কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসছে মৃত কচ্ছপ

কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসছে মৃত কচ্ছপ 209

কুয়কাটার সৈকতে ভেসে আসছে মারা যাচ্ছে সামুদ্রিক কচ্ছপ। বিরল প্রজাতির মৃত এ কচ্ছপ গুলো এর আগে কখনো দেখেনি স্থানীয়রা। এক একটির ওজন ২০ থেকে ৩০ কেজি, আবার কোনটির ওজন আরো বেশি। জলপাই রংয়ে মৃত কচ্ছপ গুলোর পিঠের অংশে ডোরাকাটা দাগ রয়েছে। চোখ এবং মুখের অংশে কাল সেড থাকায় দূর থেকে এটি অন্য কোন প্রানী মনে করছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। সৈকতের দীর্ঘ ২২ কিলোমিটার বিস্তৃর্ণ এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে ডজন খানেক মারা কচ্ছপ দেখতে পেয়েছে স্থানীয়রা। এসব জলজ প্রাণীগুলো জলবায়ু পরিবর্তন, স্বাধীনভাবে চলাচলের প্রতিবন্ধকতা, পানি দূষণ, খাদ্য সংকট, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে উপকুলের কাছাকাছি এসে জালে আটকা পড়ে মারা পড়ছে বলে স্থানীয়রা প্রাথমিক ধারণা করছে। এ তথ্যের সত্যতা স্বীকার করে বনবিভাগ মহিপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন, মরা কচ্ছপগুলো যাতে করে দুর্গন্ধ না ছড়ায় এ জন্য ব্যবস্থা নিবে বনবিভাগ।
স্থানীয় জেলেদের ধারনা, মা কচ্ছপ গুলোর প্রজনন মৌসুম বিধায় সৈকতের বালুতে ডিম পাড়ার জন্য হয়তো আসছিল, যা জালে আটকা পড়ে মারা যাচ্ছে। অপরদিকে, কচ্ছপ বিশেষজ্ঞদের মতে জলবায়ু পরিবর্তনগত কারনে পরিবেশের ভারসাম্যহীনতার কারনে সাগরের কচ্ছপ গুলো তীরে ফিরতে শুরু করেছে। এছাড়া সাগরের দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে উপকূলে আসার সময় মাছ ধরার ট্রলারের পাখায় আঘাত পেয়ে মা কচ্ছপ মারা যেতে পারে। এছাড়া উপকূলীয় এলাকায় কিছুদিন ধরে তীব্র গরমও এর মৃত’র কারন হতেও পারে। তবে অনেকের মন্তব্য তারা বিভিন্ন প্রজাতির কচ্ছপ দেখেছেন, কিন্তু এমন প্রজাতির কচ্ছপ এই প্রথম দেখলেন। কচ্ছপ গুলো সৈকত থেকে অচিরেই না সরানো হলে পঁচে এলাকার আবহওয়া দূষিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অথবা সমুদ্রতীরে বেওয়ারিশ কুকুর মৃত এ কচ্ছপ গুলো ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন করার আশংকা রয়েছে, যা পর্যটকদের বিড়ম্বনার কারন হতে পারে বলে স্থানীয়রা মনে করছেন।
জেলেদের সংগঠন আশার আলো সমবায় সমিতির সভাপতি নিজাম শেখ জেলেদের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন, রামনাবাদ ও আন্ধারমানিক চ্যানেলের নদীর
সংযোগস্থলও সমুদ্রের মোহনায় অবাধ বিচরণ সামুদ্রিক কচ্ছপের। ডিম পাড়ার জন্য বেলাভুমিতে আসার সময় জেলেদের জালে আটকা পড়ে এগুলো মারা যেতে পারে। কুয়াকাটা সৈকতের লেম্বুরচর, ঝাউবন, গঙ্গামতিও কাউয়ারচর এলাকার একাধিক জেলের সাথে কথা বললে তারা জানায়, গত ৪-৫ দিন ধরে কুয়াকাটা সৈকতে মরা কচ্ছপ দেখতে পেয়েছে। এছাড়া চলতি বর্ষা মৌসুমসহ গত বছরে অন্তত ৫টি শুশুক, ১২ ডলফিন, ২টি তিমিসহ সেটেশান প্রজাতির বড় বড় মাছ মরে পঁচে দুর্গন্ধ ছড়িয়েছে।
জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রানী বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড.মো.কামরুজ্জামান জানান, কচ্ছপের গায়ে যেহেতু আঘাতের চিহ্ন নেই, সেহেতু দূষিত পানির কারনে এ গুলোর মৃত্যুর কারন হতে পারে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনোজ কুমার সাহা জানান, কচ্ছপের গতিপথে জেলেরা জাল ফেলানোর কারনে মৃত্যুর কারন হতে পারে। কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র আ.বারেক মোল্লা জানান, মৃত এ কচ্ছপ গুলোকে সরিয়ে মাটিতে পুঁতে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে,যাতে কোন পর্যটকদের ক্ষতির কারন না হয়।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,বুধবার,২২ মে,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments
Download WordPress Themes
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes Free
udemy paid course free download

সর্বশেষ আপডেট



» সোনাগাজীর সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে

» শ্রীলঙ্কাকে ৮৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া

» নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৮৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া

» প্রস্তাবিত বাজেট জনগণের কোনো উপকার আসবে না,বাজেট প্রত্যাখ্যান করেছেন গণফোরাম

» নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সপ্তাহের উদ্বোধন করেন ডিএমপি কমিশনার

» প্রস্তাবিত বাজেট জনমুখী ও ব্যবসা সহায়ক বলে জানিয়েছেন এফবিসিসিআই

» এবারের বাজেট যুগোপযোগী ও জনকল্যাণমূলক- ওবায়দুল কাদের

» এবারের প্রস্তাবিত বাজেট ব্যবসাবান্ধব, অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করবে : এফবিসিসিআইর সভাপতি

» ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে চিকিৎসকদের গণইস্তফা, অচল স্বাস্থ্যসেবা

» কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক মাদকবিক্রেতা নিহত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসছে মৃত কচ্ছপ

কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসছে মৃত কচ্ছপ 209

কুয়কাটার সৈকতে ভেসে আসছে মারা যাচ্ছে সামুদ্রিক কচ্ছপ। বিরল প্রজাতির মৃত এ কচ্ছপ গুলো এর আগে কখনো দেখেনি স্থানীয়রা। এক একটির ওজন ২০ থেকে ৩০ কেজি, আবার কোনটির ওজন আরো বেশি। জলপাই রংয়ে মৃত কচ্ছপ গুলোর পিঠের অংশে ডোরাকাটা দাগ রয়েছে। চোখ এবং মুখের অংশে কাল সেড থাকায় দূর থেকে এটি অন্য কোন প্রানী মনে করছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। সৈকতের দীর্ঘ ২২ কিলোমিটার বিস্তৃর্ণ এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে ডজন খানেক মারা কচ্ছপ দেখতে পেয়েছে স্থানীয়রা। এসব জলজ প্রাণীগুলো জলবায়ু পরিবর্তন, স্বাধীনভাবে চলাচলের প্রতিবন্ধকতা, পানি দূষণ, খাদ্য সংকট, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে উপকুলের কাছাকাছি এসে জালে আটকা পড়ে মারা পড়ছে বলে স্থানীয়রা প্রাথমিক ধারণা করছে। এ তথ্যের সত্যতা স্বীকার করে বনবিভাগ মহিপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন, মরা কচ্ছপগুলো যাতে করে দুর্গন্ধ না ছড়ায় এ জন্য ব্যবস্থা নিবে বনবিভাগ।
স্থানীয় জেলেদের ধারনা, মা কচ্ছপ গুলোর প্রজনন মৌসুম বিধায় সৈকতের বালুতে ডিম পাড়ার জন্য হয়তো আসছিল, যা জালে আটকা পড়ে মারা যাচ্ছে। অপরদিকে, কচ্ছপ বিশেষজ্ঞদের মতে জলবায়ু পরিবর্তনগত কারনে পরিবেশের ভারসাম্যহীনতার কারনে সাগরের কচ্ছপ গুলো তীরে ফিরতে শুরু করেছে। এছাড়া সাগরের দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে উপকূলে আসার সময় মাছ ধরার ট্রলারের পাখায় আঘাত পেয়ে মা কচ্ছপ মারা যেতে পারে। এছাড়া উপকূলীয় এলাকায় কিছুদিন ধরে তীব্র গরমও এর মৃত’র কারন হতেও পারে। তবে অনেকের মন্তব্য তারা বিভিন্ন প্রজাতির কচ্ছপ দেখেছেন, কিন্তু এমন প্রজাতির কচ্ছপ এই প্রথম দেখলেন। কচ্ছপ গুলো সৈকত থেকে অচিরেই না সরানো হলে পঁচে এলাকার আবহওয়া দূষিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অথবা সমুদ্রতীরে বেওয়ারিশ কুকুর মৃত এ কচ্ছপ গুলো ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন করার আশংকা রয়েছে, যা পর্যটকদের বিড়ম্বনার কারন হতে পারে বলে স্থানীয়রা মনে করছেন।
জেলেদের সংগঠন আশার আলো সমবায় সমিতির সভাপতি নিজাম শেখ জেলেদের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন, রামনাবাদ ও আন্ধারমানিক চ্যানেলের নদীর
সংযোগস্থলও সমুদ্রের মোহনায় অবাধ বিচরণ সামুদ্রিক কচ্ছপের। ডিম পাড়ার জন্য বেলাভুমিতে আসার সময় জেলেদের জালে আটকা পড়ে এগুলো মারা যেতে পারে। কুয়াকাটা সৈকতের লেম্বুরচর, ঝাউবন, গঙ্গামতিও কাউয়ারচর এলাকার একাধিক জেলের সাথে কথা বললে তারা জানায়, গত ৪-৫ দিন ধরে কুয়াকাটা সৈকতে মরা কচ্ছপ দেখতে পেয়েছে। এছাড়া চলতি বর্ষা মৌসুমসহ গত বছরে অন্তত ৫টি শুশুক, ১২ ডলফিন, ২টি তিমিসহ সেটেশান প্রজাতির বড় বড় মাছ মরে পঁচে দুর্গন্ধ ছড়িয়েছে।
জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রানী বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড.মো.কামরুজ্জামান জানান, কচ্ছপের গায়ে যেহেতু আঘাতের চিহ্ন নেই, সেহেতু দূষিত পানির কারনে এ গুলোর মৃত্যুর কারন হতে পারে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনোজ কুমার সাহা জানান, কচ্ছপের গতিপথে জেলেরা জাল ফেলানোর কারনে মৃত্যুর কারন হতে পারে। কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র আ.বারেক মোল্লা জানান, মৃত এ কচ্ছপ গুলোকে সরিয়ে মাটিতে পুঁতে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে,যাতে কোন পর্যটকদের ক্ষতির কারন না হয়।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,বুধবার,২২ মে,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited