এই সিমগুলো দিয়ে অবৈধ হুমকি,চাঁদাবাজি ও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবহারসহ অপরাধমূলক কাজ করে অপরাধীরা-র‌্যাব

সিনিয়ার নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা: অপরাধ কর্মে ব্যবহারের জন্য অনুমতি ছাড়া ৪২টি কোম্পানির নামে অবৈধভাবে ৮৬৭টি গ্রামীণফোন সিম এ্যাকটিভেট করেন গ্রামীণফোনের বিজনেস ও সেলসের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ সৈয়দ তানভীরুর রহমান (৩৫)। সিমগুলো বিতরণ করেন তৌফিক হোসেন ( ৩৮)।
এর আগে শনিবার রাতে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের (র‌্যাব)-৪ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে এ দুজনকে গ্রেফতার করে।
আজ রোববার (৭ অক্টোবর ২০১৮) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানায় র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক (সিও) অতিরিক্ত ডিআইজি চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির।
চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির বলেন, ‘ গ্রামীণফোনের দুটি নাম্বার (০১৭৮৯৮২২১৮৯ ও ১৭৫৫৫৯৩২৯১) থেকে একজন শ্রীলংকান নাগরিকের কাছে ১০ কোটি টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। চাঁদার টাকা না দিলে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়!এ ঘটনায় গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ভাষানটেক থানায় ঐ বিদেশি নাগরিকি একটি জিডি করেন। পরবর্তীতে র‍্যাব-৪ এ বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করে।’
‘চাঁদা দাবি করা মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে র‍্যাব জানতে পারে, সিমটির কোন বৈধ রেজিস্ট্রেশন নেই। তৌফিক হোসেনের মালিকানাধীন মোনাডিক বাংলাদেশ নামক একটি ডিস্ট্রিবিউশন হাউজ থেকে দেওয়া হয়েছে সিমটি। যা অ্যাকটিভেট করেছেন গ্রামীণফোনের সৈয়দ তানভীরুর রহমান।’
র‍্যাবের এই কর্মকর্তা আরো জানান, ‘অনুসন্ধানে জানা যায়, মোট ৪২টি কোম্পানির অনুমতি না নিয়েই তার এই অতিরিক্ত সিম রেজিস্ট্রেশন রেছেন। কোম্পানিগুলো যদি ৫টা সিম সংগ্রহ করে, তারা অতিরিক্ত ১০টা সিম ঐ কোম্পানির নামে উঠায়।’
‘পরবর্তীতে ঐ সিম বিক্রি করে, যা দিয়ে অবৈধ হুমকি, চাঁদাবাজি ও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবহারসহ নানাবিধ অপরাধমূলক কাজ করেন অপরাধীরা।’
এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ২ জনের কাছ থেকে অবৈধ ৫৫৩ টি সিমের বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনের কাজে ব্যবহৃত একটি ল্যাপটপ ও নয়টি ট্যাব জব্দ করা হয়।
র‌্যাব-৪ সিও বলেন, ব্যক্তিগতভাবে সিম উত্তোলন করতে হলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট লাগে, সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি। কিন্তু কোনো প্রতিষ্ঠানের নামে সিম উত্তোলন করতে হলে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্টে একাধিক সিম উত্তোলন সম্ভব। সেই সুযোগটাই নিয়েছে প্রতারকচক্র। ওই সিমগুলো সাধাণত চাঁদাবাজিতে জড়িত অপরাধচক্রের হাতে পৌঁছে যেত।আর ৫০০ টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করত এই অপরাধীচক্রের সদস্যরা। র‌্যাব-৪ অধিনায়ক বলেন, আমরা গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে ভাসানটেক থানায় প্রচলিত আইনে মামলা ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ড চাইব। এই প্রতারকচক্রের সঙ্গে আরও কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,রোববার,০৭ অক্টোম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৩০ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

» চাঁদপুরে একই পরিবারের চারজনের লাশ উদ্ধার

» রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ করছেন আ.লীগ-বিএনপির প্রার্থীরা

» আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা আজকের মধ্যে সরে না দাঁড়ালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে-ওবায়দুল কাদের

» সামরিক বাহিনী ও পুলিশ ছাড়া সরকারি চাকরিতে প্রবেশের কোনো বয়সসীমা থাকবে না

» ৪ উইকেট হারিয়ে ৫৮ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ।

» বাঙালির গৌরবময় মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ পুলিশ সদস্যদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা

» যেভাবে ভোটারদের হুমকি দেওয়া ও প্রার্থীরা হামলার শিকার হচ্ছেন, এতে নির্বাচনের দিন কী ঘটনা ঘটবে তা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে : ড. কামাল হোসেন

» সোমবার দেশে আনা হচ্ছে চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেনের মরদেহ

» রাজধানীর গুলশানে ২১ ডিসেম্বর, সিলেটে ২২ ও রংপুরে ২৩ ডিসেম্বর জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা— ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

এই সিমগুলো দিয়ে অবৈধ হুমকি,চাঁদাবাজি ও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবহারসহ অপরাধমূলক কাজ করে অপরাধীরা-র‌্যাব

সিনিয়ার নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা: অপরাধ কর্মে ব্যবহারের জন্য অনুমতি ছাড়া ৪২টি কোম্পানির নামে অবৈধভাবে ৮৬৭টি গ্রামীণফোন সিম এ্যাকটিভেট করেন গ্রামীণফোনের বিজনেস ও সেলসের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ সৈয়দ তানভীরুর রহমান (৩৫)। সিমগুলো বিতরণ করেন তৌফিক হোসেন ( ৩৮)।
এর আগে শনিবার রাতে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের (র‌্যাব)-৪ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে এ দুজনকে গ্রেফতার করে।
আজ রোববার (৭ অক্টোবর ২০১৮) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানায় র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক (সিও) অতিরিক্ত ডিআইজি চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির।
চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির বলেন, ‘ গ্রামীণফোনের দুটি নাম্বার (০১৭৮৯৮২২১৮৯ ও ১৭৫৫৫৯৩২৯১) থেকে একজন শ্রীলংকান নাগরিকের কাছে ১০ কোটি টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। চাঁদার টাকা না দিলে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়!এ ঘটনায় গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ভাষানটেক থানায় ঐ বিদেশি নাগরিকি একটি জিডি করেন। পরবর্তীতে র‍্যাব-৪ এ বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করে।’
‘চাঁদা দাবি করা মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে র‍্যাব জানতে পারে, সিমটির কোন বৈধ রেজিস্ট্রেশন নেই। তৌফিক হোসেনের মালিকানাধীন মোনাডিক বাংলাদেশ নামক একটি ডিস্ট্রিবিউশন হাউজ থেকে দেওয়া হয়েছে সিমটি। যা অ্যাকটিভেট করেছেন গ্রামীণফোনের সৈয়দ তানভীরুর রহমান।’
র‍্যাবের এই কর্মকর্তা আরো জানান, ‘অনুসন্ধানে জানা যায়, মোট ৪২টি কোম্পানির অনুমতি না নিয়েই তার এই অতিরিক্ত সিম রেজিস্ট্রেশন রেছেন। কোম্পানিগুলো যদি ৫টা সিম সংগ্রহ করে, তারা অতিরিক্ত ১০টা সিম ঐ কোম্পানির নামে উঠায়।’
‘পরবর্তীতে ঐ সিম বিক্রি করে, যা দিয়ে অবৈধ হুমকি, চাঁদাবাজি ও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবহারসহ নানাবিধ অপরাধমূলক কাজ করেন অপরাধীরা।’
এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ২ জনের কাছ থেকে অবৈধ ৫৫৩ টি সিমের বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনের কাজে ব্যবহৃত একটি ল্যাপটপ ও নয়টি ট্যাব জব্দ করা হয়।
র‌্যাব-৪ সিও বলেন, ব্যক্তিগতভাবে সিম উত্তোলন করতে হলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট লাগে, সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি। কিন্তু কোনো প্রতিষ্ঠানের নামে সিম উত্তোলন করতে হলে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্টে একাধিক সিম উত্তোলন সম্ভব। সেই সুযোগটাই নিয়েছে প্রতারকচক্র। ওই সিমগুলো সাধাণত চাঁদাবাজিতে জড়িত অপরাধচক্রের হাতে পৌঁছে যেত।আর ৫০০ টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করত এই অপরাধীচক্রের সদস্যরা। র‌্যাব-৪ অধিনায়ক বলেন, আমরা গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে ভাসানটেক থানায় প্রচলিত আইনে মামলা ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ড চাইব। এই প্রতারকচক্রের সঙ্গে আরও কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,রোববার,০৭ অক্টোম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited