গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই উত্তরায় উবার চালককে হত্যা

গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই রাজধানীর উত্তরায় উবার চালক আরমানকে হত্যা করা হয়। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই  উত্তরায় উবার চালককে হত্যা 136

গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই রাজধানীর উত্তরায় উবার চালক আরমানকে হত্যা করা হয়। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে ঢাকা, হবিগঞ্জ এবং শেরপুর থেকে তিনজনের গ্রেফতারের পর এ কথা জানায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। আরমান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সিজান (২৪), শরিফ (১৯) ও সজিবকে (২০) গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। রোববার (৩০ জুন) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুরো ঘটনা তুলে ধরেন ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন।পুলিশ বলছে, হত্যাকারীদের উদ্দেশ্যে ছিলো অ্যালিয়ন মডেলের একটি গাড়ি চুরি করা। আর এ লক্ষ্যে উবারে বেশ কয়েকটি রাইড অনুরোধ পাঠানোর পর আরমানের গাড়িটি পেলে তাকে টার্গেট করে তারা।
গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, ঘটনার দিন রামপুরা থেকে আরমানের গাড়িতে উঠে এই চক্রটি। উত্তরা ১৩ নম্বর সেক্টরের ১৬ নম্বর সড়কে গিয়ে রাইড শেষ হলে চালককে টাকা না দিয়ে অপেক্ষা করতে বলে তারা। বলে বাসা থেকে টাকা নিয়ে নামবে কেউ একজন। বিশ্বাস অর্জনের জন্য কানে ফোন লাগিয়ে কথা বলার ভান করতে থাকে। আসলে তারা অপেক্ষা করছিলো চালক আরমানকে খুন করার উপযুক্ত পরিবেশের জন্য। এক পর্যায়ে রাস্তা কিছুটা জনশূন্য হয়ে পড়লে সিজানের নির্দেশে শরীফ আরমানের গলায় ছুরি চালিয়ে দেয়। এই অবস্থায় আরমান গাড়ি চালিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে কিছুদূর গিয়ে আর পারে না। অচেতন হয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। সেখানেই মারা যান তিনি।পুলিশ বলছে, হত্যাকারী চক্রের প্রধান সিজান। খুলনায় তার এক বন্ধু সাব্বির চোরাই গাড়ির ব্যবসা করে। সেখান থেকে সিজানের কাছে অর্ডার আসে একটি অ্যালিয়ন মডেলের গাড়ি দিলে আট লাখ টাকা দেয়া হবে।এরপরেই গাড়ি ছিনতাইয়ের পরিকল্পনায় নামে তারা। সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, চক্রটি নিউ মার্কেট থেকে পাঁচশ টাকা দিয়ে কিনে দুটি সুইচ গিয়ার চাকু। ঘটনার দিন উবারে পরপর চারটি রাইড অনুরোধ পাঠানোর পরও অ্যালিয়ন মডেলের গাড়ি না পাওয়ায় প্রতিটি অনুরোধ বাতিল করে তারা। পঞ্চমবারে কাঙ্ক্ষিত মডেলের গাড়ি নিয়ে আসেন আরমান। আর সেটিই কাল হয়ে দাঁড়ায় তার জন্যে।
গ্রেফতারের পর আসামিদের নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় গোয়েন্দা পুলিশ। পাশের দুটি আলাদা ড্রেন থেকে উদ্ধার করে আলাদা দুটি ছুরি। পুলিশ বলছে, আহত অবস্থায় আরমান গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আসামিরা চাকুগুলো ড্রেনে ফেলে পালিয়ে যায়। পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের উপ কমিশনার মশিউর রহমান বলেন, ‘এরা আসলে রামপুরা বনশ্রী এলাকায় থাকে। এরা বখাটে যুবক। এদের কোন কাজকর্ম নেই। নেশাও করে মাঝে মাঝে। এরা গাড়ি ছিনতাই করার কাজে জড়িত হওয়ার পরিকল্পনা করছিল।’
ঢাকা,রোববার,৩০ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments
Download WordPress Themes
Free Download WordPress Themes
Download Premium WordPress Themes Free
Download WordPress Themes
udemy course download free

সর্বশেষ আপডেট



» রাজধানীর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে রেনু হত্যা: মূলহোতা হৃদয় আটক

» বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয় নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার : ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ

» দুর্নীতি দমন কমিশনের বরখাস্ত হওয়া পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

» রিফাত শরীফ হত্যা: মিন্নির জামিন শুনানি ৩০ জুলাই

» ‘ছেলেধরা’গুজবে গণপিটুনিতে অংশ নিয়ে হত্যাকাণ্ড ঘটালে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে

» বঙ্গোপসাগর থেকে মাছ ধরা নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে আজ মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে

» ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি আগামী ২৯ জুলাই থেকে

» তাসলিমা বেগম রেনুর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে লক্ষ্মীপুরে মানববন্ধন

» ঘুষ কেলেঙ্কারি মামলায় দুদকের বরখাস্ত কর্মকর্তা এনামুল বাছির গ্রেফতার

» হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই উত্তরায় উবার চালককে হত্যা

গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই রাজধানীর উত্তরায় উবার চালক আরমানকে হত্যা করা হয়। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই  উত্তরায় উবার চালককে হত্যা 136

গাড়ি ছিনতাই করে চোরাই মার্কেটে বিক্রির উদ্দেশ্যেই রাজধানীর উত্তরায় উবার চালক আরমানকে হত্যা করা হয়। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে ঢাকা, হবিগঞ্জ এবং শেরপুর থেকে তিনজনের গ্রেফতারের পর এ কথা জানায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। আরমান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সিজান (২৪), শরিফ (১৯) ও সজিবকে (২০) গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। রোববার (৩০ জুন) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুরো ঘটনা তুলে ধরেন ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন।পুলিশ বলছে, হত্যাকারীদের উদ্দেশ্যে ছিলো অ্যালিয়ন মডেলের একটি গাড়ি চুরি করা। আর এ লক্ষ্যে উবারে বেশ কয়েকটি রাইড অনুরোধ পাঠানোর পর আরমানের গাড়িটি পেলে তাকে টার্গেট করে তারা।
গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, ঘটনার দিন রামপুরা থেকে আরমানের গাড়িতে উঠে এই চক্রটি। উত্তরা ১৩ নম্বর সেক্টরের ১৬ নম্বর সড়কে গিয়ে রাইড শেষ হলে চালককে টাকা না দিয়ে অপেক্ষা করতে বলে তারা। বলে বাসা থেকে টাকা নিয়ে নামবে কেউ একজন। বিশ্বাস অর্জনের জন্য কানে ফোন লাগিয়ে কথা বলার ভান করতে থাকে। আসলে তারা অপেক্ষা করছিলো চালক আরমানকে খুন করার উপযুক্ত পরিবেশের জন্য। এক পর্যায়ে রাস্তা কিছুটা জনশূন্য হয়ে পড়লে সিজানের নির্দেশে শরীফ আরমানের গলায় ছুরি চালিয়ে দেয়। এই অবস্থায় আরমান গাড়ি চালিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে কিছুদূর গিয়ে আর পারে না। অচেতন হয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। সেখানেই মারা যান তিনি।পুলিশ বলছে, হত্যাকারী চক্রের প্রধান সিজান। খুলনায় তার এক বন্ধু সাব্বির চোরাই গাড়ির ব্যবসা করে। সেখান থেকে সিজানের কাছে অর্ডার আসে একটি অ্যালিয়ন মডেলের গাড়ি দিলে আট লাখ টাকা দেয়া হবে।এরপরেই গাড়ি ছিনতাইয়ের পরিকল্পনায় নামে তারা। সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, চক্রটি নিউ মার্কেট থেকে পাঁচশ টাকা দিয়ে কিনে দুটি সুইচ গিয়ার চাকু। ঘটনার দিন উবারে পরপর চারটি রাইড অনুরোধ পাঠানোর পরও অ্যালিয়ন মডেলের গাড়ি না পাওয়ায় প্রতিটি অনুরোধ বাতিল করে তারা। পঞ্চমবারে কাঙ্ক্ষিত মডেলের গাড়ি নিয়ে আসেন আরমান। আর সেটিই কাল হয়ে দাঁড়ায় তার জন্যে।
গ্রেফতারের পর আসামিদের নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় গোয়েন্দা পুলিশ। পাশের দুটি আলাদা ড্রেন থেকে উদ্ধার করে আলাদা দুটি ছুরি। পুলিশ বলছে, আহত অবস্থায় আরমান গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আসামিরা চাকুগুলো ড্রেনে ফেলে পালিয়ে যায়। পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের উপ কমিশনার মশিউর রহমান বলেন, ‘এরা আসলে রামপুরা বনশ্রী এলাকায় থাকে। এরা বখাটে যুবক। এদের কোন কাজকর্ম নেই। নেশাও করে মাঝে মাঝে। এরা গাড়ি ছিনতাই করার কাজে জড়িত হওয়ার পরিকল্পনা করছিল।’
ঢাকা,রোববার,৩০ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited