HbNews24.com_দৈনিক হৃদয়ে বাংলাদেশ

ডিএমপি শুধু বাংলাদেশের গর্ব নয়,পৃথিবীর ইতিহাসে লেখা থাকবে তাদের নাম-সাবের হোসেন চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা: ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন,বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ইন্টার পার্লামেন্টরি ইউনিয়ন (আইপিইউ) সম্মেলন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কঠোর ও নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিয়ে সফলভাবে সমাপ্ত করতে সহযোগিতা করেছিল। যার ফলে সম্মেলন শেষ হবার পর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংসদ সদস্যরা ডিএমপি’র নিরাপত্তা নিয়ে প্রশংসার সাথে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছে। ডিএমপি শুধু ঢাকা ও বাংলাদেশের গর্ব নয়, পৃথিবীর ইতিহাসে লেখা থাকবে তাদের নাম। আজ শনিবার (২১ এপ্রিল ২০১৮)সকাল ৯ টায় সবুজবাগ থানার নতুন বহুতল ভবন নির্মাণে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডিএমপিকে নিয়ে এ কথা বলেন ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী ।
আইপিইউ সম্মেলনের নিরাপত্তা নিয়ে সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘আইপিইউ সম্মেলন বাংলাদেশের ইতিহাসে অনেক বড় একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন। আইপিইউ সভাপতি হিসেবে সম্মেলন শুরুর আগে আমাদের কাছে অনেক থ্রেট এসেছিল সম্মেলনের আয়োজন না করতে। অনেক ঝুঁকি থাকার পরও সকল থ্রেট এ্যানালাইসিসি করে ডিএমপি সম্মেলনের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেয় এবং তারা সফলও হয়। যার ফল এখনও আমরা পাচ্ছি বিভিন্ন দেশের সংসদ সদস্যদের ফোন কলের মাধ্যমে।’পুলিশের সেবায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করে ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন বলেন, আগে যেভাবে পুলিশ কাজ করত, এখনকার পুলিশ অনেক ভিন্ন। বর্তমান পুলিশ কমিশনার অত্যন্ত ডাইনামিক একজন ব্যক্তি। পুলিশ ও
জনগণের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরির কাজ করেছেন তিনি। বাংলাদেশের জনগণের তুলনায় পুলিশ অনেক কম। পরিসংখ্যান মতে সারাদেশে ১৪০০ নাগরিকের জন্য একজন পুলিশ। আর ঢাকায় এক হাজার নাগরিকের জন্য রয়েছে মাত্র একজন পুলিশ। যা অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক কম। পুলিশ জীবন বাজি রেখে দেশের জন্য কাজ করছে। তাদের কাজ করার জন্য ছিল না ভালো পরিবেশ বা থানা। ঢাকা-৯ আসনের মুগদা, সবুজবাগ, খিলগাঁও থানাসহ রামপুরা ও শাহজাহানপুর থানার জন্য নিজস্ব জায়গার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। এতে করে সেবার মান আরো বৃদ্ধি পাবে।’ ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের আরো বলেন, ‘পুলিশের কাজ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে হয়রানি করা নয়। তাদের কাজ জননিরাপত্তা বিধান করা, জনগণের সেবা নিশ্চিত করে প্রত্যাশা পূরণ করা। তেমনি করছে পুলিশ সদস্যরা। আইনের উর্ধ্বে যেমন কেউ নয়, তেমনি নিম্মেও কেউ নয়। আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে যদি কেউ মাদক, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসসহ কোন অনৈতিক কাজ করে, তাহলে পুলিশকে বলবো তাকে আগে গ্রেফতার করুন। পুলিশের কাছে আমাদের কোন রাজনৈতিক চাহিদা নেই। শুধু বলবো আইন শৃংখলা পরিস্থিত ভালো রাখতে হবে। পুলিশ একা নয়, আমরা নাগরিক হিসেবে তাদের পাশে আছি।’ সবুজবাগ থানার বহুতল ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক সমাবেশে
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, পুলিশে যারা আছেন, তাদের মধ্যে সবার আগে থানা পুলিশকে ভাল হতে হবে। নিরপরাধ কাউকে মিথ্যা মামলা বা মাদক দিয়ে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে অপরাধী বানানোর চেষ্টা করলে তাদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না। আর মাদকের সঙ্গে কোনো
