করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
২২৬ ২০,০৮,৮৭০ ১৯,৫১,৩২২ ২৯,৩১৩

নতুন বছর বরন করতে দেশী-বিদেশী হাজারো পর্যটক কুয়াকাটার সৈকতে

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,৩১ডিসেম্বর।। থার্টিফাস্ট নাইটকে ঘিরে সূর্যোদয় সূর্যাস্তের বেলাভূমি সাগর কন্যা কুয়াকাটার সৈকতে উৎসব মুখর পরিবেশে বিরাজ করছে। ইংরেজী পুরনো বছরকে বিদায় আর নতুন বছর বরন করতে দেশী-বিদেশী হাজারো
পর্যটক জড়ো হয়েছে সৈকতে। তীব্র শীত উপেক্ষা করে সমুদ্রের ঢেউয়েরসাথে নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছে তারা। আবাসিক সংকট ও অতিরিক্তি ভাড়া নিয়ে অনেকের অসন্তোষ থাকলেও নিরাপত্তা আর আতিথিয়তায় মুগ্ধ পর্যটকরা। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে বলে প্রশাসনের সূত্রে জানা গেছে।
বিভিন্ন দর্শনীয় স্পট ঘুরে দেখা গেছে, পর্যটকদের আগমনে সর্বত্রই উৎসবের আমেজ বইছে। আবাসিক হোটেল, খাবার হোটেল, ঝিনুকের দোকান, শুটকির দোকানসহ পর্যটনমূখী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বেচা-কেনার ধুম পড়ে গেছে। দেশী- বিদেশী পর্যটকদের আগমন সৈকতে একটি বাড়তি আকর্ষন ছিল। আনন্দের এ স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য অনেকেই নিজ নিজ ব্যবহৃত মোবাইল সেট ও ক্যামেরায় ছবি ধারণ করে রেখেছে। ঠাণ্ডা বাতাস বইলেও ওইসব পর্যটকরা সমুদ্রের ঢেউয়ের সাথে দীর্ঘ সময় ধরে
উল্লাস করে গোসল করছেন অনেকেই। এ সময় অনেককেই ছোট ছোট নৌকা নিয়ে সাগরে ভেসে বেড়াতে দেখা গেছে।
একাধিক হোটেল কর্তৃপক্ষ জানান, থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষ্যে পর্যটকদের ব্যাপক চাপ রয়েছে। আগামী দুই চার দিন এরকম চাপ থাকবে। এখনো হোটেল মোটেলগুলোতে বুকিং চলছে।
পর্যটক মো.মাইনূল ইসলাম বলেন, শহরের এক ঘেয়ে জীবন থেকে একটু পরিত্রান পেতে স্বপরিবারে কুয়াকাটায় এসেছি। এখানে প্রকৃতির গড়া নির্মল শোভা আমাদেরকে মুগ্ধ করেছে। বিশেষ করে রাখাইন বৌদ্ধ মন্দির, রাখাইন মার্কেট ও তাদের জীবনযাত্রা, এখানে ভেসে আসা পুরানো নৌকা,গঙ্গামতির লেক, টেংরা গিরির বন ও ফাতরার বনাঞ্চলসহ বেশ কয়েকটি স্পট ঘুরে দেখেছি। এছাড়া শুটকি পল্লীতে জেলেদের জীবনযাত্রা ছিল ভিন্ন রকম। বছরের শেষ সূর্যদয় সাগরের মাঝখানে নিমজ্জিতও হতে দেখেছি। আশাকরি
২০২০ সালের প্রথম সূর্যোদয় দেখব। অপর এক পর্যটক মামুন-অর রসিদ বলেল,সূর্যাস্তের মনোলোভা দৃশ্য যে সমস্ত ক্লান্তি দূর করে দিয়েছে। এখানকার ছবি আমার ফেইসবুকেও আপলোড করে দিয়েছি।
কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জোনের সিনিয়র এএসপি মো.জহিরুল ইসলামবলেন, থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে কুয়াকাটায় নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিস্ট পুলিশ, জেলা পুলিশ ও মহিপুর থানা পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে মোতায়েন রয়েছে। সৈকতে পর্যটকদের চলাফেরা
নির্বিঘ্ন করতে এবং যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সার্বক্ষনিক নজরদারীতে রাখা হয়েছে। উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো.মুনিবুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন,
উশৃঙ্খল লোকজন যেন কোন ধরনের বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।
উত্তম কুমার হাওলাদার, কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী,মঙ্গলবার,৩১ ডিসেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

সর্বশেষ আপডেট



» বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ায় কুয়াকাটায় পর্যটকদের নিরাপদে থাকাতে ট্যুরিস্ট পুলিশের বার বার মাইকিং

» রাজধানীর উত্তরায় নবজাতকের জন্ম উপলক্ষ্যে চাঁদা দাবি অভিযোগে চার হিজড়াকে আটক

» দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ও গণতন্ত্র রক্ষার জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

» গলাচিপায় পানিতে ডুবেছে ঘরবাড়ি স্কুল কলেজ রাস্তা জোয়ারে তলিয়েছে নিম্নাঞ্চল

» রাঙ্গাবালীতে তেল সারের মূল্যবৃদ্ধিতে কৃষকের গলার কাঁটা

» ৪২তম বিসিএসের নন-ক্যাডারে নিয়োগের ফল প্রকাশ

» সীমান্ত প্রেসক্লাবের নতুন সভাপতি আইয়ুব পক্ষী সম্পাদক রিপন সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল

» নতুন করে আরও ২২৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত, ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

» মিসরের গিজা শহরের একটি গির্জায় আগুনে অন্তত ৪১ জনের মৃত্যু

» রাজধানীর মালিবাগ পাবনা কলোনির একটি বাসা থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ, ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নতুন বছর বরন করতে দেশী-বিদেশী হাজারো পর্যটক কুয়াকাটার সৈকতে




কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,৩১ডিসেম্বর।। থার্টিফাস্ট নাইটকে ঘিরে সূর্যোদয় সূর্যাস্তের বেলাভূমি সাগর কন্যা কুয়াকাটার সৈকতে উৎসব মুখর পরিবেশে বিরাজ করছে। ইংরেজী পুরনো বছরকে বিদায় আর নতুন বছর বরন করতে দেশী-বিদেশী হাজারো
পর্যটক জড়ো হয়েছে সৈকতে। তীব্র শীত উপেক্ষা করে সমুদ্রের ঢেউয়েরসাথে নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছে তারা। আবাসিক সংকট ও অতিরিক্তি ভাড়া নিয়ে অনেকের অসন্তোষ থাকলেও নিরাপত্তা আর আতিথিয়তায় মুগ্ধ পর্যটকরা। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে বলে প্রশাসনের সূত্রে জানা গেছে।
বিভিন্ন দর্শনীয় স্পট ঘুরে দেখা গেছে, পর্যটকদের আগমনে সর্বত্রই উৎসবের আমেজ বইছে। আবাসিক হোটেল, খাবার হোটেল, ঝিনুকের দোকান, শুটকির দোকানসহ পর্যটনমূখী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে বেচা-কেনার ধুম পড়ে গেছে। দেশী- বিদেশী পর্যটকদের আগমন সৈকতে একটি বাড়তি আকর্ষন ছিল। আনন্দের এ স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য অনেকেই নিজ নিজ ব্যবহৃত মোবাইল সেট ও ক্যামেরায় ছবি ধারণ করে রেখেছে। ঠাণ্ডা বাতাস বইলেও ওইসব পর্যটকরা সমুদ্রের ঢেউয়ের সাথে দীর্ঘ সময় ধরে
উল্লাস করে গোসল করছেন অনেকেই। এ সময় অনেককেই ছোট ছোট নৌকা নিয়ে সাগরে ভেসে বেড়াতে দেখা গেছে।
একাধিক হোটেল কর্তৃপক্ষ জানান, থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষ্যে পর্যটকদের ব্যাপক চাপ রয়েছে। আগামী দুই চার দিন এরকম চাপ থাকবে। এখনো হোটেল মোটেলগুলোতে বুকিং চলছে।
পর্যটক মো.মাইনূল ইসলাম বলেন, শহরের এক ঘেয়ে জীবন থেকে একটু পরিত্রান পেতে স্বপরিবারে কুয়াকাটায় এসেছি। এখানে প্রকৃতির গড়া নির্মল শোভা আমাদেরকে মুগ্ধ করেছে। বিশেষ করে রাখাইন বৌদ্ধ মন্দির, রাখাইন মার্কেট ও তাদের জীবনযাত্রা, এখানে ভেসে আসা পুরানো নৌকা,গঙ্গামতির লেক, টেংরা গিরির বন ও ফাতরার বনাঞ্চলসহ বেশ কয়েকটি স্পট ঘুরে দেখেছি। এছাড়া শুটকি পল্লীতে জেলেদের জীবনযাত্রা ছিল ভিন্ন রকম। বছরের শেষ সূর্যদয় সাগরের মাঝখানে নিমজ্জিতও হতে দেখেছি। আশাকরি
২০২০ সালের প্রথম সূর্যোদয় দেখব। অপর এক পর্যটক মামুন-অর রসিদ বলেল,সূর্যাস্তের মনোলোভা দৃশ্য যে সমস্ত ক্লান্তি দূর করে দিয়েছে। এখানকার ছবি আমার ফেইসবুকেও আপলোড করে দিয়েছি।
কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জোনের সিনিয়র এএসপি মো.জহিরুল ইসলামবলেন, থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে কুয়াকাটায় নিরাপত্তা ব্যাবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিস্ট পুলিশ, জেলা পুলিশ ও মহিপুর থানা পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে মোতায়েন রয়েছে। সৈকতে পর্যটকদের চলাফেরা
নির্বিঘ্ন করতে এবং যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সার্বক্ষনিক নজরদারীতে রাখা হয়েছে। উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো.মুনিবুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন,
উশৃঙ্খল লোকজন যেন কোন ধরনের বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।
উত্তম কুমার হাওলাদার, কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি,
পটুয়াখালী,মঙ্গলবার,৩১ ডিসেম্বর,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com