করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলাদেশে

নতুন আক্রান্ত মোট আক্রান্ত সুস্থ মৃত্যু
৭৩৭ ২০,২৩,১৪৫ ১৯,৬৩,৭১৯ ২৯,৩৬০

কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল

ঈদের ছুটিতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল নেমেছে। কোথাও তিল
ধারনের ঠাঁই নাই। দুরদুরান্ত থেকে ছুটে আসা ভ্রমন পিপাসু পর্যটকদের উম্মাদনায় পুরো সৈকত আনন্দময় পরিবেশ বিরাজ করছে। নানা বয়সি পর্যটকদের আগমনে রাখাইন মার্কেট, ঝিনুকের দোকান, খাবারঘর, চটপটির দোকানসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলোতে কেনাকাটার ধুম পরেছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে হোটেল মোটেল গুলোতে পর্যটকরা উঠতে শুরু করেছে। কুয়াকাটা সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকায় ওইসব পর্যটকরা মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ছোট খাটো পরিরহ নিয়ে জড়ো হয়েছে বলে সেখানকার ব্যবসায়িরা জানিয়েছেন।
স্থানীয়রা জানান, সৈকত লাঘোয়া নারিকেল বাগান, ইকোপার্ক, ইলিশপার্ক, জাতীয় উদ্যান, শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধ বিহার, সীমা বৌদ্ধ বিহার, সুন্দরবনের পূর্বাঞ্চল খ্যাত ফাতরার বনাঞ্চল, ফকির হাট, গঙ্গামতি, কাউয়ার চর, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী ও কুয়াকাটার জিরো পয়েন্টে শিশু কিশোর যুবক যুবতীসহ নানা বয়সী পর্যটকদের পদচারনায় এখন মুখরিত হয়ে উঠেছে। এদিকে পর্যটক ও দর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় বিভিন্ন পয়েন্টে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক টহল রয়েছে। ঈদের ছুটিতে ঢাকা থেকে ভ্রমনে আসা শিক্ষার্থী বাহউদ্দিন জানান, ঈদ মানেই আনন্দ। ঈদ মানেই খুশি। তাই এ আনন্দকে ভাগা ভাগি করতে বন্ধুদের নিয়ে
এখানে এসেছি। কুয়াকাটার সৈকতের অপরূপ দৃশ্য দেখে অসাধারন লেগেছে। অপর এক শিক্ষার্থী জান্নাতুর আয়েশা জানান, লোখাপাড়ার চাপে এখান কোথাও বেড়াতে যাওয়াটা অসম্ভব হয়ে পরেছে। তাই এ বছর ঈদে ছুটিতে আব্বু আম্মুর সাথে এখানে এসেছি।
গ্রীন ট্যুরিজমে পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, প্রচুর সংখ্যক পর্যটক চাপ রয়েছে। ইতোমধ্যে ওইসব পর্যটকরা তাদের পছন্দের হোটেল গুলোতে উঠতে শুরু করেছে। এ অবস্থা আরো সপ্তা খানে থাকতে পারে বলে তিনি জানিয়েছেন। কুয়াকাটার বিলাসবহুল হোটেল সিকদার রিসোর্ট অ্যান্ড ভিলার জেনারেল ম্যনেজান জয়নাল আবেদীন চোকাদার জানান, ঈদ উপলক্ষে আমাদের হোটেলের রুমের মূল্যছাড় রয়েছে। হোটেলের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার থেকে লাইফ বারবিকিউ ও ডিনার পার্টি ছাড়াও সুইমিনপুলেন ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটকরা ফোন কল ও আনলাইনের মাধ্যমে বুকিং দিচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স এ্যাসোশিয়েশনের সাধারন সম্পাদক মো.
মোতালেব শরিফ জানান, রমজান মাসে কুয়াকাটা প্রায় পর্যটকশূন্য ছিল। ঈদের ছুটিতে পর্যটকরে ঢল নেমেছে। আমাদের হোটেল আগাম বুকিং রয়েছে। এখনও পর্যটকরা রুমের জন্য বিভিন্ন হোটেল মোটেল কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করছে।
কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জেনের এ এস পি আব্দুল করিম জানান, ঈদ উপলক্ষে পর্যটকদের ব্যাপক চাপ রায়েছে। নিরাপত্তা দিতে আমাদের পুলিশ বিভিন্ন দর্শনীয় স্পটে টহল রয়েছে। এছাড়া সাগরে জোয়ারের পর্যটকদের যাতে কোন ধরনে অসুবিধা না হয় সে জন্য মাইক দিয়ে সতর্ক করে দেয় হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

উত্তম কুমার হাওলাদার ,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,মঙ্গলবার, ২৭ জুন, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

সর্বশেষ আপডেট



» নতুন করে আরও ৭৩৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত,১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

» তেজগাঁওয়ে স্ত্রীকে বিষপানে হত্যার ঘটনায় স্বামী ও প্রেমিকাকে গ্রেফতার

» লক্ষ্মীপুরে পারিবারিক কলহে বড়ভাইকে খুনের দায়ে ছোটভাইয়ের যাবজ্জীবন

» আজ মঙ্গলবার হচ্ছে জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের রাষ্ট্রীয়ভাবে শেষকৃত্য

» স্ত্রী ইসরাত জাহানের মামলায় জামিন পেয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার আল-আমিন

» রাজধানীর মোহাম্মদপুর বসিলায় নির্মাণাধীন একটি ভবন থেকে পড়ে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু

» পঞ্চগড়ে করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় আরও ১১ জনের মরদেহ উদ্ধার মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬১

» দেশের বাজারে আবার স্বর্ণের দাম এক হাজার ৫০ টাকা কমানো হয়েছে

» আগামী ৯ অক্টোবর রোববার সারাদেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে

» পঞ্চগড়ে করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় ৫০ জনের মরদেহ উদ্ধার

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল




ঈদের ছুটিতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল নেমেছে। কোথাও তিল
ধারনের ঠাঁই নাই। দুরদুরান্ত থেকে ছুটে আসা ভ্রমন পিপাসু পর্যটকদের উম্মাদনায় পুরো সৈকত আনন্দময় পরিবেশ বিরাজ করছে। নানা বয়সি পর্যটকদের আগমনে রাখাইন মার্কেট, ঝিনুকের দোকান, খাবারঘর, চটপটির দোকানসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলোতে কেনাকাটার ধুম পরেছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে হোটেল মোটেল গুলোতে পর্যটকরা উঠতে শুরু করেছে। কুয়াকাটা সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকায় ওইসব পর্যটকরা মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ছোট খাটো পরিরহ নিয়ে জড়ো হয়েছে বলে সেখানকার ব্যবসায়িরা জানিয়েছেন।
স্থানীয়রা জানান, সৈকত লাঘোয়া নারিকেল বাগান, ইকোপার্ক, ইলিশপার্ক, জাতীয় উদ্যান, শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধ বিহার, সীমা বৌদ্ধ বিহার, সুন্দরবনের পূর্বাঞ্চল খ্যাত ফাতরার বনাঞ্চল, ফকির হাট, গঙ্গামতি, কাউয়ার চর, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী ও কুয়াকাটার জিরো পয়েন্টে শিশু কিশোর যুবক যুবতীসহ নানা বয়সী পর্যটকদের পদচারনায় এখন মুখরিত হয়ে উঠেছে। এদিকে পর্যটক ও দর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় বিভিন্ন পয়েন্টে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক টহল রয়েছে। ঈদের ছুটিতে ঢাকা থেকে ভ্রমনে আসা শিক্ষার্থী বাহউদ্দিন জানান, ঈদ মানেই আনন্দ। ঈদ মানেই খুশি। তাই এ আনন্দকে ভাগা ভাগি করতে বন্ধুদের নিয়ে
এখানে এসেছি। কুয়াকাটার সৈকতের অপরূপ দৃশ্য দেখে অসাধারন লেগেছে। অপর এক শিক্ষার্থী জান্নাতুর আয়েশা জানান, লোখাপাড়ার চাপে এখান কোথাও বেড়াতে যাওয়াটা অসম্ভব হয়ে পরেছে। তাই এ বছর ঈদে ছুটিতে আব্বু আম্মুর সাথে এখানে এসেছি।
গ্রীন ট্যুরিজমে পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, প্রচুর সংখ্যক পর্যটক চাপ রয়েছে। ইতোমধ্যে ওইসব পর্যটকরা তাদের পছন্দের হোটেল গুলোতে উঠতে শুরু করেছে। এ অবস্থা আরো সপ্তা খানে থাকতে পারে বলে তিনি জানিয়েছেন। কুয়াকাটার বিলাসবহুল হোটেল সিকদার রিসোর্ট অ্যান্ড ভিলার জেনারেল ম্যনেজান জয়নাল আবেদীন চোকাদার জানান, ঈদ উপলক্ষে আমাদের হোটেলের রুমের মূল্যছাড় রয়েছে। হোটেলের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার থেকে লাইফ বারবিকিউ ও ডিনার পার্টি ছাড়াও সুইমিনপুলেন ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটকরা ফোন কল ও আনলাইনের মাধ্যমে বুকিং দিচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স এ্যাসোশিয়েশনের সাধারন সম্পাদক মো.
মোতালেব শরিফ জানান, রমজান মাসে কুয়াকাটা প্রায় পর্যটকশূন্য ছিল। ঈদের ছুটিতে পর্যটকরে ঢল নেমেছে। আমাদের হোটেল আগাম বুকিং রয়েছে। এখনও পর্যটকরা রুমের জন্য বিভিন্ন হোটেল মোটেল কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করছে।
কুয়াকাটা ট্যুরিষ্ট পুলিশ জেনের এ এস পি আব্দুল করিম জানান, ঈদ উপলক্ষে পর্যটকদের ব্যাপক চাপ রায়েছে। নিরাপত্তা দিতে আমাদের পুলিশ বিভিন্ন দর্শনীয় স্পটে টহল রয়েছে। এছাড়া সাগরে জোয়ারের পর্যটকদের যাতে কোন ধরনে অসুবিধা না হয় সে জন্য মাইক দিয়ে সতর্ক করে দেয় হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

উত্তম কুমার হাওলাদার ,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,মঙ্গলবার, ২৭ জুন, এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com