করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
২৫৯ ২০,০৯,১২৯ ১৯,৫১,৭৩৭ ২৯,৩১৪

কলা পুষ্টিগুণে ভরপুর স্বাস্থ্যের জন্য ভালো তাই রয়েছে খাবার নির্দিষ্ট সময়

কলা পুষ্টিগুণে ভরপুর। তাই স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ভালো। প্রতিদিনের ডায়েটে কলা খাওয়ার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা। তবে এটা অনেকেই জানেন না, কলা খাওয়ার সঠিক সময় আছে। এমনই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাহলে বর্ষাকালে কি কলা খাওয়া উচিত? দেখে নেওয়া যাক এই বিষয়ে পুষ্টিবিদ এবং বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন।

বর্ষা এবং কলা: গ্রীষ্মের প্রখর দাবদাহ থেকে মুক্তি পেতে বর্ষার দিকেই তাকিয়ে থাকে সবাই। কিন্তু এই সময় বৃষ্টির সঙ্গে জলবাহিত এবং বায়ুবাহিত রোগের বাড়বাড়ন্ত হয়। তাই খাবারদাবারে বিশেষ নজর দিতে হয়। যাদের নিয়মিত কলা খাওয়ার অভ্যাস আছে, এই প্রতিবেদন তাঁদের জন্য। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্ষায় কলা খাওয়া নিরাপদ। এর স্বাস্থ্য উপকারিতাও অনেক। তবে কোন সময় খাওয়া হচ্ছে, সেটা গেম চেঞ্জার হতে পারে।

কলা খাওয়ার সময় সতর্কতা অবলম্বন: অ্যামাইনো অ্যাসিড, ভিটামিন বি৬, সি, ফাইবার, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজের গুণাগুণে ভরপুর কলা প্রতিদিন একটা করে খেলে স্বাস্থ্যকর শরীর নিশ্চিত। এটা মস্তিষ্কের কার্যকরিতা বাড়ায়, কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যবৃদ্ধিতে সাহায্য করে এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। তবে ভুল সময়ে কলা খেলে বা ভুল খাবারের সঙ্গে খেলে এটা উপকারের চেয়ে বেশি ক্ষতি করে। আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, যে কোনও ঋতুতে কলা খাওয়া যায়, তবে সন্ধ্যায় বা রাতে খালি পেটে কলা খেলে স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

কাদের, কখন কলা খাওয়া উচিত নয়: যারা বদহজম, কাশি বা হাঁপানিতে ভুগছেন তাদের অবশ্যই রাতে কলা খাওয়া উচিত নয়। এটা কফ দোষকে বাড়িয়ে দেয়। শরীরে শ্লেষ্মা তৈরি হয়। তাই দিনে কলা খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয় যাতে শরীর এই ফলের প্রোটিন এবং ফাইবার হজম করার পর্যাপ্ত সময় পায়।

খালি পেটে কি কলা খাওয়া যায়: খালি পেটে কলা খেতে নিষেধ করা হয়। কারণ অ্যাসিড রিফ্লাক্স বাড়তে পারে এবং ভিটামিন সি থাকার কারণে হাইপার অ্যাসিডিটি হতে পারে। এছাড়াও, এই ফলের মধ্যে পটাসিয়ামের উপস্থিতি উচ্চ রক্তচাপ এবং হৃদরোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ করে তোলে। সকাল বা বিকেলে জলখাবারে কলা খাওয়ার সেরা সময়।

এইসব খাবারের সঙ্গে কলা নয়: আয়ুর্বেদ অনুসারে, দুধ বা দুধ ভিত্তিক খাবারের সঙ্গে কলা খাওয়া বিষের মতো। এই দুটো খাবার একসঙ্গে পেটে গেলে পাচনতন্ত্র দুর্বল হয়ে পড়ে। বদহজম এবং অ্যাসিড রিফ্লাক্সের সম্ভাবনাও বাড়ে।

পরিশেষে: বর্ষায় জ্বর, সর্দি, কাশি, ফ্লু এবং হজমের সমস্যা বেশি হয়। সুতরাং, ভুল কম্বিনেশন খাওয়া বা ভুল সময়ে কলা খাওয়া সত্যিই শরীরের বিপাক এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে প্রভাবিত করতে পারে।

সর্বশেষ আপডেট



» নতুন করে আরও ২৫৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত, ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

» কলাপাড়ায় জাতীয় শোক দিবস পালিত।। দুস্থ, অসহায় প্রতিবন্ধীদের মাঝে খাবার বিতরণ

» আমতলীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

» রাজধানীর উত্তরায় ক্রেন থেকে গার্ডার পড়ে প্রাইভেটকারে থাকা ৩ জন যাত্রী নিহত

» রাজধানীর চকবাজারে পলিথিন কারখানায় লাগা আগুনে ছয়জনের মরদেহ উদ্ধার

» রাজধানীর চকবাজারে পলিথিন কারখানায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

» জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাড্ডা ২১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের খাবার বিতরন

» মাধবদী তে বঙ্গবন্ধুর ৪৭তমসাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত।

» ঢাকা -১৬ আসনসহ রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে অসহায় ও সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ

» রাজধানীর চকবাজারে পলিথিন কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কলা পুষ্টিগুণে ভরপুর স্বাস্থ্যের জন্য ভালো তাই রয়েছে খাবার নির্দিষ্ট সময়




কলা পুষ্টিগুণে ভরপুর। তাই স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ভালো। প্রতিদিনের ডায়েটে কলা খাওয়ার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা। তবে এটা অনেকেই জানেন না, কলা খাওয়ার সঠিক সময় আছে। এমনই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাহলে বর্ষাকালে কি কলা খাওয়া উচিত? দেখে নেওয়া যাক এই বিষয়ে পুষ্টিবিদ এবং বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন।

বর্ষা এবং কলা: গ্রীষ্মের প্রখর দাবদাহ থেকে মুক্তি পেতে বর্ষার দিকেই তাকিয়ে থাকে সবাই। কিন্তু এই সময় বৃষ্টির সঙ্গে জলবাহিত এবং বায়ুবাহিত রোগের বাড়বাড়ন্ত হয়। তাই খাবারদাবারে বিশেষ নজর দিতে হয়। যাদের নিয়মিত কলা খাওয়ার অভ্যাস আছে, এই প্রতিবেদন তাঁদের জন্য। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্ষায় কলা খাওয়া নিরাপদ। এর স্বাস্থ্য উপকারিতাও অনেক। তবে কোন সময় খাওয়া হচ্ছে, সেটা গেম চেঞ্জার হতে পারে।

কলা খাওয়ার সময় সতর্কতা অবলম্বন: অ্যামাইনো অ্যাসিড, ভিটামিন বি৬, সি, ফাইবার, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজের গুণাগুণে ভরপুর কলা প্রতিদিন একটা করে খেলে স্বাস্থ্যকর শরীর নিশ্চিত। এটা মস্তিষ্কের কার্যকরিতা বাড়ায়, কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যবৃদ্ধিতে সাহায্য করে এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। তবে ভুল সময়ে কলা খেলে বা ভুল খাবারের সঙ্গে খেলে এটা উপকারের চেয়ে বেশি ক্ষতি করে। আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, যে কোনও ঋতুতে কলা খাওয়া যায়, তবে সন্ধ্যায় বা রাতে খালি পেটে কলা খেলে স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

কাদের, কখন কলা খাওয়া উচিত নয়: যারা বদহজম, কাশি বা হাঁপানিতে ভুগছেন তাদের অবশ্যই রাতে কলা খাওয়া উচিত নয়। এটা কফ দোষকে বাড়িয়ে দেয়। শরীরে শ্লেষ্মা তৈরি হয়। তাই দিনে কলা খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয় যাতে শরীর এই ফলের প্রোটিন এবং ফাইবার হজম করার পর্যাপ্ত সময় পায়।

খালি পেটে কি কলা খাওয়া যায়: খালি পেটে কলা খেতে নিষেধ করা হয়। কারণ অ্যাসিড রিফ্লাক্স বাড়তে পারে এবং ভিটামিন সি থাকার কারণে হাইপার অ্যাসিডিটি হতে পারে। এছাড়াও, এই ফলের মধ্যে পটাসিয়ামের উপস্থিতি উচ্চ রক্তচাপ এবং হৃদরোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ করে তোলে। সকাল বা বিকেলে জলখাবারে কলা খাওয়ার সেরা সময়।

এইসব খাবারের সঙ্গে কলা নয়: আয়ুর্বেদ অনুসারে, দুধ বা দুধ ভিত্তিক খাবারের সঙ্গে কলা খাওয়া বিষের মতো। এই দুটো খাবার একসঙ্গে পেটে গেলে পাচনতন্ত্র দুর্বল হয়ে পড়ে। বদহজম এবং অ্যাসিড রিফ্লাক্সের সম্ভাবনাও বাড়ে।

পরিশেষে: বর্ষায় জ্বর, সর্দি, কাশি, ফ্লু এবং হজমের সমস্যা বেশি হয়। সুতরাং, ভুল কম্বিনেশন খাওয়া বা ভুল সময়ে কলা খাওয়া সত্যিই শরীরের বিপাক এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে প্রভাবিত করতে পারে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com