করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
১৮৬২ ১৫,৩৮,২০৩ ১৪,৯৪,০৯০ ২৭,১০৯

রাজধানীর ভাটারায় জালনোট তৈরির কারখানায় অভিযান,টাকা বানাচ্ছে স্বামী-স্ত্রী

রাজধানীর ভাটারা থানাধীন নুরেরচালার সাঈদনগর এলাকায় জালনোট প্রস্তুতকারী একটি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিএমপি গোয়েন্দা গুলশান বিভাগ। সোমবার (১২ জুলাই) সকাল ১০টা থেকে ওই কারখানায় অভিযান শুরু হয়। স্বামী স্ত্রী মিলে দুইটি পিন্টার দিয়েই তৈরি করতো পাঁচশ এবং এক হাজার নোটের লাখ লাখ টাকা।
সকালে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ৪৩ লাখ টাকাসহ জাল টাকা সরঞ্জামাদি উদ্ধার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এসময় গ্রেপ্তার করা হয় পাঁচজনকে।অভাব আর লোকে পড়ে বরিশালে জাল টাকার প্রশিক্ষণ নেয় রহিম। পরে স্ত্রীসহ শুরু করে এ কাজ। সন্তানদের গ্রামের বাড়িতে রেখে ঢাকায় তারা এ কাজ করছিলো এক বছর ধরে। এর আগেও একই অভিযোগে জেল খেটেছে তারা। মুক্তি পেয়ে আবারো একই কাজ করতে থাকেন স্বামী-স্ত্রীর।
জাল টাকা প্রস্তুতকারী ফাতেমা জানায়,’এক বছর ধরে এই কাজ করি। এর আগে আমি একটা মামলা খেয়েছি। অনেক টাকার দেনা ছিলাম। সেই টাকা শোধ করার জন্য করেছিলাম।’

আটকের পর রহিম জানায়, দুইটি প্রিন্টার দিয়েই প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা তৈরি করতো তারা। এসময় জাল টাকা তৈরির বিভিন্ন তথ্য জানায় রহিম। জাল টাকা প্রস্তুতকারী রহিম জানায়,’এক হাজার টাকার বান্ডিল আমার কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকায় নেয়। এরপরের হাতের কাছে তারা বিক্রি করে ১৮ থেকে ২০ হাজার টাকায়। এরপরের হাত ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। তারপর তারা দোকানে দোকানে দেয়।’

এদিকে, জাল টাকা কিনতে আসা আরো দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জাল টাকার ক্রেতা আনোয়ার বলেন,’আমরা একলাখ টাকার প্যাকেট ১৫/১৬ হাজার টাকায় কিনে নিতাম। এরপর আমরা একপিস একপিস করে বিভিন্ন দোকানে ভাঙ্গাতাম।’

পুলিশ দাবি করছে, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে সারাদেশে সক্রিয় হয়ে উঠে জাল টাকা প্রস্তুতকারী ও কেনাবেচাকারীরা। মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ অতিরিক্ত কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার জানান,’ঈদুল আযহা আসলে তারা জাল টাকা উৎপাদনের কাজ শুরু করে দেয় বলে প্রাথমিকভাবে তারা জানায়। কোরবানির সময় যেহেতু প্রচুর টাকার ক্রয় বিক্রয় হয়, তাই এই সময়টাতেই তারা জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়।’
ঢাকা,সোমবার,১২ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

সর্বশেষ আপডেট



» নতুন করে আরও ১৩৮৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত,মৃত্যু ৪৩ জন

» ফোনে আড়িপাতা বন্ধে করা রিটের আদেশ ২৯শে সেপ্টেম্বর

» সাবেক ডিআইজি প্রিজন্স পার্থগোপাল বণিকেকে আত্মসমর্পণের পর কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত

» ইভ্যালির রাসেল দম্পতির বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় আরেক মামলা