পুলিশ সদস্যের জড়িত থাকার প্রমাণ পেলে তার বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সমাবেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলতি বছর দেশে যে কোনো ধরনের অরাজকতা করার চেষ্টা করলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে বলেও মন্তব্য করেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার। ডিএমপি কমিশনার বলেন, ২০১৮ সাল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ বছর জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পূর্বের মতো দেশে অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করা হলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে। ২০১৩ ও ১৪ সালে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী যে বোমা ও আগুন সন্ত্রাস চালানো হয়েছিল, সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি কোনোভাবেই ঘটতে দেয়া হবে না।
রাজধানীতে ছিনতাই, চাঁদাবাজীর মতো অপরাধ কমে গেছে দাবি করে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, পুলিশের তৎপরতায় বর্তমানে মহানগরীতে ছিনতাই নেই, অজ্ঞান পার্টির তৎপরতা নেই, চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য নেই। কেউ চাঁদাবাজী করলে, সে যেই হোক তাকে স্পষ্টভাবে দমন করা হবে।
পুলিশে কোনো চাঁদাবাজী হবে না জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, এখন প্রতিটি থানায় পর্যাপ্ত গাড়ি দেয়া হচ্ছে। আগে প্রয়োজনে অন্য জায়গা থেকে গাড়ি ভাড়া নিতে হতো। আর সেই ভাড়ার টাকা পরিশোধ করতে চাঁদা তুলতে হতো। এখন গাড়ি আমরা দেই, তেলও আমরা দেই। সুতরাং কোনো চাঁদাবাজি হবে না।
রাজধানীর ৮০ লাখ নাগরিকের তথ্য ইতোমধ্যে ডাটাবেজে সংরক্ষিত রয়েছে উল্লেখ করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, প্রতিটি নাগরিককে আলাদা আলাদা ইউনিক নম্বর দেয়া হয়েছে। কেউ বাসা পরিবর্তন করলে তাকে সহজেই চিহ্নিত করা সম্ভব হবে। সুতরাং অপরাধ করলে কেউ পার পাবে না। ভাড়াটিয়া তথ্যের কারণের রাজধানীর বাড়িওয়ালারা এখন অনেক সচেতন জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন,
জঙ্গি আস্তানাগুলো এখন ঢাকার বাইরে চিহ্নিত হয়, কারণ ঢাকায় বাড়ির মালিকরা এখন অনেক সচেতন। যেকোন অপরাধ সংগঠিত হলে এখন ন্যূনতম সময়ের মধ্যে আমরা ডিটেক্ট করতে সক্ষম হই। ঢাকা-৯ আসনের সাংসদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন,‘ মাননীয় সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সবুজবাগ থানার জন্য ৫০ শতক জায়গা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। সবুজবাগ থানা ছাড়াও তিনি রামপুরা, মুগদা, শাহজাহানপুর ও খিলগাঁও থানার জন্য নিজস্ব জায়গা পাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। এজন্য আমরা তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। নিজস্ব থানা ভবনের মাধ্যমে নাগরিক সেবার মান বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে ফোর্সের আবাসন সমস্যাও সমাধান হবে। থানায় যেয়ে যাতে মানুষ ভালো ভাবে কথা বলতে পারে এবং কর্তব্যরত অফিসার তাঁর কথা শুনে আইনানুগ সহযোগিতা করতে পারে সে ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি।’
ডিএমপি’র মতিঝিল বিভাগের সবুজবাগ থানার পাশে ৫০ শতক নিজস্ব জায়গায় ৮ তলা বিশিষ্ট আধুনিক সকল সুবিধা সম্বলিত থানা কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। এর ফলে সবুজবাগ থানা এলাকায় পুলিশি সেবার মান অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ডিএমপি’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ। সবুজবাগ থানার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত সুধী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন পিপিএম (বার)।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,শনিবার,২১ এপ্রিল , এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» গোলাম সারওয়ারের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জড়ো হয়েছেন বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

» বরিশালে দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের জানাজা সম্পন্ন

» আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধসহ সকল শহীদদের জানাই শ্রদ্ধা

» কলাপাড়ায় স্কুল ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

» খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করা হবে

» বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতির শুধু একটি নাম নয় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি

» বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন করে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের শ্রদ্ধাঞ্জলি

» জাতীয় শোক দিবসের শপথ হচ্ছে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সাম্প্রদায়িত অপশক্তিকে প্রতিহত করা

» রাজশাহীর নওদাপাড়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস রাস্তার পার্শ্ববর্তী দোকানে ৩ জন নিহত

» ইতালির জেনোয়াতে একটি সেতুর কিছু অংশ ধসে পড়ায় অন্তত ২৬ জন নিহত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

ডিএমপি শুধু বাংলাদেশের গর্ব নয়,পৃথিবীর ইতিহাসে লেখা থাকবে তাদের নাম-সাবের হোসেন চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা: ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন,বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ইন্টার পার্লামেন্টরি ইউনিয়ন (আইপিইউ) সম্মেলন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কঠোর ও নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিয়ে সফলভাবে সমাপ্ত করতে সহযোগিতা করেছিল। যার ফলে সম্মেলন শেষ হবার পর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংসদ সদস্যরা ডিএমপি’র নিরাপত্তা নিয়ে প্রশংসার সাথে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছে। ডিএমপি শুধু ঢাকা ও বাংলাদেশের গর্ব নয়, পৃথিবীর ইতিহাসে লেখা থাকবে তাদের নাম। আজ শনিবার (২১ এপ্রিল ২০১৮)সকাল ৯ টায় সবুজবাগ থানার নতুন বহুতল ভবন নির্মাণে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডিএমপিকে নিয়ে এ কথা বলেন ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী ।
আইপিইউ সম্মেলনের নিরাপত্তা নিয়ে সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘আইপিইউ সম্মেলন বাংলাদেশের ইতিহাসে অনেক বড় একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন। আইপিইউ সভাপতি হিসেবে সম্মেলন শুরুর আগে আমাদের কাছে অনেক থ্রেট এসেছিল সম্মেলনের আয়োজন না করতে। অনেক ঝুঁকি থাকার পরও সকল থ্রেট এ্যানালাইসিসি করে ডিএমপি সম্মেলনের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেয় এবং তারা সফলও হয়। যার ফল এখনও আমরা পাচ্ছি বিভিন্ন দেশের সংসদ সদস্যদের ফোন কলের মাধ্যমে।’পুলিশের সেবায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করে ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন বলেন, আগে যেভাবে পুলিশ কাজ করত, এখনকার পুলিশ অনেক ভিন্ন। বর্তমান পুলিশ কমিশনার অত্যন্ত ডাইনামিক একজন ব্যক্তি। পুলিশ ও
জনগণের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরির কাজ করেছেন তিনি। বাংলাদেশের জনগণের তুলনায় পুলিশ অনেক কম। পরিসংখ্যান মতে সারাদেশে ১৪০০ নাগরিকের জন্য একজন পুলিশ। আর ঢাকায় এক হাজার নাগরিকের জন্য রয়েছে মাত্র একজন পুলিশ। যা অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক কম। পুলিশ জীবন বাজি রেখে দেশের জন্য কাজ করছে। তাদের কাজ করার জন্য ছিল না ভালো পরিবেশ বা থানা। ঢাকা-৯ আসনের মুগদা, সবুজবাগ, খিলগাঁও থানাসহ রামপুরা ও শাহজাহানপুর থানার জন্য নিজস্ব জায়গার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। এতে করে সেবার মান আরো বৃদ্ধি পাবে।’ ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের আরো বলেন, ‘পুলিশের কাজ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে হয়রানি করা নয়। তাদের কাজ জননিরাপত্তা বিধান করা, জনগণের সেবা নিশ্চিত করে প্রত্যাশা পূরণ করা। তেমনি করছে পুলিশ সদস্যরা। আইনের উর্ধ্বে যেমন কেউ নয়, তেমনি নিম্মেও কেউ নয়। আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে যদি কেউ মাদক, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসসহ কোন অনৈতিক কাজ করে, তাহলে পুলিশকে বলবো তাকে আগে গ্রেফতার করুন। পুলিশের কাছে আমাদের কোন রাজনৈতিক চাহিদা নেই। শুধু বলবো আইন শৃংখলা পরিস্থিত ভালো রাখতে হবে। পুলিশ একা নয়, আমরা নাগরিক হিসেবে তাদের পাশে আছি।’ সবুজবাগ থানার বহুতল ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক সমাবেশে
