সরকারের প্রস্তুতিতে বুলবুলে ক্ষতি হয়নি, প্রধানমন্ত্রীর নির্ঘুম রাত : তথ্যমন্ত্রী

Spread the love

ঢাকা : ‘ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলা পর্যবেক্ষণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন’, জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

এই সভায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলার প্রস্তুতি ও পরবর্তী করণীয় বিষয়ে বারবার নির্দেশনা দিয়েছেন, নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন। আর যে বিএনপি আমাদের সরকারের প্রস্তুতিকে অপর্যাপ্ত বলছে, তাদের নেত্রীর প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, তাদের সময় ১৯৯১ সালের ঘুর্ণিঝড়ের পর যখন মানুষের লাশ পানিতে ভাসছে, সমস্ত চট্টগ্রামে লাশের গন্ধ, তখন নওয়াজ শরিফ আসায় বেগম খালেদা জিয়া দিনে সাতটি শাড়ি বদল করেছেন।’

রোববার (১০ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কার্যালয়ে ১০ নভেম্বর শহীদ নূর হোসেন দিবস উপলক্ষে শহীদ নূর হোসেন সংসদ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ প্রসঙ্গে কথা বলেন তিনি।

এই সভায় ড. হাছান বলেন, ‘বিএনপি বলেছে, ঘুর্ণিঝড় মোকাবিলায় সরকারের প্রস্তুতি নাকি যথেষ্ট নয়। অথচ ব্যাপক ও পর্যাপ্ত প্রস্তুতির ফলে আমাদের প্রাণ ও সম্পদ উভয়ই ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। আমি তাদের বলবো, নিজের চেহারাটা আয়নায় দেখতে। কারণ, তাদের সময়ে ১৯৯১ সালের ঘূর্ণিঝড়ে পাঁচ লক্ষ প্রাণহানি ও ব্যাপক সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। চট্টগ্রাম বিমানঘাঁটির অনেকগুলো বিমান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল শুধু অবহেলায়, কারণ বিমান তো উড়িয়েই ঢাকা আনা যেতো। নিরাপদ জায়গায় নোঙর না করায় জাহাজও উঠে এসেছিলো রাস্তায়। এ অবস্থায়, যখন মানুষের লাশ পানিতে ভাসছে, সমস্ত চট্টগ্রামে লাশের গন্ধ, তখন নওয়াজ শরিফ আসায় বেগম খালেদা জিয়া একদিনে সাতটি শাড়ি বদল করেছেন। আর এতো মানুষ মারা যাবার পরও সংসদে বেগম জিয়া বলেছেন, যত লোক মারা যাবার কথা ছিলো, তত লোক মারা যায়নি।’

এই সভায় তথ্যমন্ত্রী এসময় এদেশের মানুষের প্রতি বঙ্গবন্ধুকন্যার গভীর মমতার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যার রক্তধমনীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর রক্তস্রোত প্রবাহমান, তিনি বারবার মৃত্যু উপত্যকা থেকে ফিরে এসে দেশ ও মানুষের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করেছেন, মেহনতী মানুষের জীবনের উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। সেকারণেই শেখ হাসিনার অপর নাম গণতন্ত্র, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর দেশ ও জাতির উন্নয়ন।’

এই সভায় মন্ত্রী বলেন, ‘নূর হোসেনের রক্ত বৃথা যায়নি। নূর হোসেনসহ সকল শহীদের রক্তে আমাদের গণতন্ত্র আজ সুপ্রতিষ্ঠিত। নব্বইয়ের ১০ নভেম্বর সেদিন শুধু নূর হোসেনই নয়, টার্গেট ছিলেন শেখ হাসিনাও।’

এসময় ড. হাছান মাহমুদ সবাইকে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবীর শুভেচ্ছা জানান।

শহীদ নূর হোসেন দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি তছলিম আহম্মেদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে নূরুল আমিন রুহুল এমপি, প্রধান বক্তা হিসেবে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, বক্তা হিসেবে শহীদ নূর হোসেনের বড় ভাই মোহাম্মদ আলী হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আকতার হোসেন প্রমুখ সভায় নূর হোসেনের স্মৃতিচারণ করেন।

মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,রোববার,১০ নভেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» খুলনা টাইগার্সকে ২১ রানে হারিয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের শিরোপা জিতল রাজশাহী রয়্যালস

» চলন্ত বাস থেকে একজন যাত্রীকে ফেলে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে বাসের হেলপারের বিরুদ্ধে

» রাজধানীর বাড্ডার আফতাবনগর থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার

» ময়মনসিংহের গৌরীপুরে মালবাহী একটি ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত

» নির্বাচন পেছানোর দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ঢাবি ভিসির একাত্মতা প্রকাশ

» রাজধানীর উত্তরায় বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত

» টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে বিল থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার

» একই দিনে নির্বাচন এবং সরস্বতী পূজার বিষয়টি সিদ্ধান্ত নেবেন নির্বাচন কমিশন-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» শুক্রবার সকাল থেকেই নির্বাচনের গণসংযোগ শুরু করেন বিভিন্ন দলের মেয়র প্রার্থীরা

» নির্বাচন আগানো বা পেছানো নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার-ওবায়দুল কাদের

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ৫ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সরকারের প্রস্তুতিতে বুলবুলে ক্ষতি হয়নি, প্রধানমন্ত্রীর নির্ঘুম রাত : তথ্যমন্ত্রী

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

ঢাকা : ‘ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলা পর্যবেক্ষণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন’, জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

এই সভায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলার প্রস্তুতি ও পরবর্তী করণীয় বিষয়ে বারবার নির্দেশনা দিয়েছেন, নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন। আর যে বিএনপি আমাদের সরকারের প্রস্তুতিকে অপর্যাপ্ত বলছে, তাদের নেত্রীর প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, তাদের সময় ১৯৯১ সালের ঘুর্ণিঝড়ের পর যখন মানুষের লাশ পানিতে ভাসছে, সমস্ত চট্টগ্রামে লাশের গন্ধ, তখন নওয়াজ শরিফ আসায় বেগম খালেদা জিয়া দিনে সাতটি শাড়ি বদল করেছেন।’

রোববার (১০ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কার্যালয়ে ১০ নভেম্বর শহীদ নূর হোসেন দিবস উপলক্ষে শহীদ নূর হোসেন সংসদ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ প্রসঙ্গে কথা বলেন তিনি।

এই সভায় ড. হাছান বলেন, ‘বিএনপি বলেছে, ঘুর্ণিঝড় মোকাবিলায় সরকারের প্রস্তুতি নাকি যথেষ্ট নয়। অথচ ব্যাপক ও পর্যাপ্ত প্রস্তুতির ফলে আমাদের প্রাণ ও সম্পদ উভয়ই ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। আমি তাদের বলবো, নিজের চেহারাটা আয়নায় দেখতে। কারণ, তাদের সময়ে ১৯৯১ সালের ঘূর্ণিঝড়ে পাঁচ লক্ষ প্রাণহানি ও ব্যাপক সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। চট্টগ্রাম বিমানঘাঁটির অনেকগুলো বিমান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল শুধু অবহেলায়, কারণ বিমান তো উড়িয়েই ঢাকা আনা যেতো। নিরাপদ জায়গায় নোঙর না করায় জাহাজও উঠে এসেছিলো রাস্তায়। এ অবস্থায়, যখন মানুষের লাশ পানিতে ভাসছে, সমস্ত চট্টগ্রামে লাশের গন্ধ, তখন নওয়াজ শরিফ আসায় বেগম খালেদা জিয়া একদিনে সাতটি শাড়ি বদল করেছেন। আর এতো মানুষ মারা যাবার পরও সংসদে বেগম জিয়া বলেছেন, যত লোক মারা যাবার কথা ছিলো, তত লোক মারা যায়নি।’

এই সভায় তথ্যমন্ত্রী এসময় এদেশের মানুষের প্রতি বঙ্গবন্ধুকন্যার গভীর মমতার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যার রক্তধমনীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর রক্তস্রোত প্রবাহমান, তিনি বারবার মৃত্যু উপত্যকা থেকে ফিরে এসে দেশ ও মানুষের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করেছেন, মেহনতী মানুষের জীবনের উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। সেকারণেই শেখ হাসিনার অপর নাম গণতন্ত্র, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর দেশ ও জাতির উন্নয়ন।’

এই সভায় মন্ত্রী বলেন, ‘নূর হোসেনের রক্ত বৃথা যায়নি। নূর হোসেনসহ সকল শহীদের রক্তে আমাদের গণতন্ত্র আজ সুপ্রতিষ্ঠিত। নব্বইয়ের ১০ নভেম্বর সেদিন শুধু নূর হোসেনই নয়, টার্গেট ছিলেন শেখ হাসিনাও।’

এসময় ড. হাছান মাহমুদ সবাইকে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবীর শুভেচ্ছা জানান।

শহীদ নূর হোসেন দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি তছলিম আহম্মেদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে নূরুল আমিন রুহুল এমপি, প্রধান বক্তা হিসেবে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, বক্তা হিসেবে শহীদ নূর হোসেনের বড় ভাই মোহাম্মদ আলী হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আকতার হোসেন প্রমুখ সভায় নূর হোসেনের স্মৃতিচারণ করেন।

মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,রোববার,১০ নভেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com