নতুন বছরকে বরন করতে মুখরিত পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা

পুরাতন বছরের সুখ দুঃখ জড়ানো স্মৃতিকে পিছনে ফেলে নতুন বছরকে বরন করতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকত পর্যটকদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে। সমুদ্রের
ঢেউয়ের তরঙ্গের সাথে নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছে বিভিন্ন বয়সের হাজারো পর্যটক। প্রচন্ড তাপদাহ উপেক্ষা করে বাংলা ১৪২৫ সালের প্রথম সূর্য্যােদয় আবলোকন করতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সমুদ্রপ্রেমী মানুষ প্রিয়জনদের নিয়ে ছুটে এসেছেন মনলোভা এই সৈকতে। বাংলা বছরকে বরন করতে কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের উপস্থিতিতে দেখা দিয়েছে আবাসন সংকট। পর্যটনমুখী ব্যবসায়ীদের মুখে ফুটে উঠেছে হাসি । তবে সৈকতে রাতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা না থাকা ও খাবার হোটেল গুলোর অতিরিক্ত দাম নিয়ে পর্যটকদের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এদিকে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ট্যুরিষ্ট পুলিশ ও নৌ-পুলিশের টহল জোরদার করেছেন বলে
প্রশাসনিক সুত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকায় এ বছর আগত দর্শনার্থীরা কুয়াকাটার সৈকতসহ জিরো পয়েন্ট, ইকোপার্ক, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী, মিস্ত্রীপাড়া, রাখাইন মহিলা মার্কেট, গঙ্গামতি এলাকার বিভিন্ন আকর্ষনীয় স্থান গুলোতে এখন উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। কুয়াকাটার অভিজাত পাঁচ তারকা আবাসিক হোটল শিকদার রিসোর্টে জমকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে পালন করা হয় বাংলা বর্ষবরন উৎসব। এছাড়া পর্যটকদের আলাদা বিনোদন দিতে ৭২ ফুট দৈর্ঘ্য একটি ইলিশের ভাস্কর্য্যরে পেটে বসে বাঙ্গালী পরিবেশে মাটির ক্রোকারিজে খাবার পরিবেশন করা হয়েছে বলে জানান ইলিশ পার্ক কর্তৃপক্ষ।

একাধিক আবাসিক হোটেল মালিক ও স্থানীয়দের সাথে আলাপ করলে তারা জানান,বাংলা নববর্ষকে বরন করতে এক সপ্তাহ আগেই হোটেল মোটেল গুলোর সিট বুকিং
হয়ে গেছে। ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক মাছুমবিল্লাহ জানান, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আমি স্ব-পরিবারে কুয়াকাটায় এসেছি। আগেভাগে রুম বুকিং না দেয়ায়
ভালমানের রুম পাইনি। এখানে খাওয়ার জন্য ভাল মানের হোটেল থাকলেও খাদ্য দ্রব্যের দাম অনেক চড়া । এখানে এসে বাংলা বছরের প্রথম সূর্য্যােদয় ও সূর্যাস্থের দৃশ্য
উপভোগ, কুয়াকাটার সৈকতসহ দর্শনীয় স্পট গুলো অসাধারন লোগেছে বলে জানান এই পরিবার।

গ্রীন ট্যুরিজমের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, বর্ষবরন উপলক্ষ্যে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা পাথওয়ে সৈকতে বাউল সঙ্গীত ও ঘুড়ি উৎসবের অয়োজন করে। এই আয়োজনে অসংখ্য পর্যটকসহ স্থানীয়রা অংশগ্রহন করেন। পাথওয়ের নির্বাহী পরিচালক মো.শাহীন বলেন, পর্যটন শিল্পকে বিকশতি করতে
খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, কুয়াকাটাসহ ঢাকায় নববর্ষকে ঘিরে নানা উৎসবের আয়োজন করেছি। ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোনের ইনচার্জ এএসপি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকার কারনে এবছর পর্যটকদের ব্যাপক সমাগম
ঘটেছে। বর্ষবরণ উৎসবকে ঘিরে পর্যটকদের নিরাপত্তায় প্রতিটি ট্যুরিস্ট পয়েন্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।
উত্তম কুমার হাওলাদার কলাপাড়া (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,শনিবার,১৪ এপ্রিল , এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» চট্টগ্রামে দুর্ঘটনার কবলে ইউএস বাংলার বিমান শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ

» খালেদার জামিন বহাল এবং আদালতের প্রতি অনাস্থার আদেশ আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর

» জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ায় পাঁচমিশালি নেতৃত্বে জনগণের আস্থা নাই

» বাউফলে চীফ হুইপের সাথে পেশাজীবীদের প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা শীর্ষক মতবিনিময় সভা

» বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ভাসাভি স্কুল কাবাডি প্রতিযোগিতা-২০১৮

