করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
১৫৪৪ ৩,৪৮,৯১৬ ২,৫৬,৫৬৫ ৪৯৩৯

আজ পবিত্র হজ। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সমাবেশ

আজ পবিত্র হজ। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সমাবেশ। আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় লাখ লাখ হাজির কণ্ঠে উচ্চারিত হবে ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইক লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়াননি মাতা লাকা ওয়ালমুল লা শারিকালাক’। আজ মিনায় ফজরের নামাজ আদায়ের পরপরই আরাফাতের উদ্দেশ্যে রওনা হন হাজিরা।বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করে খুৎবা শোনা, দোয়া ও ক্ষমা প্রার্থনায় ব্যস্ত থাকবেন মুসল্লিরা। এরপর মুজদালিফা পৌঁছে মাগরিব ও এশার নামাজ এক সঙ্গে আদায় করবেন তারা। আরাফাতের ময়দানের পাশে অবস্থিত জাবালে রহমত পাহাড়।হজের দ্বিতীয় দিন ১০ জিলহজ শুক্রবার মিনায় পৌঁছার পর হাজিদের পর্যায়ক্রমে চারটি কাজ সম্পন্ন করতে হয়। প্রথমে মিনাকে ডানদিকে রেখে হাজিরা দাঁড়িয়ে শয়তানকে (জামারা) পাথর নিক্ষেপ করবেন। দ্বিতীয় কাজ আল্লাহর উদ্দেশে পশু কোরবানি করা। অনেকেই মিনায় না পারলে মক্কায় ফিরে গিয়ে পশু কোরবানি দেন। তৃতীয় পর্বে মাথা ন্যাড়া করা। চতুর্থ কাজ তাওয়াফে জিয়ারত। হাজিরা মক্কায় ফিরে কাবা শরিফ ‘তাওয়াফ’ ও ‘সাঈ’ (কাবার চারদিকে সাতবার ঘোরা ও সাফা-মারওয়া পাহাড়ে সাতবার দৌড়ানো) করে আবার মিনায় ফিরে যাবেন।জিলহজের ১১ তারিখ শনিবার মিনায় রাতযাপন করে দুপুরের পর থেকে সূর্যাস্তের আগপর্যন্ত হাজিরা বড়, মধ্যম ও ছোট শয়তানের ওপর সাতটি করে পাথর নিক্ষেপ করবেন। আর এ কাজটি করা সুন্নত।পরদিন ১২ জিলহজ রোববার মিনায় অবস্থান করে পুনরায় একইভাবে হাজিরা তিনটি শয়তানের ওপর পাথর নিক্ষেপ করবেন। শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করা শেষ হলে অনেকে সূর্যাস্তের আগেই মিনা ছেড়ে মক্কায় চলে যান। আর মক্কায় পৌঁছার পর কাবা শরিফে স্থানীয়রা ছাড়া হাজিরা বিদায়ী তাওয়াফ, অর্থাৎ কাবা শরিফে পুনরায় সাতবার চক্কর দেওয়ার মাধ্যমে হাজিরা সম্পন্ন করবেন পবিত্র হজ পালন।

ঢাকা,বৃহস্পতিবার,৩১ আগষ্ট, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» শত কোটি টাকার মালিক স্বাস্থ্যের ডিজির ড্রাইভার আব্দুল মালেক গ্রেপ্তার

» নতুন করে আরও ১৫৪৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত,মৃত্যু ২৬ জন

» মির্জা ফখরুলসহ অন্যান্য নেতাদের বক্তব্যে খালেদা জিয়াকে ফের কারাগারে পাঠানোর জন্য দাবি উঠতে পারে

» বিএনপির আন্দোলনের হাক-ডাক আর তর্জন গর্জনই শুধু শোনা যায়, কিন্তু বর্ষণ দেখা যায় না

» বেগম খালেদা জিয়ার নাশকতার তিন ও মানহানির এক মামলায় কার্যক্রমের স্থগিতাদেশ বহাল

» আবরার হত্যা: বাদি অসুস্থ থাকায় পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ৫ অক্টোবর

» রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদের অস্ত্র মামলার রায় ২৮শে সেপ্টেম্বর

» রাজধানীর ডেমরায় স্টিল মিলে লোহা গলানোর ভাট্টি বিস্ফোরণ, ৫জন দগ্ধ

» রাজধানীর বনানীর আহমেদ টাওয়ারের আগুন নিয়ন্ত্রণে

» ময়মনসিংহে মাইক্রোবাস ও পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষে বাবা ও ছেলের মৃত্যু

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com




আজ সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আজ পবিত্র হজ। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সমাবেশ

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

আজ পবিত্র হজ। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সমাবেশ। আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় লাখ লাখ হাজির কণ্ঠে উচ্চারিত হবে ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইক লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়াননি মাতা লাকা ওয়ালমুল লা শারিকালাক’। আজ মিনায় ফজরের নামাজ আদায়ের পরপরই আরাফাতের উদ্দেশ্যে রওনা হন হাজিরা।বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করে খুৎবা শোনা, দোয়া ও ক্ষমা প্রার্থনায় ব্যস্ত থাকবেন মুসল্লিরা। এরপর মুজদালিফা পৌঁছে মাগরিব ও এশার নামাজ এক সঙ্গে আদায় করবেন তারা। আরাফাতের ময়দানের পাশে অবস্থিত জাবালে রহমত পাহাড়।হজের দ্বিতীয় দিন ১০ জিলহজ শুক্রবার মিনায় পৌঁছার পর হাজিদের পর্যায়ক্রমে চারটি কাজ সম্পন্ন করতে হয়। প্রথমে মিনাকে ডানদিকে রেখে হাজিরা দাঁড়িয়ে শয়তানকে (জামারা) পাথর নিক্ষেপ করবেন। দ্বিতীয় কাজ আল্লাহর উদ্দেশে পশু কোরবানি করা। অনেকেই মিনায় না পারলে মক্কায় ফিরে গিয়ে পশু কোরবানি দেন। তৃতীয় পর্বে মাথা ন্যাড়া করা। চতুর্থ কাজ তাওয়াফে জিয়ারত। হাজিরা মক্কায় ফিরে কাবা শরিফ ‘তাওয়াফ’ ও ‘সাঈ’ (কাবার চারদিকে সাতবার ঘোরা ও সাফা-মারওয়া পাহাড়ে সাতবার দৌড়ানো) করে আবার মিনায় ফিরে যাবেন।জিলহজের ১১ তারিখ শনিবার মিনায় রাতযাপন করে দুপুরের পর থেকে সূর্যাস্তের আগপর্যন্ত হাজিরা বড়, মধ্যম ও ছোট শয়তানের ওপর সাতটি করে পাথর নিক্ষেপ করবেন। আর এ কাজটি করা সুন্নত।পরদিন ১২ জিলহজ রোববার মিনায় অবস্থান করে পুনরায় একইভাবে হাজিরা তিনটি শয়তানের ওপর পাথর নিক্ষেপ করবেন। শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করা শেষ হলে অনেকে সূর্যাস্তের আগেই মিনা ছেড়ে মক্কায় চলে যান। আর মক্কায় পৌঁছার পর কাবা শরিফে স্থানীয়রা ছাড়া হাজিরা বিদায়ী তাওয়াফ, অর্থাৎ কাবা শরিফে পুনরায় সাতবার চক্কর দেওয়ার মাধ্যমে হাজিরা সম্পন্ন করবেন পবিত্র হজ পালন।

ঢাকা,বৃহস্পতিবার,৩১ আগষ্ট, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

Translate »