন্য প্রায় ১৫টি মিনিবাস, দুটি মাইক্রোবাস ও দুটি বাস রাখা হয়েছে। সেগুলো দিয়ে প্রতিদিন তিন বেলা তাদের আনা-নেওয়া করা হচ্ছে। দুই মাসের জন্য কী পরিমাণ খরচ হতে পারে তা মন্ত্রণালয় থেকে তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল। তখন তারা হিসাব করে দেখেছেন- দুই মাসে ২০ কোটি টাকার মত লাগতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা মেডিকেল সবকিছুর প্রমাণ দেবে। ইতোমধ্যে ঢাকা মেডিকেলে প্রায় ১৫০ জনের চিকিৎসক, ২৫০ জন নার্স ও ১০০ জনের বেশি কর্মচারী ও আনসার সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তাই স্বাস্থ্যকর্মীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে হোটেলে রাখা হচ্ছে।ঢামেক পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসিরউদ্দিন বলেন, ‘চিকিৎসকের থাকা খাওয়া খরচ নিয়ে গণমাধ্যমে যেসব খবর প্রচার করা হচ্ছে তা মিথ্যা, ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা সকলেই এই অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’
ঢাকা,বুধবার,০১ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

Translate »