কুড়ানো মাছের বৈকালিন হাট কুয়াকাটায়

মহাসড়কের মহিপুর শেখ রাসেল সেতুর নিচে কুড়ানো মাছের বৈকালিন হাট বসেছে। সাগর থেকে মৎস্য আড়ৎ ঘাটে মাছ বোঝাই করে ট্রলার আসলেই ছোট ছোট শিশু সন্তানদেন অর্ধশত অভাবী মায়েদের মাছ কুড়ানো জন্য হুরাহুরি পরে যায়।

উপজেলার মৎস্যবন্দর আলীপুর ও মহিপুরের আড়ৎ ঘাটে এ অবস্থা চলে প্রতিদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত। কুড়ানো ওই মাছ প্রতিদিন শেখ রাসেল সেতুর নিচে বৈকালিন বাজারে বিক্রি করছে। ক্রেতারাও অপেক্ষায় থাকেন কখন ওই বাজারে মাছ আসবে। অনেকটা সস্তায় পায় বলে স্বল্প আয়ের মানুষরা এ মাছ ক্রয় করতে বৈকালিন এ মাছের ভীড় জমায়।স্বামীহারা আয়শা বেগম ছোট একটি সন্তান কোলে নিয়ে অসহায়ের মত সাগর থেকে মাছ বোঝায় করে ট্রলার আসার পরপরই আড়ৎ ঘাটে গিয়ে জেলেদের কাছে মাছ ভিক্ষা চায়। এসময় জেলেদের কাছে কাকুতি করে
বলেন,“বাবারে ভাইরে একটা মাছ দ্যান। স্বামী গ্যাঙ্গে মাছ ধরতে গিয়া মারা গেছে। পোলাপাইন লইয়্যা কি খামু”। কথা হয় কুড়ানো মাছে জীবন জীবিকায় যুক্ত মনোয়ারা, খাদিজা ও মমতাজের সাথে। তারা প্রত্যেকে বলেন, সাগরে মাছ ধরতে গিয়া স্বামী মারা গেছে। সংসার চলে ভিক্ষায় পাওয়া মাছ বিক্রি করে।
মধ্যম বয়সী সাজেদা জানায়, স্বামী সাগরে মাছ ধরতে গিয়া তিন বছর আগে মারা গেছে। ছেলে মামুন ও প্রত্যেক দিন মাছ কুড়ায়। ওই মাছ বিক্রি করে দেড়-দ্ধুসঢ়;ই’শ টাকায় চাল ডাল কিনে বাড়ি ফিরে। এ আয় দিয়ে দুই সন্তানের লেখপাড়া ছাড়াও সাত জনের সংসার চালায়।

উপজেলা ট্রলার মাঝি সমবায় সমিতির সভাপতি জেলে নুরু মাঝি বলেন, ওরা আমাদেরই সন্তান। ওইসব মা ও শিশুদের কেউ না কেউ সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ বা মারা গেছে। সহায়তা করার জন্য সকল জেলেদের অনুরোধ তিনি জানান। উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো.কামরুল ইসলাম জানান, সাগরে নিখোঁজ ও নিহত জেলেদের পরিবারকে সরকার সহায়তা করে থাকে। ইতোমধ্যে এ উপজেলার পাঁচ জেলে পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে চেক প্রদান করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী,শুক্রবার, ২০ জানুয়ারি, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» রাজনৈতিক কারণে ব্যারিস্টার মইনুলকে ধরা হয়নি।সুনির্দিষ্ট মামলার প্রেক্ষিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে

» ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মালিকানাধীন ফার্মাসিউটিক্যালস ও গণস্বাস্থ্য হাসপাতালকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

» ওষুধের এক্সপায়ার ডেট ২০১৩, বিক্রি হচ্ছে ২০১৮ সালেও দুই ফার্মেসিকে এক লাখ টাকা জরিমানা

» দুর্নীতিবাজ ও যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতির মাঠে পুনর্বাসনের জন্যই ড. কামাল হোসেন বিএনপির সঙ্গে ঐক্য গড়েছেন

» ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের ফোনালাপের ফাঁস করা অডিও ক্লিপ আমরা বিশ্বাস করি না

» মোবাইলের আইএমইআই পরিবর্তন করে হত্যা, মুক্তিপণ,অপহরণ অপরাধের সাথে জড়িত চক্রের সদস্য ১৫ আটক

» ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

» আওয়ামী লীগের যৌথসভার পর নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার বিষয়ে সিদ্ধান্ত

» খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি চেয়ে করা আবেদনের ওপর দুদক এবং রাষ্ট্রপক্ষের শুনানি শেষ আদেশ বুধবার

» যশোরের নওয়াপাড়ায় ট্রাকের সঙ্গে ট্রেনের সংঘর্ষ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

কুড়ানো মাছের বৈকালিন হাট কুয়াকাটায়

মহাসড়কের মহিপুর শেখ রাসেল সেতুর নিচে কুড়ানো মাছের বৈকালিন হাট বসেছে। সাগর থেকে মৎস্য আড়ৎ ঘাটে মাছ বোঝাই করে ট্রলার আসলেই ছোট ছোট শিশু সন্তানদেন অর্ধশত অভাবী মায়েদের মাছ কুড়ানো জন্য হুরাহুরি পরে যায়।

উপজেলার মৎস্যবন্দর আলীপুর ও মহিপুরের আড়ৎ ঘাটে এ অবস্থা চলে প্রতিদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত। কুড়ানো ওই মাছ প্রতিদিন শেখ রাসেল সেতুর নিচে বৈকালিন বাজারে বিক্রি করছে। ক্রেতারাও অপেক্ষায় থাকেন কখন ওই বাজারে মাছ আসবে। অনেকটা সস্তায় পায় বলে স্বল্প আয়ের মানুষরা এ মাছ ক্রয় করতে বৈকালিন এ মাছের ভীড় জমায়।স্বামীহারা আয়শা বেগম ছোট একটি সন্তান কোলে নিয়ে অসহায়ের মত সাগর থেকে মাছ বোঝায় করে ট্রলার আসার পরপরই আড়ৎ ঘাটে গিয়ে জেলেদের কাছে মাছ ভিক্ষা চায়। এসময় জেলেদের কাছে কাকুতি করে
বলেন,“বাবারে ভাইরে একটা মাছ দ্যান। স্বামী গ্যাঙ্গে মাছ ধরতে গিয়া মারা গেছে। পোলাপাইন লইয়্যা কি খামু”। কথা হয় কুড়ানো মাছে জীবন জীবিকায় যুক্ত মনোয়ারা, খাদিজা ও মমতাজের সাথে। তারা প্রত্যেকে বলেন, সাগরে মাছ ধরতে গিয়া স্বামী মারা গেছে। সংসার চলে ভিক্ষায় পাওয়া মাছ বিক্রি করে।
মধ্যম বয়সী সাজেদা জানায়, স্বামী সাগরে মাছ ধরতে গিয়া তিন বছর আগে মারা গেছে। ছেলে মামুন ও প্রত্যেক দিন মাছ কুড়ায়। ওই মাছ বিক্রি করে দেড়-দ্ধুসঢ়;ই’শ টাকায় চাল ডাল কিনে বাড়ি ফিরে। এ আয় দিয়ে দুই সন্তানের লেখপাড়া ছাড়াও সাত জনের সংসার চালায়।

উপজেলা ট্রলার মাঝি সমবায় সমিতির সভাপতি জেলে নুরু মাঝি বলেন, ওরা আমাদেরই সন্তান। ওইসব মা ও শিশুদের কেউ না কেউ সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ বা মারা গেছে। সহায়তা করার জন্য সকল জেলেদের অনুরোধ তিনি জানান। উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো.কামরুল ইসলাম জানান, সাগরে নিখোঁজ ও নিহত জেলেদের পরিবারকে সরকার সহায়তা করে থাকে। ইতোমধ্যে এ উপজেলার পাঁচ জেলে পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে চেক প্রদান করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী,শুক্রবার, ২০ জানুয়ারি, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited