ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে সাংবাদিকদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে সাংবাদিকদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, সাইবার ক্রাইম নীতিমালা করছি ক্রাইম রোধ করার জন্য। আমি সাংবাদিকদের বলতে চাই, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সরকার তাদের অসুবিধা হয় এমন কিছু করবে না। বৃহস্পতিবার (১৭ মে) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) প্রতিনিধি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সাংবাদিকদের কল্যাণে সরকার সাধ্যমতো কাজ করছে। আমরা ১২ হাজারের বেশি সাংবাদিককে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। বিভিন্ন ভাষা শেখা সাংবাদিকদের দায়িত্ব। এজন্য কয়েকটি অ্যাপস চালু করা হয়েছে।
বর্তমান সরকারের আমলে গত সাত বছরে সাতহাজারেও বেশি সংবাদপত্র নিবন্ধন পেয়েছে বলে জানান তিনি।
এছাড়া অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা হওয়া উচিত বলেও মনে করেন প্রধানমন্ত্রী।শুধু সমালোচনা না করে সরকারের উন্নয়নমূলক কাজগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি এ সময় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, যে দল মাগুরার মতো নির্বাচন উপহার দিয়েছে, তাদের মুখে সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা মানায় না।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি যদি একই জায়গায় সাংবাদিকদের জন্য একটি প্রত্যাবাসনের ব্যবস্থা করতে পারতাম তাহলে ভালো হত। এছাড়া এর বাইরে আমরা কিছু ফ্ল্যাট তৈরি করে দিচ্ছি। যার জন্য প্রাথমিক একটি টাকা দিতে হবে। মাসে মাসে এই ফ্ল্যাটের টাকা প্রদান করতে পারবেন।’
তিনি আরো বলেন, ‘এখনকার দিনে ইলেকট্রনিক মিডিয়া এগিয়ে আছে। সেদিকে লক্ষ্য রেখে সবকিছু একটি আইন মোতাবেক চলুক সেটি আমরা চাই। আমরা তথ্য অধিকার আইন প্রণয়ন করি, যার মাধ্যমে গণমাধ্যমে স্বাধীনতা নিশ্চিত হয়। এছাড়া আমাদের টেলিভিশনের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাও হচ্ছে।’প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদ্মাসেতুতে দুর্নীতি হয়েছে- এ নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছে, কিন্তু দুর্নীতি কী প্রমাণ করতে পেরেছে? বিশ্ব ব্যাংক প্রমাণ করতে পারেনি। কানাডার ফেডারেল কোর্ট বলে দিয়েছে এসব বানোয়াট ছিল। নিজেদের টাকায় পদ্মাসেতু করেছি।
‘এই একটি ঘটনাই আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। আমরা কারও কাছে হাত পেতে চলবো না। আমরা নিজেদের পায়ে দাঁড়াতে পেরেছি। বাঙালি বীরের জাতি, এ জাতি কারও কাছে হাত পেতে চলে না।’নিজেকে সাংবাদিক পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতাও সাংবাদিকতা করেছেন। যা তিনি তার আত্মজীবনীতে লিখে গেছেন। সে অর্থে আমিও আপনাদের পরিবারেরই একজন সদস্য। দাবি-দাওয়া ছাড়াই আমি সাংবাদিকদের কল্যাণে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছি।
ঢাকা,বৃহস্পতিবার,১৭ মে, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» ঐক্যফ্রন্টের ব্যাপারে বিচলিত হওয়ার বা ভয় পাওয়ার কিছু নেই-ওবায়দুল কাদের

» চট্টগ্রামের একটি সড়কের নাম প্রয়াত সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর নামে করা হবে: সময় সংবাদকে সিটি মেয়র

» নির্বাচন হবে কি হবে না জানি না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই- হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ

» মহেশখালী ও কুতুবদিয়া অঞ্চলের ছয়টি জলদস্যু বাহিনীর ৪৩ সন্ত্রাসী অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ

» চারদিনে রাষ্ট্রীয় সফর শেষে সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

» জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ নেয়া হয়েছে তার নিজ বাড়ি চট্টগ্রামে

» বহিষ্কারের ঘোষকরা বিকল্পধারার কেউ নন বলে জানান মাহী বি চৌধুরী

» ভারতে রেল লাইনে দাঁড়িয়ে রাবণবধ অনুষ্ঠান দেখার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে ৫০ জন নিহত

» বাংলাদেশের ব্যান্ড মিউজিক জগতের পথিকৃৎ হয়ে থাকবেন আইয়ুব বাচ্চু

» দেশের মানুষ আওয়ামী-লীগকে হৃদয় দিয়ে ভালোবাসে- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে সাংবাদিকদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে সাংবাদিকদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, সাইবার ক্রাইম নীতিমালা করছি ক্রাইম রোধ করার জন্য। আমি সাংবাদিকদের বলতে চাই, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সরকার তাদের অসুবিধা হয় এমন কিছু করবে না। বৃহস্পতিবার (১৭ মে) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) প্রতিনিধি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সাংবাদিকদের কল্যাণে সরকার সাধ্যমতো কাজ করছে। আমরা ১২ হাজারের বেশি সাংবাদিককে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। বিভিন্ন ভাষা শেখা সাংবাদিকদের দায়িত্ব। এজন্য কয়েকটি অ্যাপস চালু করা হয়েছে।
বর্তমান সরকারের আমলে গত সাত বছরে সাতহাজারেও বেশি সংবাদপত্র নিবন্ধন পেয়েছে বলে জানান তিনি।
এছাড়া অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা হওয়া উচিত বলেও মনে করেন প্রধানমন্ত্রী।শুধু সমালোচনা না করে সরকারের উন্নয়নমূলক কাজগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি এ সময় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, যে দল মাগুরার মতো নির্বাচন উপহার দিয়েছে, তাদের মুখে সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা মানায় না।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি যদি একই জায়গায় সাংবাদিকদের জন্য একটি প্রত্যাবাসনের ব্যবস্থা করতে পারতাম তাহলে ভালো হত। এছাড়া এর বাইরে আমরা কিছু ফ্ল্যাট তৈরি করে দিচ্ছি। যার জন্য প্রাথমিক একটি টাকা দিতে হবে। মাসে মাসে এই ফ্ল্যাটের টাকা প্রদান করতে পারবেন।’
তিনি আরো বলেন, ‘এখনকার দিনে ইলেকট্রনিক মিডিয়া এগিয়ে আছে। সেদিকে লক্ষ্য রেখে সবকিছু একটি আইন মোতাবেক চলুক সেটি আমরা চাই। আমরা তথ্য অধিকার আইন প্রণয়ন করি, যার মাধ্যমে গণমাধ্যমে স্বাধীনতা নিশ্চিত হয়। এছাড়া আমাদের টেলিভিশনের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাও হচ্ছে।’প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদ্মাসেতুতে দুর্নীতি হয়েছে- এ নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছে, কিন্তু দুর্নীতি কী প্রমাণ করতে পেরেছে? বিশ্ব ব্যাংক প্রমাণ করতে পারেনি। কানাডার ফেডারেল কোর্ট বলে দিয়েছে এসব বানোয়াট ছিল। নিজেদের টাকায় পদ্মাসেতু করেছি।
‘এই একটি ঘটনাই আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। আমরা কারও কাছে হাত পেতে চলবো না। আমরা নিজেদের পায়ে দাঁড়াতে পেরেছি। বাঙালি বীরের জাতি, এ জাতি কারও কাছে হাত পেতে চলে না।’নিজেকে সাংবাদিক পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতাও সাংবাদিকতা করেছেন। যা তিনি তার আত্মজীবনীতে লিখে গেছেন। সে অর্থে আমিও আপনাদের পরিবারেরই একজন সদস্য। দাবি-দাওয়া ছাড়াই আমি সাংবাদিকদের কল্যাণে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছি।
ঢাকা,বৃহস্পতিবার,১৭ মে, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited