সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনে দেশের সবচেয়ে কম সহিংসতা হয়েছে-তথ্যমন্ত্রী

সিনিয়ার প্রতিবেদক,ঢাকা: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এম.পি বলেছেন, সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে কম সহিংসতা হয়েছে। যা বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত, ইতিহাসে বিরল। কিন্তু নিজের ব্যর্থতা ঢাকতে ড. কামাল হোসেন সংলাপ নামের ভাওতাবাজির কথা বলছেন ।
আজ শনিবার (১২ জানুয়ারি ২০১৯) সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ২য় তলার জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সংগঠনের অনুষ্ঠানে
প্রধান অতিথির বক্তব্য ড. হাছান মাহমুদ এসব কথা বলেন।
ড. হাছান মাহমুদ বিএনপির উদ্দেশে বলেন, পরাজয়ের কারণ বিশ্লেষণ করুন এবং নেতৃত্বের পরিবর্তন করলে পরে এ পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণ হবে।শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বপ্নপূরণে এগিয়ে চলেছে। তার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ অতিদরিদ্র থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত। এটি শেখ হাসিনার জাদুতে হয়েছে। একটি পক্ষ বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে না, এর প্রশংসাও করতে জানে না। তারা বাংলাদেশের গণতন্ত্র নস্যাৎ করতে চায়। মনে রাখবেন বোমাবাজি করে ত্রাস করা যায়, ভোট পাওয়া যায় না। সবার আগে বিএনপির নেতৃত্ব প্রয়োজন, তবেই জনগণ আপনাদের গ্রহণ করতে পারে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হলেও স্বাধীনতা পূর্ণতা পায়নি, শূন্যতা অনুভব করেছিলো দেশ। বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরলেই এর পূর্ণতা আসে। তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠন করে উন্নয়নের দিকে নিয়ে আসেন। কিন্তু ঘাতকরা সেই উন্নয়ন সহ্য করতে পারিনি। তারা জাতির পিতাকে হত্যা করে। তার কন্যা ক্ষমতায় এসে দরিদ্র রাষ্ট্রকে আজ মধ্যম আয়ের দেশে নিয়ে গেছেন।
হাছান মাহমুদ আরও বলেন, বিএনপি ও তাদের সহযোগী কিছু নেতার চিকিৎসা প্রয়োজন। তারা বহুল প্রশংসিত নির্বাচনে হেরে সংলাপের কথা বলছেন। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে এ ধরনের কথা বলছেন তারা। তাদের মানসিক ও শারীরিক চিকিৎসা দরকার।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হলেও স্বাধীনতা পূর্ণতা পায়নি, শূন্যতা অনুভব করেছিলো দেশ। বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরলেই এর পূর্ণতা আসে। তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠন করে উন্নয়নের দিকে নিয়ে আসেন। কিন্তু ঘাতকরা সেই উন্নয়ন সহ্য করতে পারিনি। তারা জাতির পিতাকে হত্যা করে। তার কন্যা ক্ষমতায় এসে দরিদ্র রাষ্ট্রকে আজ মধ্যম আয়ের দেশে নিয়ে গেছেন।
হাছান মাহমুদ এম.পি বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ৪১ বছরের আন্দোলন-সংগ্রামের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, আমি তথ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রথমেই এই সংগঠনের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছি। কারণ এই সংগঠনের নেতাকর্মীরা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা’র নেতৃত্বে রাজপথে থেকে প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।
জোটের স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য, খ্যাতিমান অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা’র পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, নগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, জোটের উপদেষ্টা সৈয়দ হাসান ইমাম, কার্যকরী সভাপতি অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান, জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, কন্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, সহ সভাপতি চিত্রনায়িকা ফারহানা আমিন নূতন, প্রচার সম্পাদক আক্তার হোসেন, সহ-সভাপতি রোকেয়া প্রাচী, যুগ্ম সম্পাদক অভিনেত্রী অরুনা বিশ^াস, অভিনেত্রী তারিন, কন্ঠশিল্পী এস.ডি রুবেল, চিত্রনায়িকা শাহানুর, জোটের সাংগঠনিক সম্পাদিকা টিভি উপস্থাপিকা মিসেস জেনিফার, কাজী আরিফ, মোহাম্মদ আজাদ খান, শাহ আলম, আক্তারুজ্জামান খোকা, রেহানা পারভীন, কুষ্টিয়া আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান বিটু, হাবিব উল্লাহ রিপন, বৃষ্টি রাণী সরকার প্রমুখ।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,শনিবার,১২ জানুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের সামনে ১৫৮ রানের লক্ষ্য দিয়েছে রাজশাহী কিংস

» নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগ জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে-মির্জা ফখরুল

» বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের সামনে ১৫৮ রানের লক্ষ্য দিয়েছে রাজশাহী কিংস

» বিএফডিসিতে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের দ্বিতীয় নামাযে জানাজা সম্পন্ন

» বিআরটিএ’র অনিয়ম, দুর্নীতি ও হয়রানি বরদাশত করা হবে না-ওবায়দুল কাদের

» জাতীয় নির্বাচনের নামে একটি প্রহসন হয়েছে, এ নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামী লীগ, তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে : বগুড়ায় মির্জা ফখরুল

» তাবলিগের দুপক্ষকে নিয়ে ফেব্রুয়ারিতে বিশ্ব ইজতেমা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী; একসঙ্গে বিশ্ব ইজতেমা করা হবে : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী; সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তাবলিগের দুই পক্ষের বৈঠক

» কুমিল্লার মামলায় খালেদা জিয়ার আবেদন ৪ ফেব্রুয়ারি নিষ্পত্তির নির্দেশ

» দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর ৯০০ মিটার বা প্রায় এক কিলোমিটার

» লক্ষ্মীপুরে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ট্রাকের মধ্যে সংঘর্ষে একই পরিবারের ছয়জনসহ সাতজন নিহত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনে দেশের সবচেয়ে কম সহিংসতা হয়েছে-তথ্যমন্ত্রী

সিনিয়ার প্রতিবেদক,ঢাকা: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এম.পি বলেছেন, সদ্যসমাপ্ত নির্বাচনে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে কম সহিংসতা হয়েছে। যা বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত, ইতিহাসে বিরল। কিন্তু নিজের ব্যর্থতা ঢাকতে ড. কামাল হোসেন সংলাপ নামের ভাওতাবাজির কথা বলছেন ।
আজ শনিবার (১২ জানুয়ারি ২০১৯) সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ২য় তলার জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সংগঠনের অনুষ্ঠানে
প্রধান অতিথির বক্তব্য ড. হাছান মাহমুদ এসব কথা বলেন।
ড. হাছান মাহমুদ বিএনপির উদ্দেশে বলেন, পরাজয়ের কারণ বিশ্লেষণ করুন এবং নেতৃত্বের পরিবর্তন করলে পরে এ পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণ হবে।শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বপ্নপূরণে এগিয়ে চলেছে। তার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ অতিদরিদ্র থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত। এটি শেখ হাসিনার জাদুতে হয়েছে। একটি পক্ষ বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে না, এর প্রশংসাও করতে জানে না। তারা বাংলাদেশের গণতন্ত্র নস্যাৎ করতে চায়। মনে রাখবেন বোমাবাজি করে ত্রাস করা যায়, ভোট পাওয়া যায় না। সবার আগে বিএনপির নেতৃত্ব প্রয়োজন, তবেই জনগণ আপনাদের গ্রহণ করতে পারে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হলেও স্বাধীনতা পূর্ণতা পায়নি, শূন্যতা অনুভব করেছিলো দেশ। বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরলেই এর পূর্ণতা আসে। তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠন করে উন্নয়নের দিকে নিয়ে আসেন। কিন্তু ঘাতকরা সেই উন্নয়ন সহ্য করতে পারিনি। তারা জাতির পিতাকে হত্যা করে। তার কন্যা ক্ষমতায় এসে দরিদ্র রাষ্ট্রকে আজ মধ্যম আয়ের দেশে নিয়ে গেছেন।
হাছান মাহমুদ আরও বলেন, বিএনপি ও তাদের সহযোগী কিছু নেতার চিকিৎসা প্রয়োজন। তারা বহুল প্রশংসিত নির্বাচনে হেরে সংলাপের কথা বলছেন। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে এ ধরনের কথা বলছেন তারা। তাদের মানসিক ও শারীরিক চিকিৎসা দরকার।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হলেও স্বাধীনতা পূর্ণতা পায়নি, শূন্যতা অনুভব করেছিলো দেশ। বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফিরলেই এর পূর্ণতা আসে। তিনি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠন করে উন্নয়নের দিকে নিয়ে আসেন। কিন্তু ঘাতকরা সেই উন্নয়ন সহ্য করতে পারিনি। তারা জাতির পিতাকে হত্যা করে। তার কন্যা ক্ষমতায় এসে দরিদ্র রাষ্ট্রকে আজ মধ্যম আয়ের দেশে নিয়ে গেছেন।
হাছান মাহমুদ এম.পি বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের ৪১ বছরের আন্দোলন-সংগ্রামের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, আমি তথ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রথমেই এই সংগঠনের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছি। কারণ এই সংগঠনের নেতাকর্মীরা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা’র নেতৃত্বে রাজপথে থেকে প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।
জোটের স্টিয়ারিং কমিটির সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য, খ্যাতিমান অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা’র পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, নগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, জোটের উপদেষ্টা সৈয়দ হাসান ইমাম, কার্যকরী সভাপতি অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান, জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, কন্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, সহ সভাপতি চিত্রনায়িকা ফারহানা আমিন নূতন, প্রচার সম্পাদক আক্তার হোসেন, সহ-সভাপতি রোকেয়া প্রাচী, যুগ্ম সম্পাদক অভিনেত্রী অরুনা বিশ^াস, অভিনেত্রী তারিন, কন্ঠশিল্পী এস.ডি রুবেল, চিত্রনায়িকা শাহানুর, জোটের সাংগঠনিক সম্পাদিকা টিভি উপস্থাপিকা মিসেস জেনিফার, কাজী আরিফ, মোহাম্মদ আজাদ খান, শাহ আলম, আক্তারুজ্জামান খোকা, রেহানা পারভীন, কুষ্টিয়া আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান বিটু, হাবিব উল্লাহ রিপন, বৃষ্টি রাণী সরকার প্রমুখ।
মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম,
ঢাকা,শনিবার,১২ জানুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited