সন্তানদের কবিতা পড়তে, সাহিত্য পাঠে উদ্বুদ্ধ করুন। স্মার্টফোন দেয়ার পরিবর্তে বই তুলে দিন-তথ্যমন্ত্রী

কবিতা মনের ভাব প্রকাশ করার একটি মাধ্যম। কবিতা মনের কথা বলে, সমাজের কথা বলে। কবিতা মানুষকে পরিশীলিত হবার শিক্ষা দেয়, প্রতিবাদী হতে উদ্বুদ্ধ করে। সমাজে সাম্য প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখে কবিতা। তথ্য প্রযুক্তির অবাধ প্রবাহের এই সময়ে কবিতা লেখার প্রতি আগ্রহ কমে আসছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।শনিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) কবি আবদুর রউফ ও মনজিল মুরাদ লাভলুর দুটি কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।তথ্যমন্ত্রী বলেন, কবিতা মনের ভাব প্রকাশ করার একটি মাধ্যম। কবিতা মনের কথা বলে, সমাজের কথা বলে। কবিতা মানুষকে পরিশীলিত হবার শিক্ষা দেয়, প্রতিবাদী হতে উদ্বুদ্ধ করে। সমাজে সাম্য প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখে কবিতা। তথ্য প্রযুক্তির অবাধ প্রবাহের এই সময়ে কবিতা লেখার প্রতি আগ্রহ কমে আসছে।তিনি বলেন, আজ থেকে ৩০-৪০ বছর আগেও কাগজে ছোটদের পাতা থাকতো। শিক্ষার্থীরা কবিতা লিখতো। সে কবিতা ছাপা হলে দেখতাম তাদের বাঁধভাঙা উল্লাস। সেটি এখন আর নেই। কাগজে এখন ছোটদের পাতা তেমন থাকে না, কবিতাও লেখা হয় না।শৈশবের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, আমিও ছোটবেলায় কবিতা লিখতাম। আমার অনেক কবিতা চট্টগ্রামের বিভিন্ন কাগজে ছাপা হয়েছে। আমাদের স্কুলের বার্ষিকী সংখ্যায়ও আমার কবিতা ছাপা হয়েছে। স্কুলে যখন কোনও প্রতিযোগিতা হতো, তার পুরস্কার দেয়া হতো বই। সে বই এনে বাবাকে দেখাতাম, বাবা খুশি হতেন। আমার স্কুলের শিক্ষার কারণেই আজ এ জায়গায় আসতে পেরেছি।ড. হাছান মাহমুদ আক্ষেপ করে বলেন, রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হওয়ার পর এখন আর কবিতা লেখা হয়ে ওঠে না। তবে অভিভাবকদের প্রতি আবেদন থাকবে, আপনারা সন্তানদের কবিতা পড়তে, সাহিত্য পাঠে উদ্বুদ্ধ করুন। স্মার্টফোন দেয়ার পরিবর্তে বই তুলে দিন। তাহলে আমাদের সন্তানদের যথাযথ মানসিক বিকাশ ঘটবে। এই চর্চা তাদের সাহিত্যপ্রেমী, সংস্কৃতিপ্রেমী হিসেবে গড়ে তুলবে। প্রকৃত বাঙালি হওয়ার জন্যে, বাঙালিত্ব বজায় রাখার জন্যে পাঠাভ্যাসের বিকল্প নেই।
তথ্যমন্ত্রী কবি আবদুর রউফ এর প্রশংসা করে বলেন, ছাত্রজীবন থেকে তিনি সাহিত্যপ্রেমী ছিলেন। শিক্ষকতায় নিজের অর্জিত জ্ঞান বিলিয়েছেন। তিনি দীর্ঘদিন বাম রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাদের গ্রামের বাড়িতে লাইব্রেরি দেখেছি। সেখানে অনেক কমিউনিস্ট নেতার যাতায়াত ছিল। আমি আশা করবো, তার হাত দিয়ে আরও বই প্রকাশিত হবে।মনজিল মুরাদ লাভলুর কাব্যগ্রন্থ সময়োপযোগি উল্লেখ করে তার লেখনীর ভূয়সী প্রশংসা করেন ড. হাছান মাহমুদ।সাংবাদিক আজাদ তালুকদারের সভাপতিত্বে সকাল ১১টায় তথ্যমন্ত্রীর নগরের বাসভবনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর সেকান্দর চৌধুরী, আগ্রাবাদ মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ড. আনোয়ারা আলম প্রমুখ।
চট্টগ্রাম,শনিবার,২৩ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় নিহত জায়ান চৌধুরীর লাশ মঙ্গলবার দেশে ফিরিয়ে আনা হবে

» শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০

» শ্রীলঙ্কায় নিহত আওয়ামী লীগের নেতা শেখ সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরীর লাশ ঢাকা আনা হবে আগামীকাল

» শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২০৭

» যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় আজ রোববার রাতে সারাদেশে পবিত্র শবেবরাত পালন শুরু হয়েছে।

» শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ সেলিমের নাতি শিশু জায়ান চৌধুরীর মরদেহ উদ্ধার, এখনও নিখোঁজ এক বাংলাদেশি

» সৌদি আরবের রিয়াদের একটি থানায় হামলা, নিহত ৪

» প্রধানমন্ত্রীর জাদুকরী নেতৃত্বে বাংলাদেশ বদলে গেছে-তথ্যমন্ত্রী

» বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব ফিরিয়ে আনবো

» শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক প্রকাশ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

সন্তানদের কবিতা পড়তে, সাহিত্য পাঠে উদ্বুদ্ধ করুন। স্মার্টফোন দেয়ার পরিবর্তে বই তুলে দিন-তথ্যমন্ত্রী

কবিতা মনের ভাব প্রকাশ করার একটি মাধ্যম। কবিতা মনের কথা বলে, সমাজের কথা বলে। কবিতা মানুষকে পরিশীলিত হবার শিক্ষা দেয়, প্রতিবাদী হতে উদ্বুদ্ধ করে। সমাজে সাম্য প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখে কবিতা। তথ্য প্রযুক্তির অবাধ প্রবাহের এই সময়ে কবিতা লেখার প্রতি আগ্রহ কমে আসছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।শনিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) কবি আবদুর রউফ ও মনজিল মুরাদ লাভলুর দুটি কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।তথ্যমন্ত্রী বলেন, কবিতা মনের ভাব প্রকাশ করার একটি মাধ্যম। কবিতা মনের কথা বলে, সমাজের কথা বলে। কবিতা মানুষকে পরিশীলিত হবার শিক্ষা দেয়, প্রতিবাদী হতে উদ্বুদ্ধ করে। সমাজে সাম্য প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখে কবিতা। তথ্য প্রযুক্তির অবাধ প্রবাহের এই সময়ে কবিতা লেখার প্রতি আগ্রহ কমে আসছে।তিনি বলেন, আজ থেকে ৩০-৪০ বছর আগেও কাগজে ছোটদের পাতা থাকতো। শিক্ষার্থীরা কবিতা লিখতো। সে কবিতা ছাপা হলে দেখতাম তাদের বাঁধভাঙা উল্লাস। সেটি এখন আর নেই। কাগজে এখন ছোটদের পাতা তেমন থাকে না, কবিতাও লেখা হয় না।শৈশবের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, আমিও ছোটবেলায় কবিতা লিখতাম। আমার অনেক কবিতা চট্টগ্রামের বিভিন্ন কাগজে ছাপা হয়েছে। আমাদের স্কুলের বার্ষিকী সংখ্যায়ও আমার কবিতা ছাপা হয়েছে। স্কুলে যখন কোনও প্রতিযোগিতা হতো, তার পুরস্কার দেয়া হতো বই। সে বই এনে বাবাকে দেখাতাম, বাবা খুশি হতেন। আমার স্কুলের শিক্ষার কারণেই আজ এ জায়গায় আসতে পেরেছি।ড. হাছান মাহমুদ আক্ষেপ করে বলেন, রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হওয়ার পর এখন আর কবিতা লেখা হয়ে ওঠে না। তবে অভিভাবকদের প্রতি আবেদন থাকবে, আপনারা সন্তানদের কবিতা পড়তে, সাহিত্য পাঠে উদ্বুদ্ধ করুন। স্মার্টফোন দেয়ার পরিবর্তে বই তুলে দিন। তাহলে আমাদের সন্তানদের যথাযথ মানসিক বিকাশ ঘটবে। এই চর্চা তাদের সাহিত্যপ্রেমী, সংস্কৃতিপ্রেমী হিসেবে গড়ে তুলবে। প্রকৃত বাঙালি হওয়ার জন্যে, বাঙালিত্ব বজায় রাখার জন্যে পাঠাভ্যাসের বিকল্প নেই।
তথ্যমন্ত্রী কবি আবদুর রউফ এর প্রশংসা করে বলেন, ছাত্রজীবন থেকে তিনি সাহিত্যপ্রেমী ছিলেন। শিক্ষকতায় নিজের অর্জিত জ্ঞান বিলিয়েছেন। তিনি দীর্ঘদিন বাম রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাদের গ্রামের বাড়িতে লাইব্রেরি দেখেছি। সেখানে অনেক কমিউনিস্ট নেতার যাতায়াত ছিল। আমি আশা করবো, তার হাত দিয়ে আরও বই প্রকাশিত হবে।মনজিল মুরাদ লাভলুর কাব্যগ্রন্থ সময়োপযোগি উল্লেখ করে তার লেখনীর ভূয়সী প্রশংসা করেন ড. হাছান মাহমুদ।সাংবাদিক আজাদ তালুকদারের সভাপতিত্বে সকাল ১১টায় তথ্যমন্ত্রীর নগরের বাসভবনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর সেকান্দর চৌধুরী, আগ্রাবাদ মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ড. আনোয়ারা আলম প্রমুখ।
চট্টগ্রাম,শনিবার,২৩ ফেব্রুয়ারি,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited