প্রত্যেককেই বলব বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে-প্রধানমন্ত্রী

আমরা চাই দেশের মানুষ এই বিদ্যুৎ যথাযথভাবে ব্যবহার করবেন। বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে কিন্তু অনেক টাকা খরচ হয় এবং যে পরিমাণ টাকা খরচ হয়, সেই টাকা কিন্তু বিদ্যুতের দাম আমরা গ্রহণ করি না, এখানে আমরা ভর্তুকি দিই। সে ক্ষেত্রে আমি প্রত্যেককেই বলব বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভেড়ামারা ৪১০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং ১৫ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির উদ্বোধনকালে একথা বলেন।

এসময় তিনি আরও ১৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুৎ সরবরাহের ঘোষণা দেন। এর মধ্য দিয়ে দেশে মোট ৫১টি উপজেলা বিদ্যুৎ সরবরাহের আওতায় এলো।প্রধানমন্ত্রী জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘কীভাবে স্বল্প বিদ্যুৎ খরচ করে আপনারা আপনাদের বিদ্যুতের চাহিদা পূরণ করতে পারেন, সেদিকে আপনাদের যত্নবান হতে হবে। এমন না যে, সরকারি মাল দরিয়া মে ঢাল, এটা করলে কিন্তু চলবে না। প্রত্যেককেই এ ব্যাপারে যথাযথভাবে আন্তরিক থাকতে হবে।’
প্রধানমন্ত্রী ঘর থেকে বের হওয়ার সময় নিজ হাতে বিদ্যুতের সুইচটি বন্ধ করার পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালতে বা আপনারা যাঁরা সরকারি কর্মচারী আছেন, তাঁরা নিজ হাতে সুইচটা বন্ধ করলে আপনাদের কোনো ক্ষতি হবে না; বরং দেশের সম্পদটা আপনি রক্ষা করতে পারলেন।’
তিনি নিজে প্রধানমন্ত্রী হয়েও ঘর-বাথরুম থেকে বের হওয়ার সময় নিজ হাতে বিদ্যুতের সুইচ অফ করেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি নিজ হাতেই কিন্তু বিদ্যুতের সুইচগুলো অফ করি। তাতে আমার কোনো সম্মান যায় না। নিজের কাজ নিজে করাতে কোনো লজ্জা নেই। কিন্তু এতে সুবিধা যেটা পাবেন, বিদ্যুৎ ব্যবহারে যদি সাশ্রয়ী হন, তাহলে বিদ্যুৎ বিলটা কম আসবে।

’বিদ্যুৎ খাতে সক্ষমতা অর্জনের জন্য আমরা সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছি জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা যখন ক্ষমতায় আসি তখন মাত্র ১ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হতো। এখন দেশে ১৬ হাজার ৪৫৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। বিদ্যুৎ খাতে সক্ষমতা অর্জনের জন্য সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে। এসময় প্রধানমন্ত্রী বিএনপিকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত দেশের বিদ্যুৎ দেয় নি, দিয়েছিলো শুধু খাম্বা। বিদ্যুৎ নেই কিন্তু রাস্তার পাশে আছে খাম্বা। কারণ আমরা জানতে পেরেছিলাম, তখন যিনি প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাঁর পুত্র তারেক খাম্বা নির্মাণের ব্যবসা শুরু করেছিলো। বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে অনেক টাকা খরচ হয় এবং যে টাকা খরচ হয় আমরা কিন্তু সেই টাকা গ্রাহকদের কাছ থেকে গ্রহণ করি না। এখানে আমরা ভর্তুকি দিই। এজন্য সবাইকে বলবো, বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে।
ঢাকা,বৃহস্পতিবার,১২ এপ্রিল , এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» একাদশ জাতীয় প্রচার-প্রচারণায় কাউকে বাধা দেয়া হচ্ছে না-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» দলীয় নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার,নির্যাতন,ধানের শীষের পোষ্টার ছিড়ে ফেলার অভিযোগ করেছেন ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী আব্দুল মান্নান

» ভোটের মাঠে জনগণের চেয়ে বড় অস্ত্র, বড় হাতিয়ার আর কিছু নেই-ওবায়দুল কাদের

» আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ’তে আনা হচ্ছে

» সিইসি যে বক্তব্য দিয়েছেন,একজন নির্বাচন কমিশনারের অস্তিত্বে আঘাত করেছেন

» নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ-ড. কামাল হোসেন

» জনগণ বিএনপির এ ইশতেহার ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে-জাহাঙ্গীর কবির নানক

» নানা কৌশলে বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার ষড়যন্ত্র করছে। বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে যাবে না

» নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি বাসায় আগুনে একই পরিবারের নয়জন দগ্ধ

» বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না-আইজিপি

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

প্রত্যেককেই বলব বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে-প্রধানমন্ত্রী

আমরা চাই দেশের মানুষ এই বিদ্যুৎ যথাযথভাবে ব্যবহার করবেন। বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে কিন্তু অনেক টাকা খরচ হয় এবং যে পরিমাণ টাকা খরচ হয়, সেই টাকা কিন্তু বিদ্যুতের দাম আমরা গ্রহণ করি না, এখানে আমরা ভর্তুকি দিই। সে ক্ষেত্রে আমি প্রত্যেককেই বলব বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আজ বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভেড়ামারা ৪১০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং ১৫ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির উদ্বোধনকালে একথা বলেন।

এসময় তিনি আরও ১৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুৎ সরবরাহের ঘোষণা দেন। এর মধ্য দিয়ে দেশে মোট ৫১টি উপজেলা বিদ্যুৎ সরবরাহের আওতায় এলো।প্রধানমন্ত্রী জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘কীভাবে স্বল্প বিদ্যুৎ খরচ করে আপনারা আপনাদের বিদ্যুতের চাহিদা পূরণ করতে পারেন, সেদিকে আপনাদের যত্নবান হতে হবে। এমন না যে, সরকারি মাল দরিয়া মে ঢাল, এটা করলে কিন্তু চলবে না। প্রত্যেককেই এ ব্যাপারে যথাযথভাবে আন্তরিক থাকতে হবে।’
প্রধানমন্ত্রী ঘর থেকে বের হওয়ার সময় নিজ হাতে বিদ্যুতের সুইচটি বন্ধ করার পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালতে বা আপনারা যাঁরা সরকারি কর্মচারী আছেন, তাঁরা নিজ হাতে সুইচটা বন্ধ করলে আপনাদের কোনো ক্ষতি হবে না; বরং দেশের সম্পদটা আপনি রক্ষা করতে পারলেন।’
তিনি নিজে প্রধানমন্ত্রী হয়েও ঘর-বাথরুম থেকে বের হওয়ার সময় নিজ হাতে বিদ্যুতের সুইচ অফ করেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি নিজ হাতেই কিন্তু বিদ্যুতের সুইচগুলো অফ করি। তাতে আমার কোনো সম্মান যায় না। নিজের কাজ নিজে করাতে কোনো লজ্জা নেই। কিন্তু এতে সুবিধা যেটা পাবেন, বিদ্যুৎ ব্যবহারে যদি সাশ্রয়ী হন, তাহলে বিদ্যুৎ বিলটা কম আসবে।

’বিদ্যুৎ খাতে সক্ষমতা অর্জনের জন্য আমরা সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছি জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা যখন ক্ষমতায় আসি তখন মাত্র ১ হাজার ৬শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হতো। এখন দেশে ১৬ হাজার ৪৫৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। বিদ্যুৎ খাতে সক্ষমতা অর্জনের জন্য সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে। এসময় প্রধানমন্ত্রী বিএনপিকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত দেশের বিদ্যুৎ দেয় নি, দিয়েছিলো শুধু খাম্বা। বিদ্যুৎ নেই কিন্তু রাস্তার পাশে আছে খাম্বা। কারণ আমরা জানতে পেরেছিলাম, তখন যিনি প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাঁর পুত্র তারেক খাম্বা নির্মাণের ব্যবসা শুরু করেছিলো। বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে অনেক টাকা খরচ হয় এবং যে টাকা খরচ হয় আমরা কিন্তু সেই টাকা গ্রাহকদের কাছ থেকে গ্রহণ করি না। এখানে আমরা ভর্তুকি দিই। এজন্য সবাইকে বলবো, বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে।
ঢাকা,বৃহস্পতিবার,১২ এপ্রিল , এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Design & Developed BY PopularITLimited