» সাংবাদিকদের ব্যাংক হিসাব তলবের প্রতিবাদে জাতীয় প্রেসক্লাবে সমাবেশ

» বিএনপির ৩৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ২১শে নভেম্বর

» খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরও ছয় মাস বাড়ানো হয়েছে

» বান্দরবানে দর্শনার্থীদের জিপকে লক্ষ্য করে গুলি সন্ত্রাসীদের গুলি, আহত ২

» নতুন করে আরও ১১৯০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত,মৃত্যু ৩৫ জন

» ১২ থেকে ১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রাজধানীর ভাটারায় জালনোট তৈরির কারখানায় অভিযান,টাকা বানাচ্ছে স্বামী-স্ত্রী




রাজধানীর ভাটারা থানাধীন নুরেরচালার সাঈদনগর এলাকায় জালনোট প্রস্তুতকারী একটি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিএমপি গোয়েন্দা গুলশান বিভাগ। সোমবার (১২ জুলাই) সকাল ১০টা থেকে ওই কারখানায় অভিযান শুরু হয়। স্বামী স্ত্রী মিলে দুইটি পিন্টার দিয়েই তৈরি করতো পাঁচশ এবং এক হাজার নোটের লাখ লাখ টাকা।
সকালে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ৪৩ লাখ টাকাসহ জাল টাকা সরঞ্জামাদি উদ্ধার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এসময় গ্রেপ্তার করা হয় পাঁচজনকে।অভাব আর লোকে পড়ে বরিশালে জাল টাকার প্রশিক্ষণ নেয় রহিম। পরে স্ত্রীসহ শুরু করে এ কাজ। সন্তানদের গ্রামের বাড়িতে রেখে ঢাকায় তারা এ কাজ করছিলো এক বছর ধরে। এর আগেও একই অভিযোগে জেল খেটেছে তারা। মুক্তি পেয়ে আবারো একই কাজ করতে থাকেন স্বামী-স্ত্রীর।
জাল টাকা প্রস্তুতকারী ফাতেমা জানায়,’এক বছর ধরে এই কাজ করি। এর আগে আমি একটা মামলা খেয়েছি। অনেক টাকার দেনা ছিলাম। সেই টাকা শোধ করার জন্য করেছিলাম।’

আটকের পর রহিম জানায়, দুইটি প্রিন্টার দিয়েই প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা তৈরি করতো তারা। এসময় জাল টাকা তৈরির বিভিন্ন তথ্য জানায় রহিম। জাল টাকা প্রস্তুতকারী রহিম জানায়,’এক হাজার টাকার বান্ডিল আমার কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকায় নেয়। এরপরের হাতের কাছে তারা বিক্রি করে ১৮ থেকে ২০ হাজার টাকায়। এরপরের হাত ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। তারপর তারা দোকানে দোকানে দেয়।’

এদিকে, জাল টাকা কিনতে আসা আরো দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জাল টাকার ক্রেতা আনোয়ার বলেন,’আমরা একলাখ টাকার প্যাকেট ১৫/১৬ হাজার টাকায় কিনে নিতাম। এরপর আমরা একপিস একপিস করে বিভিন্ন দোকানে ভাঙ্গাতাম।’

পুলিশ দাবি করছে, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে সারাদেশে সক্রিয় হয়ে উঠে জাল টাকা প্রস্তুতকারী ও কেনাবেচাকারীরা। মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ অতিরিক্ত কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার জানান,’ঈদুল আযহা আসলে তারা জাল টাকা উৎপাদনের কাজ শুরু করে দেয় বলে প্রাথমিকভাবে তারা জানায়। কোরবানির সময় যেহেতু প্রচুর টাকার ক্রয় বিক্রয় হয়, তাই এই সময়টাতেই তারা জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়।’
ঢাকা,সোমবার,১২ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
প্রধান নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Hbnews24 || Phone: +8801714043198, email: hbnews24@gmail.com