ডেঙ্গু নির্মূলে ওয়ার্ডভিত্তিক ‘চিরুনি অভিযান’ কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন

Spread the love

ডেঙ্গু নির্মূলে ওয়ার্ডভিত্তিক ‘চিরুনি অভিযান’ কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) রাজধানীর গুলশানস্থ ডা. ফজলে রাব্বি পার্ক থেকে ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যে দিয়ে এই কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ প্রধান অতিথি হিসেবে বিশেষ এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

‘ওয়ার্ডভিত্তিক এডিস মশার প্রজননস্থল ধ্বংসকরণ ও বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান’ বা চিরুনি অভিযানের অংশ হিসেবে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি ব্লকে ভাগ করে প্রতিটি ব্লককে ১০টি সাব-ব্লকে ভাগ করা হয়। প্রতিদিন ১টি ব্লকের ১০টি সাব-ব্লকের প্রতিটি বাসা-বাড়ি, প্রতিষ্ঠান, খোলা জায়গা ইত্যাদি সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার ও এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস করা হবে। এভাবে ১০ দিনে এ ওয়ার্ডটি সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার ও এডিস মশার লার্ভা নির্মূল করা হবে বলে জানানো হয় ডিএনসিসির পক্ষ থেকে। ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের এই পরিকল্পনা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মহলে জানানোর পর তারা এটার প্রশংসা করেছে। তবে এমন কার্যক্রম দীর্ঘস্থায়ী হবে যদি স্থানীয় জনগণ এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়। তারা এগিয়ে না আসলে আমরা যত যাই করি না কেন, কোনো উদ্যোগই দীর্ঘস্থায়ী হবে না।

‘১০ দিনের প্রথম ৭ দিন আমরা কাজ করব। কোথাও গিয়ে লার্ভা পেলে আমরা স্টিকার লাগিয়ে দেব। এরপর তারা নিজেদের শুধরে নেবেন। যদি শুধরে না নেন, তাহলে তিন দিন পর গিয়ে আমরা ফাইন (জরিমানা) করব। দুইটি ভবনের মাঝের ‘নো ম্যানস ল্যান্ড’ পরিষ্কারের দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের না। আর ভবন মালিকেরা এগিয়ে না আসলে সেটি আমাদের পক্ষে সম্ভব ও হবে না।’

সিটি করপোরেশনের কর্মীদের ভবনের ভেতরে যাওয়ার অনুমতি দিতে ভবন মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আতিক বলেন, এরপরেও আমাদের কর্মীরা আপনাদের ভবনে যাবেন। তাদের ভেতরে প্রবেশ করতে দিন। কোথাও কোথাও পরিষ্কার করতে গেলে, ওষুধ দিতে গেলে আমাদের কর্মীদের প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। এটা ঠিক না। আমাদের কর্মীদের সঙ্গে যথাযথ পরিচয়পত্র থাকে। সেগুলো দেখে তাদেরকে প্রবেশ করতে দিন।’চিরুনি অভিযান কার্যক্রমের পর সবাইকে সঙ্গে নিয়ে ডিএনসিসি মেয়র পার্ক ও এর আশেপাশের এলাকায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করেন।
ঢাকা,মঙ্গলবার, ২০ আগষ্ট,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» সিনেমা হল বাঁচলে চলচ্চিত্র শিল্প ও শিল্পীরা বাঁচবে -তথ্যমন্ত্রী

» চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া হাইকোর্টে ফের জামিন আবেদন করেছেন

» রাজধানীর আরামবাগ এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে এক বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার

» মির্জা ফখরুল টেলিফোন করে বেগম জিয়ার মুক্তি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে জানাতে অনুরোধ করেছেন,প্রমাণ আছে

» বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য প্যারোলের বিষয়ে দলের পক্ষ থেকে কোনো কথা বলা হয়নি

» কর্ণফুলী নদীতে বোটডুবির ঘটনার ৪দিন পর নিখোঁজ মা-ছেলের মরদেহ উদ্ধার

» পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল আর নেই

» পাঠাও চালক শামীম বেপারিকে খুন করার ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে তিনজনকে

» শূন্য হওয়া ৩ আসনের উপনির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করেছে বিএনপি

» ফরিদপুর শহরের পূর্ব খাবাসপুর লঞ্চঘাট সংলগ্ন একটি বাসা থেকে স্বামীর ও স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ডেঙ্গু নির্মূলে ওয়ার্ডভিত্তিক ‘চিরুনি অভিযান’ কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

ডেঙ্গু নির্মূলে ওয়ার্ডভিত্তিক ‘চিরুনি অভিযান’ কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) রাজধানীর গুলশানস্থ ডা. ফজলে রাব্বি পার্ক থেকে ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যে দিয়ে এই কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ প্রধান অতিথি হিসেবে বিশেষ এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

‘ওয়ার্ডভিত্তিক এডিস মশার প্রজননস্থল ধ্বংসকরণ ও বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান’ বা চিরুনি অভিযানের অংশ হিসেবে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি ব্লকে ভাগ করে প্রতিটি ব্লককে ১০টি সাব-ব্লকে ভাগ করা হয়। প্রতিদিন ১টি ব্লকের ১০টি সাব-ব্লকের প্রতিটি বাসা-বাড়ি, প্রতিষ্ঠান, খোলা জায়গা ইত্যাদি সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার ও এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস করা হবে। এভাবে ১০ দিনে এ ওয়ার্ডটি সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার ও এডিস মশার লার্ভা নির্মূল করা হবে বলে জানানো হয় ডিএনসিসির পক্ষ থেকে। ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের এই পরিকল্পনা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মহলে জানানোর পর তারা এটার প্রশংসা করেছে। তবে এমন কার্যক্রম দীর্ঘস্থায়ী হবে যদি স্থানীয় জনগণ এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়। তারা এগিয়ে না আসলে আমরা যত যাই করি না কেন, কোনো উদ্যোগই দীর্ঘস্থায়ী হবে না।

‘১০ দিনের প্রথম ৭ দিন আমরা কাজ করব। কোথাও গিয়ে লার্ভা পেলে আমরা স্টিকার লাগিয়ে দেব। এরপর তারা নিজেদের শুধরে নেবেন। যদি শুধরে না নেন, তাহলে তিন দিন পর গিয়ে আমরা ফাইন (জরিমানা) করব। দুইটি ভবনের মাঝের ‘নো ম্যানস ল্যান্ড’ পরিষ্কারের দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের না। আর ভবন মালিকেরা এগিয়ে না আসলে সেটি আমাদের পক্ষে সম্ভব ও হবে না।’

সিটি করপোরেশনের কর্মীদের ভবনের ভেতরে যাওয়ার অনুমতি দিতে ভবন মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আতিক বলেন, এরপরেও আমাদের কর্মীরা আপনাদের ভবনে যাবেন। তাদের ভেতরে প্রবেশ করতে দিন। কোথাও কোথাও পরিষ্কার করতে গেলে, ওষুধ দিতে গেলে আমাদের কর্মীদের প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। এটা ঠিক না। আমাদের কর্মীদের সঙ্গে যথাযথ পরিচয়পত্র থাকে। সেগুলো দেখে তাদেরকে প্রবেশ করতে দিন।’চিরুনি অভিযান কার্যক্রমের পর সবাইকে সঙ্গে নিয়ে ডিএনসিসি মেয়র পার্ক ও এর আশেপাশের এলাকায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনা করেন।
ঢাকা,মঙ্গলবার, ২০ আগষ্ট,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com