স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্রের প্রচারণা ও মোড়ক উন্মোচন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Spread the love

ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে উদ্যোগে জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্র ২০১৯-২০৩০ ও মাতৃ স্বাস্থ্যের পরিচালনার এসওপি প্রচারণা ও মোড়ক উন্মোচন করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি।

সোমবার রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে জাতীয় স্বাস্থ্য কৌশলপত্র ও মাতৃস্বাস্থ্য পরিচালনার এসওপি প্রচারণা ও মোড়ক উন্মোচন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এই অনুষ্ঠানে মাত্র স্বাস্থ্য ও অন্যান্য সমস্যার সমাধানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও অন্যান্য হোল্ডারদের দিকনির্দেশনা হিসেবে বাংলাদেশ জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্র ২০১৯-২০৩০ ও এসওপি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বাংলাদেশ সরকারের সংবিধানের বয়স, লিঙ্গ, জাতি, ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকল নাগরিকের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে।সকল নাগরিকের সম্মিলিত এবং গুণগত স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য আমাদের সরকার যেসব আইন ও নীতি প্রণয়ন করেছে সেখানে মাতৃসেবা ওপর বিশেষ জোর দেয়া হয়েছে।এই কৌশলপত্রে নতুন কিছু দিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যা সার্বিক মাতৃ স্বাস্থ্য সেবায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অবদান রাখবে।

সরকার মাতৃ স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ভবিষ্যৎ মনোনয়নে গুরুত্ব দিচ্ছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে এমএনসিএএইচ ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের এমএনসিএএইচ উভয় অপারেশন প্লানে কিশোর-কিশোরীদের মাতৃস্বাস্থ্য সেবা ও মনোনয়নের বিষয়ে অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্র ২০১৯-২৩০ ও স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রলয় ,অন্যান্য সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা এবং বিভিন্ন স্টেক হোল্ডার বাংলাদেশ মাতৃস্বাস্থ্য সেবা সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বাস্থ্য উপদেষ্টা কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের অধ্যাপক ডাক্তার সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব শেখ ইউসুফ, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী একেএম মহিউল ইসলাম ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন।

এই অনুষ্ঠানে সাবেক সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ।এই অনুষ্ঠানের শেষের দিকে তিনি সমাপনী বক্তব্য রাখেন।

এই অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এমএনসিএএইচ এর লাইন পরিচালক ডাক্তার মোঃ শামসুল হক। এই অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপ পরিচালক ডাক্তার মোঃ মোসায়ের-উল- ইসলাম।

এই অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডাক্তার বর্ধন জান রানা,ইউএনএফপিএ এর প্রতিনিধি ডাক্তার আশা তারকেশন ও ইউনিসেফের প্রতিনিধি মায়া ভান্ডেমেন্ট।

এই অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মাতৃস্বাস্থ্যের বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। এই সময় অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহসেন উদ্দিন আহমেদ ও রাজশাহী মেডিকেল হসপিটালের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ জামিনুর রহমান সহ অন্যান্যদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

নিরাপদ মাতৃত্বের গুরুত্ব অনুধাবন করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৯৯৭ সালে প্রতিবছর ২৮ মে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস পালনের ঘোষণা প্রদান করেন।এই দিবসটি পালনের মাধ্যমে জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে ও সংশ্লিষ্ট সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত হয়েছে।

বাংলাদেশ প্রতিদিন প্রায় ১৪ জন মা-বাবা জনিত জটিলতায় মারা যায়। নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত করতে হলে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন মাতৃমৃত্যুর হার কমিয়ে আনা।মাতৃমৃত্যুর রোধে বাংলাদেশ সরকারের বহুমুখী কার্যকরী পদক্ষেপ বাস্তবায়নের ফলে মৃত্যুর হার ধীরে ধীরে কমে এসেছে।

মাতৃ মৃত্যুর হার রুট করতে অন্যতম স্বাস্থ্যসেবার জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় নেতৃত্বে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে এমএনসিএএইচ প্রোগ্রাম এর ব্যবস্থাপনায় ইউনেসেফ, সেভ দ্য চিলড্রেন, ইউএসএআইডি, ইউএনএফপিএ ও ডাব্লুএইচও এর সহায়তায় বাংলাদেশে জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশল পত্র ২০১৯-২০৩০ প্রণয়ন করা হয়েছে। এছাড়া ইউএসএআইডি ও চিলড্রেন এর সহায়তায় মাতৃস্বাস্থ্য পরিচালনায় করার জন্য এসওপি প্রণয়ন করা হয়েছে।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,সোমবার,০৪ নভেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» কুয়াকাটা সড়কে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু

» সমন্বিত কর্ম পরিকল্পনা গ্রহন এবং বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে : এলজিআরডি মন্ত্রী

» সাকিব-শিশির দম্পতির বাসায় নিজ হাতে খাবার রান্না করে পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

» জনগণ বিভ্রান্ত হবে না।ভোটারদের বিন্দুমাত্র বিচলিত না হওয়ার আহ্বান জানান মেয়রপ্রার্থী ইশরাক

» অপহরণের ৫ দিনের মাথায় রাজধানী ডেমরা থেকে ২ অপহৃত ছাত্রকে উদ্ধার

» নির্বাচনে ইশতেহার ঘোষণা করেছেন মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম

» গোপীবাগে নির্বাচনী প্রচারণায় আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ

» রাজধানীর পাশাপাশি, তৃণমূল পর্যায়ের উন্নয়ন ছাড়া দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়-প্রধানমন্ত্রী

» ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় ট্রাকের ধাক্কায় অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত

» চীনে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ১৪ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্রের প্রচারণা ও মোড়ক উন্মোচন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

ঢাকা: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে উদ্যোগে জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্র ২০১৯-২০৩০ ও মাতৃ স্বাস্থ্যের পরিচালনার এসওপি প্রচারণা ও মোড়ক উন্মোচন করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি।

সোমবার রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে জাতীয় স্বাস্থ্য কৌশলপত্র ও মাতৃস্বাস্থ্য পরিচালনার এসওপি প্রচারণা ও মোড়ক উন্মোচন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এই অনুষ্ঠানে মাত্র স্বাস্থ্য ও অন্যান্য সমস্যার সমাধানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও অন্যান্য হোল্ডারদের দিকনির্দেশনা হিসেবে বাংলাদেশ জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্র ২০১৯-২০৩০ ও এসওপি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বাংলাদেশ সরকারের সংবিধানের বয়স, লিঙ্গ, জাতি, ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকল নাগরিকের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে।সকল নাগরিকের সম্মিলিত এবং গুণগত স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য আমাদের সরকার যেসব আইন ও নীতি প্রণয়ন করেছে সেখানে মাতৃসেবা ওপর বিশেষ জোর দেয়া হয়েছে।এই কৌশলপত্রে নতুন কিছু দিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যা সার্বিক মাতৃ স্বাস্থ্য সেবায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অবদান রাখবে।

সরকার মাতৃ স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও ভবিষ্যৎ মনোনয়নে গুরুত্ব দিচ্ছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে এমএনসিএএইচ ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের এমএনসিএএইচ উভয় অপারেশন প্লানে কিশোর-কিশোরীদের মাতৃস্বাস্থ্য সেবা ও মনোনয়নের বিষয়ে অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশলপত্র ২০১৯-২৩০ ও স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রলয় ,অন্যান্য সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা এবং বিভিন্ন স্টেক হোল্ডার বাংলাদেশ মাতৃস্বাস্থ্য সেবা সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বাস্থ্য উপদেষ্টা কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের অধ্যাপক ডাক্তার সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব শেখ ইউসুফ, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী একেএম মহিউল ইসলাম ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন।

এই অনুষ্ঠানে সাবেক সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ।এই অনুষ্ঠানের শেষের দিকে তিনি সমাপনী বক্তব্য রাখেন।

এই অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এমএনসিএএইচ এর লাইন পরিচালক ডাক্তার মোঃ শামসুল হক। এই অনুষ্ঠানে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপ পরিচালক ডাক্তার মোঃ মোসায়ের-উল- ইসলাম।

এই অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডাক্তার বর্ধন জান রানা,ইউএনএফপিএ এর প্রতিনিধি ডাক্তার আশা তারকেশন ও ইউনিসেফের প্রতিনিধি মায়া ভান্ডেমেন্ট।

এই অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মাতৃস্বাস্থ্যের বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। এই সময় অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহসেন উদ্দিন আহমেদ ও রাজশাহী মেডিকেল হসপিটালের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ জামিনুর রহমান সহ অন্যান্যদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

নিরাপদ মাতৃত্বের গুরুত্ব অনুধাবন করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৯৯৭ সালে প্রতিবছর ২৮ মে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস পালনের ঘোষণা প্রদান করেন।এই দিবসটি পালনের মাধ্যমে জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে ও সংশ্লিষ্ট সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত হয়েছে।

বাংলাদেশ প্রতিদিন প্রায় ১৪ জন মা-বাবা জনিত জটিলতায় মারা যায়। নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত করতে হলে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন মাতৃমৃত্যুর হার কমিয়ে আনা।মাতৃমৃত্যুর রোধে বাংলাদেশ সরকারের বহুমুখী কার্যকরী পদক্ষেপ বাস্তবায়নের ফলে মৃত্যুর হার ধীরে ধীরে কমে এসেছে।

মাতৃ মৃত্যুর হার রুট করতে অন্যতম স্বাস্থ্যসেবার জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় নেতৃত্বে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে এমএনসিএএইচ প্রোগ্রাম এর ব্যবস্থাপনায় ইউনেসেফ, সেভ দ্য চিলড্রেন, ইউএসএআইডি, ইউএনএফপিএ ও ডাব্লুএইচও এর সহায়তায় বাংলাদেশে জাতীয় মাতৃস্বাস্থ্য কৌশল পত্র ২০১৯-২০৩০ প্রণয়ন করা হয়েছে। এছাড়া ইউএসএআইডি ও চিলড্রেন এর সহায়তায় মাতৃস্বাস্থ্য পরিচালনায় করার জন্য এসওপি প্রণয়ন করা হয়েছে।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,সোমবার,০৪ নভেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com