দারিদ্র দূরীকরণ বাংলাদেশের ভূমিকা অসাধরণ:বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক প্যটারিজিও পাগানো

Spread the love

ঢাকা: বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক প্যটারিজিও পাগানো বলেছেন,দারিদ্র দূরীকরণ বাংলাদেশের ভূমিকা অসাধরণ।

প্যটারিজিও পাগানো বলেন, আমরা কারো দরজায় গিয়ে টোকা দেই না। সবার জন্য আমাদের দরজা উন্মুক্ত। যাদের সহায়তা প্রয়োজন তারাই আমাদের কাছে আসতে পারে। যদি মিয়ানমারের সরকার আসে তাহলে আমরাও তাদেরকে অর্থ অনুদান কিংবা ঋণ দিতে আগ্রহী।

রোববার (৩ নভেম্বর) রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন তিনি এ কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনের আগে প্রতিনিধি দলটি অর্থমন্ত্রী মুস্তাফা কামালের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ১০ শতাংশ জিডিপি অর্জনের যে উচ্চাকাঙ্ক্ষী লক্ষ্যমাত্রা অর্থমন্ত্রী নির্ধারণ করেছেন সেটা খুবই চমকপ্রদ। আর সেটি অর্জন করতে হলে অর্থনৈতিক খাতে কিছু সংস্কারের প্রয়োজন আছে বলে আমরা মনে করি।

বাংলাদেশকে বিশ্বের অন্যতম দ্রুত বিকাশমান অর্থনীতি দেশ হিসেবে অভিহিত করে বিশ্ব ব্যাংকের অন্যতম শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, দারিদ্র দূরীকরণ বাংলাদেশের ভূমিকা অসাধরণ।
বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত যে উন্নতি সাধন করেছে তাদের অর্জনে আমরা আনন্দিত।

বৈঠক শেষে এক প্রশ্নের জবাবে বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক বলেন, বিশ্বব্যাংক এখানে আছে সমস্যা সমাধানের জন্য। সমাধান হতে পারে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সহায়তার মধ্যদিয়ে। আমরা এখানে কোনো রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান খুঁজতে আসিনি। এটা আমাদের লক্ষ্য নয়। রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান করার জন্য জাতিসংঘের মত আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো আছে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব ব্যাংক সবসময় সমস্যা সমাধানে কাজ করে। সেটা হতে পারে কৌশলগত দিক থেকে অথবা অর্থনৈতিকভাবে সাহায্য করে। আমরা এখানে এসেছি সহায়তার জন্য। বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি। যেটা এখানকার মানুষের জন্য উপকারী হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন প্যটারিজিও পাগানো বলেন,বিশ্বব্যাংক কখনো কোনো দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে না বরং বিশ্বব্যাংক তার সমস্ত স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গেই কাজ করে। মিয়ানমারও বিশ্বব্যাংকের স্টেক হোল্ডার। তাই তারা যদি আগ্রহী হন তবে তাদের সঙ্গে কাজ করতে বিশ্বব্যাংকের কোন দ্বিধা নেই।

ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের প্রতিদিনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, গত দুই দিনে বিশ্বব্যাংক উন্নয়ন ইস্যু ও রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেছে। বাংলাদেশের এখন ৮ শতাংশের উপরে প্রবৃদ্ধি রয়েছে। ২০২৪ সালে প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশ হবে। সময় এখন সামনে এগিয়ে যাওয়ার। বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর মধ্যে শান্তিপূর্ণ উন্নয়নশীল দেশ। দারিদ্র্য নিরসনে বাংলাদেশ বিরাট সাফল্য দেখিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিশ্বব্যাংক আমাদের বন্ধু। উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্বে দ্রুত অর্থনৈতিক বর্ধনশীল দেশ। দারিদ্র্য কমানোসহ অর্থনীতির বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে বেসরকারি খাত কাজ করছে। বিভিন্ন খাতে উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মডেল।

এই বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর (বাংলাদেশ-ভুটান) মার্সি টেম্বন,প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম,অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদ প্রমুখ।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,রোববার,০৩ নভেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার প্রতিবেদন হাইকোর্টে জমা দেয়া হয়েছে।

» দেশসেরা ১৭২ শিক্ষার্থীকে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ ২০১৮ প্রদান করেছেন শেখ হাসিনা

» দিল্লিতে কারফিউ’র মধ্যেই নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২০ জনে দাঁড়িয়েছে

» ‘আইনসভায় বঙ্গবন্ধু’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

» কুয়াকাটায় আটটি খাবার হোটেল মালিককে অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত

» এক মাসের মধ্যে ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক জাতীয় দিবস ঘোষণা করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

» মিশরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক মারা গেছেন

» জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে ১০৬ রানে বাংলাদেশের জয়

» বিএনপি ক্ষমতায় গেলে পিলখানা হত্যাকাণ্ডের নিরপেক্ষ তদন্ত করে পুনঃবিচারের উদ্যোগ নেবে

» সকাল থেকেই ঢাকার আকাশ মেঘলা,কিছু এলাকায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দারিদ্র দূরীকরণ বাংলাদেশের ভূমিকা অসাধরণ:বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক প্যটারিজিও পাগানো

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

ঢাকা: বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক প্যটারিজিও পাগানো বলেছেন,দারিদ্র দূরীকরণ বাংলাদেশের ভূমিকা অসাধরণ।

প্যটারিজিও পাগানো বলেন, আমরা কারো দরজায় গিয়ে টোকা দেই না। সবার জন্য আমাদের দরজা উন্মুক্ত। যাদের সহায়তা প্রয়োজন তারাই আমাদের কাছে আসতে পারে। যদি মিয়ানমারের সরকার আসে তাহলে আমরাও তাদেরকে অর্থ অনুদান কিংবা ঋণ দিতে আগ্রহী।

রোববার (৩ নভেম্বর) রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন তিনি এ কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনের আগে প্রতিনিধি দলটি অর্থমন্ত্রী মুস্তাফা কামালের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ১০ শতাংশ জিডিপি অর্জনের যে উচ্চাকাঙ্ক্ষী লক্ষ্যমাত্রা অর্থমন্ত্রী নির্ধারণ করেছেন সেটা খুবই চমকপ্রদ। আর সেটি অর্জন করতে হলে অর্থনৈতিক খাতে কিছু সংস্কারের প্রয়োজন আছে বলে আমরা মনে করি।

বাংলাদেশকে বিশ্বের অন্যতম দ্রুত বিকাশমান অর্থনীতি দেশ হিসেবে অভিহিত করে বিশ্ব ব্যাংকের অন্যতম শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, দারিদ্র দূরীকরণ বাংলাদেশের ভূমিকা অসাধরণ।
বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত যে উন্নতি সাধন করেছে তাদের অর্জনে আমরা আনন্দিত।

বৈঠক শেষে এক প্রশ্নের জবাবে বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক বলেন, বিশ্বব্যাংক এখানে আছে সমস্যা সমাধানের জন্য। সমাধান হতে পারে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সহায়তার মধ্যদিয়ে। আমরা এখানে কোনো রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান খুঁজতে আসিনি। এটা আমাদের লক্ষ্য নয়। রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান করার জন্য জাতিসংঘের মত আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো আছে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব ব্যাংক সবসময় সমস্যা সমাধানে কাজ করে। সেটা হতে পারে কৌশলগত দিক থেকে অথবা অর্থনৈতিকভাবে সাহায্য করে। আমরা এখানে এসেছি সহায়তার জন্য। বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি। যেটা এখানকার মানুষের জন্য উপকারী হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন প্যটারিজিও পাগানো বলেন,বিশ্বব্যাংক কখনো কোনো দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে না বরং বিশ্বব্যাংক তার সমস্ত স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গেই কাজ করে। মিয়ানমারও বিশ্বব্যাংকের স্টেক হোল্ডার। তাই তারা যদি আগ্রহী হন তবে তাদের সঙ্গে কাজ করতে বিশ্বব্যাংকের কোন দ্বিধা নেই।

ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের প্রতিদিনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, গত দুই দিনে বিশ্বব্যাংক উন্নয়ন ইস্যু ও রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেছে। বাংলাদেশের এখন ৮ শতাংশের উপরে প্রবৃদ্ধি রয়েছে। ২০২৪ সালে প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশ হবে। সময় এখন সামনে এগিয়ে যাওয়ার। বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর মধ্যে শান্তিপূর্ণ উন্নয়নশীল দেশ। দারিদ্র্য নিরসনে বাংলাদেশ বিরাট সাফল্য দেখিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বিশ্বব্যাংক আমাদের বন্ধু। উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্বে দ্রুত অর্থনৈতিক বর্ধনশীল দেশ। দারিদ্র্য কমানোসহ অর্থনীতির বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে বেসরকারি খাত কাজ করছে। বিভিন্ন খাতে উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মডেল।

এই বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর (বাংলাদেশ-ভুটান) মার্সি টেম্বন,প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম,অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদ প্রমুখ।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,রোববার,০৩ নভেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com