করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
২২০ ২০,০৭,১১৯ ১৯,৪৭,৩০৭ ২৯,৩০৪

ইয়াতিম অসহায়দের প্রতি মানুষের কর্তব্য

ইসলাম সব মানুষের সাথে সদাচরণের শিক্ষা দেয়। বিশেষ করে সমাজের অবহেলিত দুঃস্থ, অসহায়, ইয়াতিম এবং মজলুম মানুষের প্রতি বিত্তবানদের রয়েছে অনেক দায়িত্ব ও কর্তব্য। সব অসহায় মানুষকে দান ও সহযোগিতার প্রতি ইসলাম অধিক গুরুত্বারোপ করেছে।আল্লাহ তাআলা কুরআনুল কারিমের অনেক জায়গায় সমাজের সব অসহায় দুঃস্থ, ইয়াতিম ও মজুলম মানুষের প্রতি সদয় হওয়ার তথা যথাযথ দায়িত্ব কর্তব্য পালনের জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন। অসহায় ইয়াতিমদের হক আদায় না করা এবং মিসকিনদের খাবার না দেয়া লোকদেরকে অভিশাপ দিয়েছেন। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘তুমি কি এমন লোককে দেখেছ, যে দ্বীনকে অস্বীকার করে? সে তো ওই ব্যক্তি যে ইয়াতিমের প্রতি রূঢ় আচরণ করে তাড়িয়ে দেয় আর মিসকিনদের খাবার প্রদানে মানুষকে নিরুৎসাহিত করে।
(সুরা মাউন : আয়াত ১-৩)
ইয়াতিমদের অসহায়দের সম্মান না করার অর্থ হলো তাদের প্রাপ্য হক আদায় না করা এবং তাদের প্রয়োজনীয় ব্যয়ভার বহন না করা। তাদের দুঃখে এবং কষ্টে সহযোগিতা না করা। এ কারণে আল্লাহ তাআলা ইয়াতিম, মিসকিন, দুঃস্থ, অসহায় ও মজলুমদের প্রতি সম্মান ও সহযোগিতার প্রতি উদ্বুদ্ধ করতে কুরআনে আয়াত নাজিল করেন বলেন, ‘কখনো যেন এরূপ না হয় যে, তোমরা ইয়অতিমদের সম্মান
করা না; আর মিসকিনদের খাদ্যদানে (অন্যকে) উৎসাহিত কর না। (সুরা ফাজর: আয়াত ১৭-১৮)
যারা দুনিয়ার জীবনে ইয়াতিম, মিসকিন, দুঃস্থ, অসহায় ও বন্দিদের ওপর ইহসান করে, আল্লাহ তাআলা তাদেরকে পরকালে জান্নাত ও জান্নাতের বহু নিয়ামত প্রদানের ঘোষণা দিয়েছেন। বিশেষ করে ইয়াতিম ও মিসকিনদের সহায়তা দান জান্নাতি মানুষের স্বভাব। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘তারা দুনিয়ার জীবনে খাদ্যদ্রব্যের প্রতি নিজেদের প্রয়োজন আসক্তি থাকা সত্ত্বেও মিসকিন, ইয়াতিম ও বন্দিদের আহার প্রদান করে। (সুরা দাহর : আয়াত ৮)
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অসহায় মানুষকে সাহায্যের বিষয়ে কতটা উদার ছিলেন তা এ হাদিস থেকে বুঝা যায়। তিনি বলেছেন, ‘তুমি তোমার মুমিন ভাইকে সাহায্য কর; চাই সে জালিম হোক আর মজলুম হোক।’
সাহাবায়ে কেরাম বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞাসা কররেন, ‘জালিমকে কিভাবে সাহায্য করবো। বিশ্বনবি বললেন, ‘জালিমকে জুলম থেকে বিরত রাখাই তাকে সাহায্য করা। (বুখারি, মুসলিম ও মিশকাত)পরিশেষে…
ইসলাম যেহেতু ইয়াতিম, দুঃস্থ, অসহায়, বন্দি ও মজলুম মানুষের প্রতি সহানুভূতি দেখানোর বিশেষ তাগিদ দিয়েছেন, সেহেতু মুসলিম উম্মাহর উচিত দুনিয়ার সব অসহায় মানুষকে সহযোগিতা করা, পরস্পরকে ভালোবাসা।অন্তত কেউ যেন কোনো কারণে এ সব অসহায় মানুষকে কষ্ট না দেয়। তাদের প্রতি জুলুম-অত্যাচার না করে।
আল্লাহ তাআলা মানুষকে কল্যাণের জন্যই সৃষ্টি করেছেন। কুরআনে এসেছে, ‘তোমরা শ্রেষ্ঠ জাতি! তোমাদের আবির্ভাব হয়েছে মানুষের কল্যাণের জন্য।’ (সুরা আল-ইমরান : আয়াত ১১০)
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ইয়াতিম, মিসকিন, দুঃস্থ, অসহায়, মজুলম ও বন্দিদের ওপর সদয় হওয়ার তাওফিক দান করুন। তাদেরকে দান-অনুদান, সাহায্য-সহযোগিতা করার তাওফিক দান করুন। সব অসহায়দের সহযোগিতা করে পরকালে জান্নাতের অধিকারী হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।
মঞ্জুর আহমেদ শামিম
ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারি, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

সর্বশেষ আপডেট



» বঙ্গমাতা মুজিব থেকে বর্তমান প্রজন্মকে শিখতে হবে রাজনীতি এবং মানবিকতা ..শেখ পরশ

» বিনোদনে যোগ হচ্ছে নতুন মাত্রা।। কুয়াকাটার আকাশে উড়বে প্যারাসুট

» সংঘবদ্ধ মানব পাচারকারী চক্রের মূলহোতা আবুল হোসেনসহ চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

» বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২ তম জন্ম বার্ষিকী-উদযাপন

» দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলায় কাঁচা মরিচের চড়া দাম॥

» সাপাহারে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এঁর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন

» বিশ্বজুড়ে এই সংকটের প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশে জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়ানো হয়েছে

» মন্ত্রীর পদপর্যাদা পাচ্ছেন ঢাকার দুই মেয়র, প্রতিমন্ত্রীর পদপর্যাদা পাচ্ছেন চট্টগ্রাম-নারায়ণগঞ্জের মেয়র

» কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন গুস্তাভো পেত্র

» বঙ্গমাতা মরেননি, তিনি বেঁচে আছেন কোটি মানুষের প্রাণে

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইয়াতিম অসহায়দের প্রতি মানুষের কর্তব্য




ইসলাম সব মানুষের সাথে সদাচরণের শিক্ষা দেয়। বিশেষ করে সমাজের অবহেলিত দুঃস্থ, অসহায়, ইয়াতিম এবং মজলুম মানুষের প্রতি বিত্তবানদের রয়েছে অনেক দায়িত্ব ও কর্তব্য। সব অসহায় মানুষকে দান ও সহযোগিতার প্রতি ইসলাম অধিক গুরুত্বারোপ করেছে।আল্লাহ তাআলা কুরআনুল কারিমের অনেক জায়গায় সমাজের সব অসহায় দুঃস্থ, ইয়াতিম ও মজুলম মানুষের প্রতি সদয় হওয়ার তথা যথাযথ দায়িত্ব কর্তব্য পালনের জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন। অসহায় ইয়াতিমদের হক আদায় না করা এবং মিসকিনদের খাবার না দেয়া লোকদেরকে অভিশাপ দিয়েছেন। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘তুমি কি এমন লোককে দেখেছ, যে দ্বীনকে অস্বীকার করে? সে তো ওই ব্যক্তি যে ইয়াতিমের প্রতি রূঢ় আচরণ করে তাড়িয়ে দেয় আর মিসকিনদের খাবার প্রদানে মানুষকে নিরুৎসাহিত করে।
(সুরা মাউন : আয়াত ১-৩)
ইয়াতিমদের অসহায়দের সম্মান না করার অর্থ হলো তাদের প্রাপ্য হক আদায় না করা এবং তাদের প্রয়োজনীয় ব্যয়ভার বহন না করা। তাদের দুঃখে এবং কষ্টে সহযোগিতা না করা। এ কারণে আল্লাহ তাআলা ইয়াতিম, মিসকিন, দুঃস্থ, অসহায় ও মজলুমদের প্রতি সম্মান ও সহযোগিতার প্রতি উদ্বুদ্ধ করতে কুরআনে আয়াত নাজিল করেন বলেন, ‘কখনো যেন এরূপ না হয় যে, তোমরা ইয়অতিমদের সম্মান
করা না; আর মিসকিনদের খাদ্যদানে (অন্যকে) উৎসাহিত কর না। (সুরা ফাজর: আয়াত ১৭-১৮)
যারা দুনিয়ার জীবনে ইয়াতিম, মিসকিন, দুঃস্থ, অসহায় ও বন্দিদের ওপর ইহসান করে, আল্লাহ তাআলা তাদেরকে পরকালে জান্নাত ও জান্নাতের বহু নিয়ামত প্রদানের ঘোষণা দিয়েছেন। বিশেষ করে ইয়াতিম ও মিসকিনদের সহায়তা দান জান্নাতি মানুষের স্বভাব। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘তারা দুনিয়ার জীবনে খাদ্যদ্রব্যের প্রতি নিজেদের প্রয়োজন আসক্তি থাকা সত্ত্বেও মিসকিন, ইয়াতিম ও বন্দিদের আহার প্রদান করে। (সুরা দাহর : আয়াত ৮)
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অসহায় মানুষকে সাহায্যের বিষয়ে কতটা উদার ছিলেন তা এ হাদিস থেকে বুঝা যায়। তিনি বলেছেন, ‘তুমি তোমার মুমিন ভাইকে সাহায্য কর; চাই সে জালিম হোক আর মজলুম হোক।’
সাহাবায়ে কেরাম বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞাসা কররেন, ‘জালিমকে কিভাবে সাহায্য করবো। বিশ্বনবি বললেন, ‘জালিমকে জুলম থেকে বিরত রাখাই তাকে সাহায্য করা। (বুখারি, মুসলিম ও মিশকাত)পরিশেষে…
ইসলাম যেহেতু ইয়াতিম, দুঃস্থ, অসহায়, বন্দি ও মজলুম মানুষের প্রতি সহানুভূতি দেখানোর বিশেষ তাগিদ দিয়েছেন, সেহেতু মুসলিম উম্মাহর উচিত দুনিয়ার সব অসহায় মানুষকে সহযোগিতা করা, পরস্পরকে ভালোবাসা।অন্তত কেউ যেন কোনো কারণে এ সব অসহায় মানুষকে কষ্ট না দেয়। তাদের প্রতি জুলুম-অত্যাচার না করে।
আল্লাহ তাআলা মানুষকে কল্যাণের জন্যই সৃষ্টি করেছেন। কুরআনে এসেছে, ‘তোমরা শ্রেষ্ঠ জাতি! তোমাদের আবির্ভাব হয়েছে মানুষের কল্যাণের জন্য।’ (সুরা আল-ইমরান : আয়াত ১১০)
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ইয়াতিম, মিসকিন, দুঃস্থ, অসহায়, মজুলম ও বন্দিদের ওপর সদয় হওয়ার তাওফিক দান করুন। তাদেরকে দান-অনুদান, সাহায্য-সহযোগিতা করার তাওফিক দান করুন। সব অসহায়দের সহযোগিতা করে পরকালে জান্নাতের অধিকারী হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।
মঞ্জুর আহমেদ শামিম
ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারি, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com