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, পুলিশে যারা আছেন, তাদের মধ্যে সবার আগে থানা পুলিশকে ভাল হতে হবে। নিরপরাধ কাউকে মিথ্যা মামলা বা মাদক দিয়ে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে অপরাধী বানানোর চেষ্টা করলে তাদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না। আর মাদকের সঙ্গে কোনো
পুলিশ সদস্যের জড়িত থাকার প্রমাণ পেলে তার বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সমাবেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলতি বছর দেশে যে কোনো ধরনের অরাজকতা করার চেষ্টা করলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে বলেও মন্তব্য করেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার। ডিএমপি কমিশনার বলেন, ২০১৮ সাল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ বছর জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পূর্বের মতো দেশে অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করা হলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে। ২০১৩ ও ১৪ সালে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী যে বোমা ও আগুন সন্ত্রাস চালানো হয়েছিল, সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি কোনোভাবেই ঘটতে দেয়া হবে না।
রাজধানীতে ছিনতাই, চাঁদাবাজীর মতো অপরাধ কমে গেছে দাবি করে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, পুলিশের তৎপরতায় বর্তমানে মহানগরীতে ছিনতাই নেই, অজ্ঞান পার্টির তৎপরতা নেই, চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য নেই। কেউ চাঁদাবাজী করলে, সে যেই হোক তাকে স্পষ্টভাবে দমন করা হবে।
পুলিশে কোনো চাঁদাবাজী হবে না জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, এখন প্রতিটি থানায় পর্যাপ্ত গাড়ি দেয়া হচ্ছে। আগে প্রয়োজনে অন্য জায়গা থেকে গাড়ি ভাড়া নিতে হতো। আর সেই ভাড়ার টাকা পরিশোধ করতে চাঁদা তুলতে হতো। এখন গাড়ি আমরা দেই, তেলও আমরা দেই। সুতরাং কোনো চাঁদাবাজি হবে না।
রাজধানীর ৮০ লাখ নাগরিকের তথ্য ইতোমধ্যে ডাটাবেজে সংরক্ষিত রয়েছে উল্লেখ করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, প্রতিটি নাগরিককে আলাদা আলাদা ইউনিক নম্বর দেয়া হয়েছে। কেউ বাসা পরিবর্তন করলে তাকে সহজেই চিহ্নিত করা সম্ভব হবে। সুতরাং অপরাধ করলে কেউ পার পাবে না। ভাড়াটিয়া তথ্যের কারণের রাজধানীর বাড়িওয়ালারা এখন অনেক সচেতন জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন,
জঙ্গি আস্তানাগুলো এখন ঢাকার বাইরে চিহ্নিত হয়, কারণ ঢাকায় বাড়ির মালিকরা এখন অনেক সচেতন। যেকোন অপরাধ সংগঠিত হলে এখন ন্যূনতম সময়ের মধ্যে আমরা ডিটেক্ট করতে সক্ষম হই। ঢাকা-৯ আসনের সাংসদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন,‘ মাননীয় সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সবুজবাগ থানার জন্য ৫০ শতক জায়গা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। সবুজবাগ থানা ছাড়াও তিনি রামপুরা, মুগদা, শাহজাহানপুর ও খিলগাঁও থানার জন্য নিজস্ব জায়গা পাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। এজন্য আমরা তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। নিজস্ব থানা ভবনের মাধ্যমে নাগরিক সেবার মান বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে ফোর্সের আবাসন সমস্যাও সমাধান হবে। থানায় যেয়ে যাতে মানুষ ভালো ভাবে কথা বলতে পারে এবং কর্তব্যরত অফিসার তাঁর কথা শুনে আইনানুগ সহযোগিতা করতে পারে সে ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি।’
ডিএমপি’র মতিঝিল বিভাগের সবুজবাগ থানার পাশে ৫০ শতক নিজস্ব জায়গায় ৮ তলা বিশিষ্ট আধুনিক সকল সুবিধা সম্বলিত থানা কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। এর ফলে সবুজবাগ থানা এলাকায় পুলিশি সেবার মান অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ডিএমপি’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ। সবুজবাগ থানার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত সুধী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন পিপিএম (বার)।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,শনিবার,২১ এপ্রিল , এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY Abir bbm