করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
২১৮৩ ১৯,৭৩,৭৮৫ ১৯,০৭,৫০৯ ২৯,১৪৯

সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি,বন্যার্তদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী কাজ করছে

সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। উজানের ঢল আর টানা বৃষ্টিতে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত আছে। প্রশাসনের অনুরোধে সিলেটে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।

বানের পানি ঢুকেছে সিলেট শহরেও। তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট। পানি ঢুকেছে বাড়িঘরেও। চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে বাসিন্দাদের। কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাটের বিস্তীর্ণ এলাকা তলিয়ে রয়েছে বানের জলে। সিলেট সদরের সাথে এই দুই উপজেলার সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। আশ্রয় কেন্দ্রে ছুটছে বানভাসি মানুষ। নগরীতে ৩৬টিসহ জেলায় মোট ৪৭৩টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। সাবস্টেশনে পানি ওঠায় দক্ষিণ সুরমা, কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাটে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনোয়ার সাদাত এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বানভাসি মানুষকে উদ্ধারে সেনাবাহিনী সকাল থেকে কাজ শুরু করেছে। পানি যেভাবে বাড়ছে, তাতে দুশ্চিন্তা আরও বেড়ে গেছে। আমাদের প্রথম কাজ হচ্ছে- বানভাসি মানুষকে উদ্ধার করা। বন্যাকবলিত এলাকায় আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করতে জেলা প্রশাসন সেনাবাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছিল। এরই মধ্যে তারা উদ্ধার কাজে নেমে পড়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিলেটে দ্বিতীয় দফা বন্যায় নগরীসহ ১৩টি উপজেলার সবক’টি এলাকা তলিয়ে গেছে।
সিলেট,শুক্রবার ১৭ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

সর্বশেষ আপডেট



» এক্সপ্রেসওয়েতে টোল আদায় শুরু

» হলি আর্টিজান হামলার ষষ্ঠ বার্ষিকী উপলক্ষে দীপ্ত শপথ ভাস্কর্যে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন র‍্যাব ডিজি

» রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় পৃথক দুই জায়গায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

» হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা

» আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু

» Cougars Looking For Young – Casual Cougar dating

» ২০২২-২৩ অর্থ বছরের জন্য ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার বাজেট পাস

» আগামী ১০ জুলাই, রোববার দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে

» সাভারের আশুলিয়ায় শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা: জিতুর ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

» নতুন করে আরও ২১৮৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত, চার জনের মৃত্যু হয়েছে।

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

ফোন:+88 01714043198

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ, ১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি,বন্যার্তদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী কাজ করছে




সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। উজানের ঢল আর টানা বৃষ্টিতে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত আছে। প্রশাসনের অনুরোধে সিলেটে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।

বানের পানি ঢুকেছে সিলেট শহরেও। তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট। পানি ঢুকেছে বাড়িঘরেও। চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে বাসিন্দাদের। কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাটের বিস্তীর্ণ এলাকা তলিয়ে রয়েছে বানের জলে। সিলেট সদরের সাথে এই দুই উপজেলার সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। আশ্রয় কেন্দ্রে ছুটছে বানভাসি মানুষ। নগরীতে ৩৬টিসহ জেলায় মোট ৪৭৩টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। সাবস্টেশনে পানি ওঠায় দক্ষিণ সুরমা, কোম্পানীগঞ্জ ও গোয়াইনঘাটে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনোয়ার সাদাত এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বানভাসি মানুষকে উদ্ধারে সেনাবাহিনী সকাল থেকে কাজ শুরু করেছে। পানি যেভাবে বাড়ছে, তাতে দুশ্চিন্তা আরও বেড়ে গেছে। আমাদের প্রথম কাজ হচ্ছে- বানভাসি মানুষকে উদ্ধার করা। বন্যাকবলিত এলাকায় আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করতে জেলা প্রশাসন সেনাবাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছিল। এরই মধ্যে তারা উদ্ধার কাজে নেমে পড়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিলেটে দ্বিতীয় দফা বন্যায় নগরীসহ ১৩টি উপজেলার সবক’টি এলাকা তলিয়ে গেছে।
সিলেট,শুক্রবার ১৭ জুন,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

ফোন:+88 01714043198

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

© Hbnews24 || Phone: +8801714043198, email: hbnews24@gmail.com