» মৌসুমের সেরা খেলোয়াড় এবং কোচের পুরস্কার প্রদান করেছে ফিফা।

» ঢাবি ‘খ’ ইউনিটের প্রথম বর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ উত্তীর্ণ ১৪ শতাংশ

» আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির জনসভা

» চট্টগ্রামে ট্রাক চাপায় দু’টি সিএনজি অটোরিকশার চালকসহ ৫ জন নিহত

» রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনে তিনটি প্রস্তাব তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

নতুন বছরকে বরন করতে মুখরিত পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা

পুরাতন বছরের সুখ দুঃখ জড়ানো স্মৃতিকে পিছনে ফেলে নতুন বছরকে বরন করতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকত পর্যটকদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে। সমুদ্রের
ঢেউয়ের তরঙ্গের সাথে নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছে বিভিন্ন বয়সের হাজারো পর্যটক। প্রচন্ড তাপদাহ উপেক্ষা করে বাংলা ১৪২৫ সালের প্রথম সূর্য্যােদয় আবলোকন করতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সমুদ্রপ্রেমী মানুষ প্রিয়জনদের নিয়ে ছুটে এসেছেন মনলোভা এই সৈকতে। বাংলা বছরকে বরন করতে কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের উপস্থিতিতে দেখা দিয়েছে আবাসন সংকট। পর্যটনমুখী ব্যবসায়ীদের মুখে ফুটে উঠেছে হাসি । তবে সৈকতে রাতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা না থাকা ও খাবার হোটেল গুলোর অতিরিক্ত দাম নিয়ে পর্যটকদের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এদিকে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ট্যুরিষ্ট পুলিশ ও নৌ-পুলিশের টহল জোরদার করেছেন বলে
প্রশাসনিক সুত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকায় এ বছর আগত দর্শনার্থীরা কুয়াকাটার সৈকতসহ জিরো পয়েন্ট, ইকোপার্ক, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী, মিস্ত্রীপাড়া, রাখাইন মহিলা মার্কেট, গঙ্গামতি এলাকার বিভিন্ন আকর্ষনীয় স্থান গুলোতে এখন উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। কুয়াকাটার অভিজাত পাঁচ তারকা আবাসিক হোটল শিকদার রিসোর্টে জমকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে পালন করা হয় বাংলা বর্ষবরন উৎসব। এছাড়া পর্যটকদের আলাদা বিনোদন দিতে ৭২ ফুট দৈর্ঘ্য একটি ইলিশের ভাস্কর্য্যরে পেটে বসে বাঙ্গালী পরিবেশে মাটির ক্রোকারিজে খাবার পরিবেশন করা হয়েছে বলে জানান ইলিশ পার্ক কর্তৃপক্ষ।

একাধিক আবাসিক হোটেল মালিক ও স্থানীয়দের সাথে আলাপ করলে তারা জানান,বাংলা নববর্ষকে বরন করতে এক সপ্তাহ আগেই হোটেল মোটেল গুলোর সিট বুকিং
হয়ে গেছে। ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক মাছুমবিল্লাহ জানান, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আমি স্ব-পরিবারে কুয়াকাটায় এসেছি। আগেভাগে রুম বুকিং না দেয়ায়
ভালমানের রুম পাইনি। এখানে খাওয়ার জন্য ভাল মানের হোটেল থাকলেও খাদ্য দ্রব্যের দাম অনেক চড়া । এখানে এসে বাংলা বছরের প্রথম সূর্য্যােদয় ও সূর্যাস্থের দৃশ্য
উপভোগ, কুয়াকাটার সৈকতসহ দর্শনীয় স্পট গুলো অসাধারন লোগেছে বলে জানান এই পরিবার।

গ্রীন ট্যুরিজমের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, বর্ষবরন উপলক্ষ্যে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা পাথওয়ে সৈকতে বাউল সঙ্গীত ও ঘুড়ি উৎসবের অয়োজন করে। এই আয়োজনে অসংখ্য পর্যটকসহ স্থানীয়রা অংশগ্রহন করেন। পাথওয়ের নির্বাহী পরিচালক মো.শাহীন বলেন, পর্যটন শিল্পকে বিকশতি করতে
খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, কুয়াকাটাসহ ঢাকায় নববর্ষকে ঘিরে নানা উৎসবের আয়োজন করেছি। ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোনের ইনচার্জ এএসপি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকার কারনে এবছর পর্যটকদের ব্যাপক সমাগম
ঘটেছে। বর্ষবরণ উৎসবকে ঘিরে পর্যটকদের নিরাপত্তায় প্রতিটি ট্যুরিস্ট পয়েন্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।
উত্তম কুমার হাওলাদার কলাপাড়া (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,শনিবার,১৪ এপ্রিল , এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY Abir bbm