২০ ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের পর ভিডিও ধারণ,অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে শিক্ষক আটক

Spread the love

নারায়ণগঞ্জে ফাঁদে ফেলে ২০ ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের পর ভিডিও ধারণ করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষককে গণপিটুনি দিয়ে র‌্যাবের হাতের তুলে দেন এলাকাবাসী। মদদ দেয়ার অভিযোগে আটক হয়েছেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষকও।র‌্যাব জানায়, দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রীদের সঙ্গে বিভিন্নভাবে প্রতারণা করে আসছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ অক্সফোর্ড হাইস্কুলের শিক্ষক আশরাফুল আরিফ। নানা কৌশলে তাদেরকে ফাঁদে পেলে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলতেন তিনি।
এমনকি সেই ভিডিওচিত্র ধারণের পর মোটা অংকের অর্থ আদায় করতেন তিনি। এমন অভিযোগে সকালে স্কুলে গিয়ে ওই শিক্ষককে আটকের পর মোবাইল ফোন যাচাই করেন এলাকাবাসী। এক পর্যায়ে তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আশরাফুলকে আটক করে র‌্যাব। এসময় মোবাইল ফোন ও ল্যাপটপসহ বিভিন্ন ডিভাইস জব্দ করা হয়।তাকে সহযোগিতা করার অভিযোগে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকারকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকায় ওই স্কুলে অভিযান চালায় র‍্যাব ও পুলিশ। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। খবর ছড়িয়ে পড়লে শত শত অভিভাবক ও এলাকাবাসী ছুটে গিয়ে স্কুল ঘেরাও করে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে তারা।ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে সিদ্ধিরগঞ্জের কান্দাপাড়ার মিজমিজি এলাকায় অবস্থিত বেসরকারি ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।র‍্যাবের দেওয়া তথ্য মতে, স্কুলের গণিত বিষয়ের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম সরকার ওরফে আশরাফুল কোমলমতি শিশুদের যৌন নিপীড়ন করে তা আবার মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখেন। দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে তিনি এমন কাণ্ড ঘটিয়ে আসছিলেন। একবার দুইবার বা পাঁচ-দশবারেই শেষ নয়। যে শিশুটি পঞ্চম শ্রেণি শেষ করে অন্য স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয়ে আজ নবম শ্রেণিতে পড়ছে সেই মেয়েটিও পাষণ্ড ওই শিক্ষকের লালসা থেকে বের হতে পারছে না। তাকে ভয় দেখানো হচ্ছে ভিডিও ফাঁস করে দেওয়ার। এভাবে ২০টিরও বেশি শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ বা যৌন নিপীড়ন অব্যাহত রেখেছে। স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিষয়টি দেখেও যেন না দেখার ভান করতেন।
র‍্যাব ১১-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলেপ উদ্দিন বলেন, ‘আজ বৃহস্পতিবার সকালে আমরা খবর পাই যে সিদ্ধিরগঞ্জের অক্সফোর্ড স্কুলের একজন শিক্ষক কিছু ছাত্রীকে যৌন হেনস্তা করেছেন। তার মোবাইল ফোন নিয়ে সার্চ করে আমরা হতবাক হয়ে যাই। ২০ জনেরও বেশি ছাত্রীর ভিডিও তার মোবাইল ও ল্যাপটপে রয়েছে। কোচিংয়ের নামে নিজের ফ্ল্যাটে নিয়ে এসব করে ভিডিও ছবি ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল করতেন। এরপর যৌন নিপীড়নের ভিডিও ও স্থিরচিত্র তা মোবাইল ও ল্যাপটপে সংরক্ষণ করে রাখতেন। আমরা প্রধান শিক্ষককেও গ্রেপ্তার করেছি। কারণ তিনি এ বিষয়টি জানা সত্ত্বেও কোনো ব্যবস্থা নেননি বলে প্রমাণ মিলেছে।’
র‍্যাব কর্মকর্তা জানান, সহকারী শিক্ষক আরিফুল পাঁচ বছর ধরে অপকর্ম করে আসছেন তা জানতেন প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকার। এজন্য তাঁকেও গ্রেপ্তার করা হয়।
নারায়ণগঞ্জ,বৃহস্পতিবার,২৭ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
Download Best WordPress Themes Free Download
free online course

সর্বশেষ আপডেট



» দেশের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকাসহ সব স্পর্শকাতর জায়গা থেকে মোবাইল টাওয়ার সরানোর পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

» রাজধানীর গাবতলী এলাকা থেকে নব্য জেএমবির তিন সদস্যকে গ্রেফতার

» টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস খাদে অন্তত ২৫ জন আহত

» যমুনা ফিউচার পার্কে যমুনা গ্রুপের বাংলাদেশ প্রথম হাইপার হোলসেল মার্কেট উদ্বোধন করলেন গণপূর্ত মন্ত্রী

» জলে-স্থলে-অন্তরীক্ষে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের বিজয়কেতন : তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ

» দুই মামলায় ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের ১০ দিন রিমান্ড মঞ্জুর

» আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি সাদাত গ্রেফতার

» মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গাইবান্ধার পাঁচ আসামির মৃত্যুদণ্ড

» সুনামগঞ্জে শিশু তুহিন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তুহিনের মা বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা করেছেন

» খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজধানীর নয়াপল্টনে মশাল মিছিল করেছে বিএনপি

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

২০ ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের পর ভিডিও ধারণ,অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে শিক্ষক আটক

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

নারায়ণগঞ্জে ফাঁদে ফেলে ২০ ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের পর ভিডিও ধারণ করে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষককে গণপিটুনি দিয়ে র‌্যাবের হাতের তুলে দেন এলাকাবাসী। মদদ দেয়ার অভিযোগে আটক হয়েছেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষকও।র‌্যাব জানায়, দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রীদের সঙ্গে বিভিন্নভাবে প্রতারণা করে আসছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ অক্সফোর্ড হাইস্কুলের শিক্ষক আশরাফুল আরিফ। নানা কৌশলে তাদেরকে ফাঁদে পেলে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলতেন তিনি।
এমনকি সেই ভিডিওচিত্র ধারণের পর মোটা অংকের অর্থ আদায় করতেন তিনি। এমন অভিযোগে সকালে স্কুলে গিয়ে ওই শিক্ষককে আটকের পর মোবাইল ফোন যাচাই করেন এলাকাবাসী। এক পর্যায়ে তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আশরাফুলকে আটক করে র‌্যাব। এসময় মোবাইল ফোন ও ল্যাপটপসহ বিভিন্ন ডিভাইস জব্দ করা হয়।তাকে সহযোগিতা করার অভিযোগে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকারকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকায় ওই স্কুলে অভিযান চালায় র‍্যাব ও পুলিশ। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। খবর ছড়িয়ে পড়লে শত শত অভিভাবক ও এলাকাবাসী ছুটে গিয়ে স্কুল ঘেরাও করে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে তারা।ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে সিদ্ধিরগঞ্জের কান্দাপাড়ার মিজমিজি এলাকায় অবস্থিত বেসরকারি ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।র‍্যাবের দেওয়া তথ্য মতে, স্কুলের গণিত বিষয়ের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম সরকার ওরফে আশরাফুল কোমলমতি শিশুদের যৌন নিপীড়ন করে তা আবার মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখেন। দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে তিনি এমন কাণ্ড ঘটিয়ে আসছিলেন। একবার দুইবার বা পাঁচ-দশবারেই শেষ নয়। যে শিশুটি পঞ্চম শ্রেণি শেষ করে অন্য স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয়ে আজ নবম শ্রেণিতে পড়ছে সেই মেয়েটিও পাষণ্ড ওই শিক্ষকের লালসা থেকে বের হতে পারছে না। তাকে ভয় দেখানো হচ্ছে ভিডিও ফাঁস করে দেওয়ার। এভাবে ২০টিরও বেশি শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ বা যৌন নিপীড়ন অব্যাহত রেখেছে। স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিষয়টি দেখেও যেন না দেখার ভান করতেন।
র‍্যাব ১১-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলেপ উদ্দিন বলেন, ‘আজ বৃহস্পতিবার সকালে আমরা খবর পাই যে সিদ্ধিরগঞ্জের অক্সফোর্ড স্কুলের একজন শিক্ষক কিছু ছাত্রীকে যৌন হেনস্তা করেছেন। তার মোবাইল ফোন নিয়ে সার্চ করে আমরা হতবাক হয়ে যাই। ২০ জনেরও বেশি ছাত্রীর ভিডিও তার মোবাইল ও ল্যাপটপে রয়েছে। কোচিংয়ের নামে নিজের ফ্ল্যাটে নিয়ে এসব করে ভিডিও ছবি ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল করতেন। এরপর যৌন নিপীড়নের ভিডিও ও স্থিরচিত্র তা মোবাইল ও ল্যাপটপে সংরক্ষণ করে রাখতেন। আমরা প্রধান শিক্ষককেও গ্রেপ্তার করেছি। কারণ তিনি এ বিষয়টি জানা সত্ত্বেও কোনো ব্যবস্থা নেননি বলে প্রমাণ মিলেছে।’
র‍্যাব কর্মকর্তা জানান, সহকারী শিক্ষক আরিফুল পাঁচ বছর ধরে অপকর্ম করে আসছেন তা জানতেন প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জুলফিকার। এজন্য তাঁকেও গ্রেপ্তার করা হয়।
নারায়ণগঞ্জ,বৃহস্পতিবার,২৭ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com