দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষাটাই হচ্ছে মূল হাতিয়ার-প্রধানমন্ত্রী

আমরা বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করতে চাই। আর দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষাটাই হচ্ছে মূল হাতিয়ার। তাই বর্তমান সরকার শিক্ষা খাতের উন্নয়নে সব রকম পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রোববার (৮ জুলাই) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০১৮ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত হওয়ারও আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।অনুষ্ঠানে সারাদেশের ১২ জন মেধাবীসহ ১০৮ জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।সৃজনশীল জাতি গঠনের লক্ষে দেশের তৃণমূল পর্যায় থেকে মেধাবী শিক্ষার্থীদের তুলে আনতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ২০১৩ সাল থেকে আয়োজন করে আসছে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা। রোববার ষষ্ঠবারের মতো এ আয়োজনে জাতীয় পর্যায়ে সেরা শিক্ষার্থীদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।পরে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে দেয়া বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন জাতি গড়তে বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে বর্তমান সরকার।বিশ্ব প্রতিযোগিতায় নিজের যোগ্যভাবে গড়ে তুলতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েরা এতো মেধাবী, আমি মনে করি বিশ্বে বাংলাদেশের ছেলেমেয়েরা সবচেয়ে বেশি মেধাবী।
তিনি বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েদের একটু সুযোগ করে দিলে তারা অত্যন্ত ভালো করে। আমাদের ছেলেমেয়েদের আমরা সেভাবেই গড়তে চাই যেন আগামী দিনে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে প্রতিযোগিতায় তারা এগিয়ে থাকে।
শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের উপযুক্ত জনবল দরকার। আজকের শিশুরাই একদিন সবকিছু পরিচালনা করবে। সেই সুযোগটাই আমরা সৃষ্টি করতে চাই। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন, জ্ঞান-বিজ্ঞানভিত্তিক একটি জাতি আমরা গড়ে তুলতে চাই। সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করছি।তিনি বলেন, সবাইকে একটা কথাই বলবো শিক্ষাটাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় সম্পদ। এর চেয়ে বড় সম্পদ আর কিছু না। এই সম্পদ কেউ কেড়ে নিতে পারবে না, ছিনতাই করতে পারবে না। শিক্ষাটা যদি থাকে জীবনটাকে সুন্দরভাবে পরিচালনা করা যায়।
সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করতে চাই। আর বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করার জন্য শিক্ষাই মূল হাতিয়ার বলে আমি বিশ্বাস করি। যেটা জাতির পিতা সব সময় বলতেন যে শিক্ষিত করে ছেড়ে দাও, নিজের পায়ে দাঁড়াবে এবং দেশকেও এগিয়ে নিয়ে যাবে। সে কারণে আমরা সারা বাংলাদেশে, এখন যেমন প্রতিটা জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় করে দিচ্ছি সরকারিভাবে, সরকারের উদ্যোগে, বহুমুখী বিশ্ববিদ্যালয় আমরা করে দিচ্ছি।’
আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে তাল মেলাতেই সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি সরকার বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিয়েছে বলেও জানান শেখ হাসিনা।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসাইন।
ঢাকা,রোববার,০৮ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» দলীয় নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার,নির্যাতন,ধানের শীষের পোষ্টার ছিড়ে ফেলার অভিযোগ করেছেন ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী আব্দুল মান্নান

» ভোটের মাঠে জনগণের চেয়ে বড় অস্ত্র, বড় হাতিয়ার আর কিছু নেই-ওবায়দুল কাদের

» আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ’তে আনা হচ্ছে

» সিইসি যে বক্তব্য দিয়েছেন,একজন নির্বাচন কমিশনারের অস্তিত্বে আঘাত করেছেন

» নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ-ড. কামাল হোসেন

» জনগণ বিএনপির এ ইশতেহার ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে-জাহাঙ্গীর কবির নানক

» নানা কৌশলে বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার ষড়যন্ত্র করছে। বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে যাবে না

» নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি বাসায় আগুনে একই পরিবারের নয়জন দগ্ধ

» বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না-আইজিপি

» জাতীয় প্রেসক্লাব নির্বাচন:মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের প্যানেলের সভাপতি সাইফুল আলম, সম্পাদক ফরিদা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষাটাই হচ্ছে মূল হাতিয়ার-প্রধানমন্ত্রী

আমরা বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করতে চাই। আর দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষাটাই হচ্ছে মূল হাতিয়ার। তাই বর্তমান সরকার শিক্ষা খাতের উন্নয়নে সব রকম পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রোববার (৮ জুলাই) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০১৮ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত হওয়ারও আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।অনুষ্ঠানে সারাদেশের ১২ জন মেধাবীসহ ১০৮ জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।সৃজনশীল জাতি গঠনের লক্ষে দেশের তৃণমূল পর্যায় থেকে মেধাবী শিক্ষার্থীদের তুলে আনতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ২০১৩ সাল থেকে আয়োজন করে আসছে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা। রোববার ষষ্ঠবারের মতো এ আয়োজনে জাতীয় পর্যায়ে সেরা শিক্ষার্থীদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।পরে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে দেয়া বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন জাতি গড়তে বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে বর্তমান সরকার।বিশ্ব প্রতিযোগিতায় নিজের যোগ্যভাবে গড়ে তুলতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েরা এতো মেধাবী, আমি মনে করি বিশ্বে বাংলাদেশের ছেলেমেয়েরা সবচেয়ে বেশি মেধাবী।
তিনি বলেন, আমাদের ছেলেমেয়েদের একটু সুযোগ করে দিলে তারা অত্যন্ত ভালো করে। আমাদের ছেলেমেয়েদের আমরা সেভাবেই গড়তে চাই যেন আগামী দিনে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে প্রতিযোগিতায় তারা এগিয়ে থাকে।
শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের উপযুক্ত জনবল দরকার। আজকের শিশুরাই একদিন সবকিছু পরিচালনা করবে। সেই সুযোগটাই আমরা সৃষ্টি করতে চাই। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন, জ্ঞান-বিজ্ঞানভিত্তিক একটি জাতি আমরা গড়ে তুলতে চাই। সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করছি।তিনি বলেন, সবাইকে একটা কথাই বলবো শিক্ষাটাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় সম্পদ। এর চেয়ে বড় সম্পদ আর কিছু না। এই সম্পদ কেউ কেড়ে নিতে পারবে না, ছিনতাই করতে পারবে না। শিক্ষাটা যদি থাকে জীবনটাকে সুন্দরভাবে পরিচালনা করা যায়।
সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করতে চাই। আর বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করার জন্য শিক্ষাই মূল হাতিয়ার বলে আমি বিশ্বাস করি। যেটা জাতির পিতা সব সময় বলতেন যে শিক্ষিত করে ছেড়ে দাও, নিজের পায়ে দাঁড়াবে এবং দেশকেও এগিয়ে নিয়ে যাবে। সে কারণে আমরা সারা বাংলাদেশে, এখন যেমন প্রতিটা জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় করে দিচ্ছি সরকারিভাবে, সরকারের উদ্যোগে, বহুমুখী বিশ্ববিদ্যালয় আমরা করে দিচ্ছি।’
আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে তাল মেলাতেই সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি সরকার বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিয়েছে বলেও জানান শেখ হাসিনা।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন-প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসাইন।
ঢাকা,রোববার,০৮ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited