করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
২৬১১ ২,৫৫,১১৩ ১,৪৬,৬০৪ ৩৩৬৫

ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মৃত্যু কাছে হার মানলেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর

দীর্ঘদিন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মৃত্যু কাছে হার মানলেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর।সোমবার (০৬ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে মারা গেছেন এই খ্যাতিমান শিল্পী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।
সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরীর মহিষবাথান এলাকায় তার বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের বাড়িতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।দেশে ফেরার পর এই প্লেব্যাক সম্রাট রাজশাহী মহানগরের মহিষবাথান এলাকায় বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের বাসায় ছিলেন। তার ওই বাড়িটির একটি অংশেই রয়েছে ক্লিনিক। সেখানেই চিকিৎসা চলছিল এন্ড্রু কিশোরের।তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি ঘটায় সোমবার (০৬ জুলাই) দুপুরে বাড়িতে রেখেই তাকে অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়া হয়। কিন্তু ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধে আর টিকে থাকতে পারলেন না বাংলা গানের এই জনপ্রিয় শিল্পী।জনপ্রিয় এ কন্ঠশিল্পীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে সংস্কৃতি অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।প্রায় ১ বছর ধরে ব্লাড ক্যান্সারে ভুগছিলেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর। ৯ মাস সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে ১১ জুন দেশে ফিরেন তিনি। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ছয়টি ধাপে তাকে মোট ২৪টি কেমোথেরাপি দেয়া হয়। ক্যান্সার ছাড়াও এন্ড্রু কিশোর কিডনি ও হরমোনজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।
সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নিয়ে গত ২০ জুন রাজশাহীতে বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের নগরীর মহিষবাথান এলাকার বাসায় ওঠেন এন্ড্রু কিশোর। বোন ও দুলাভাই দুজনই চিকিৎসক হওয়ায় তাদের তত্ত্বাবধানেই চিকিৎসা ছিলেন এন্ড্রু কিশোর।এন্ড্রু কিশোর সংসার জীবনে স্ত্রী লিপিকা এন্ড্রু এবং সজ্ঞা (২৬) নামে এক মেয়ে  ও সপ্তক (২৪) নামে এক পুত্র সন্তান রেখে গেছেন। তার দুজনই বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াতে পড়াশোনা করছেন। সজ্ঞার পড়াশোনা প্রায় শেষের দিকে।
সঙ্গীত জীবনের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে এন্ড্রু কিশোর আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন। ১৯৫৫ সালের ৪ঠা নভেম্বর রাজশাহীতে জন্মগ্রহণ করেন এন্ড্রু কিশোর। তার সংগীত জীবনের পাঠ শুরু হয় রাজশাহীর আবদুল আজিজ বাচ্চুর কাছে। একসময় গানের নেশায় রাজধানীতে ছুটে আসেন। মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি রবীন্দ্রসংগীত, নজরুলসংগীত, আধুনিক গান, লোকগান ও দেশাত্মবোধক গানে রেডিওর তালিকাভুক্ত শিল্পী হন।
১৯৭৭ সালে আলম খানের সুরে মেইল ট্রেন চলচ্চিত্রে ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তাঁর কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে এন্ড্রু কিশোর চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক শুরু করেন। এরপর বাঙালি গানের শ্রোতাদের একে একে উপহার দেন অসংখ্য কালজয়ী গান।
তার জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে- জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প, হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস, ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে, আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি, আমার বুকের মধ্যে খানে, আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন শুনেছিলাম গান, ভেঙেছে পিঞ্জর মেলেছে ডানা, সবাইতো ভালোবাসা চায়, বেদের মেয়ে জোসনা আমায় কথা দিয়েছে, তুমি আমার জীবন আমি তোমার জীবন, ভালো আছি ভালো থেকো, তুমি মোর জীবনের ভাবনা, চোখ যে মনের কথা বলে, পড়েনা চোখের পলক, পদ্মপাতার পানি, ওগো বিদেশিনী, তুমি মোর জীবনের ভাবনা, আমি চিরকাল প্রেমের কাঙাল ইত্যাদি।
বিনোধন ডেস্ক: সোমবার,০৬ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» কলাপাড়ায় বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকীতে ৬ নারীর মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ

» বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে পুলিশের লাঠিচার্জ

» একাদশ শ্রেণিতে অনলাইন ভর্তির কার্যক্রম শুরু হচ্ছে রোববার

» ময়মনসিংহের যাত্রীবাহী একটি বাসের ধাক্কায় সিএনজি চালিত অটোরিকশার ৭ আরোহী নিহত

» ময়মনিসংহের মুক্তাগাছা উপজেলায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংর্ঘষে সাতজন নিহত

» বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে আন্দোলন সংগ্রামে প্রেরণা যুগিয়েছেন বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব

» নতুন করে আরও ২৬১১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত,মৃত্যু ৩২ জন

» টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ডোবা থেকে দুই যুবকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

» চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জ বাজার এলাকায় বাসের ধাক্কায় ছয়জনের মৃত্যু

» শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বনানী কবরস্থানে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ শনিবার, ৮ আগস্ট ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মৃত্যু কাছে হার মানলেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

দীর্ঘদিন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে মৃত্যু কাছে হার মানলেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর।সোমবার (০৬ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে মারা গেছেন এই খ্যাতিমান শিল্পী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।
সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরীর মহিষবাথান এলাকায় তার বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের বাড়িতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।দেশে ফেরার পর এই প্লেব্যাক সম্রাট রাজশাহী মহানগরের মহিষবাথান এলাকায় বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের বাসায় ছিলেন। তার ওই বাড়িটির একটি অংশেই রয়েছে ক্লিনিক। সেখানেই চিকিৎসা চলছিল এন্ড্রু কিশোরের।তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি ঘটায় সোমবার (০৬ জুলাই) দুপুরে বাড়িতে রেখেই তাকে অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়া হয়। কিন্তু ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধে আর টিকে থাকতে পারলেন না বাংলা গানের এই জনপ্রিয় শিল্পী।জনপ্রিয় এ কন্ঠশিল্পীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে সংস্কৃতি অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।প্রায় ১ বছর ধরে ব্লাড ক্যান্সারে ভুগছিলেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর। ৯ মাস সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে ১১ জুন দেশে ফিরেন তিনি। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ছয়টি ধাপে তাকে মোট ২৪টি কেমোথেরাপি দেয়া হয়। ক্যান্সার ছাড়াও এন্ড্রু কিশোর কিডনি ও হরমোনজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।
সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নিয়ে গত ২০ জুন রাজশাহীতে বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের নগরীর মহিষবাথান এলাকার বাসায় ওঠেন এন্ড্রু কিশোর। বোন ও দুলাভাই দুজনই চিকিৎসক হওয়ায় তাদের তত্ত্বাবধানেই চিকিৎসা ছিলেন এন্ড্রু কিশোর।এন্ড্রু কিশোর সংসার জীবনে স্ত্রী লিপিকা এন্ড্রু এবং সজ্ঞা (২৬) নামে এক মেয়ে  ও সপ্তক (২৪) নামে এক পুত্র সন্তান রেখে গেছেন। তার দুজনই বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াতে পড়াশোনা করছেন। সজ্ঞার পড়াশোনা প্রায় শেষের দিকে।
সঙ্গীত জীবনের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে এন্ড্রু কিশোর আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন। ১৯৫৫ সালের ৪ঠা নভেম্বর রাজশাহীতে জন্মগ্রহণ করেন এন্ড্রু কিশোর। তার সংগীত জীবনের পাঠ শুরু হয় রাজশাহীর আবদুল আজিজ বাচ্চুর কাছে। একসময় গানের নেশায় রাজধানীতে ছুটে আসেন। মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি রবীন্দ্রসংগীত, নজরুলসংগীত, আধুনিক গান, লোকগান ও দেশাত্মবোধক গানে রেডিওর তালিকাভুক্ত শিল্পী হন।
১৯৭৭ সালে আলম খানের সুরে মেইল ট্রেন চলচ্চিত্রে ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তাঁর কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে এন্ড্রু কিশোর চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক শুরু করেন। এরপর বাঙালি গানের শ্রোতাদের একে একে উপহার দেন অসংখ্য কালজয়ী গান।
তার জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে- জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প, হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস, ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে, আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি, আমার বুকের মধ্যে খানে, আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন শুনেছিলাম গান, ভেঙেছে পিঞ্জর মেলেছে ডানা, সবাইতো ভালোবাসা চায়, বেদের মেয়ে জোসনা আমায় কথা দিয়েছে, তুমি আমার জীবন আমি তোমার জীবন, ভালো আছি ভালো থেকো, তুমি মোর জীবনের ভাবনা, চোখ যে মনের কথা বলে, পড়েনা চোখের পলক, পদ্মপাতার পানি, ওগো বিদেশিনী, তুমি মোর জীবনের ভাবনা, আমি চিরকাল প্রেমের কাঙাল ইত্যাদি।
বিনোধন ডেস্ক: সোমবার,০৬ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

Translate »