বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে রেনু হত্যা মামলার অন্যতম আসামি হৃদয়ের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

Spread the love

রাজধানীর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে তাছলিমা বেগম রেনু নামে এক নারীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় অন্যতম হোতা আসামি হৃদয়ের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার (২৪ জুলাই) বিকেলে মহানগর মুখ্য আদালতের বিচারক এ নির্দেশ দেন।হত্যার পাঁচদিন পর মঙ্গলবার রাতে নারায়ণগঞ্জের ভুলতা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ জানায় বাড্ডার ওই স্কুলের পাশে সবজি বিক্রি করতো হৃদয়। ঘটনার দিন রেনুকে স্কুলঘরের তালা ভেঙে বাইরে এনে এলোপাতাড়ি পেটানোর সময় যোগ দেয় হৃদয়ও। আদালতে শুনানিতে বাদীপক্ষের আইনজীবী জাহিদুল ইসলাম বলেন, আসামি হৃদয় যেভাবে ভিকটিমকে হত্যা করেছে, দেশবাসী তাতে স্তব্ধ হয়ে গেছে। ৪০০ থেকে ৫০০ জন আসামির মধ্যে এই আসামি হচ্ছেন মাস্টার মাইন্ড। রেনুর পাঁচ বছর বয়সী শিশু তুবা এখনো জানে না তার মা গুজবের মধ্যে পড়ে মারা গেছেন। বাচ্চাটা আজও তার মায়ের জন্য অপেক্ষা করে আছে।
আইনজীবী বলেন, এটা শুধু একটি গুজব নয়। একটি বড় ধরনের যড়যন্ত্র। হত্যার পরে আসামিকে যেন কেউ চিনতে না পারে সে জন্য তিনি মাথার চুল কেটে ফেলেছেন।
এরপর বিচারক হৃদয়কে প্রশ্ন করে বলেন, আপনার পক্ষে কোনো আইনজীবী আছে কি না? জবাবে হৃদয় বলেন, না, কোনো আইনজীবী নেই।
বিচারক আবার বলেন, আপনি কেন খুন করেছেন?
তখন হৃদয় বলেন, এক মহিলা বলেন, ওই নারী (রেনু) ছেলেধরা। সেই মহিলা দাবি করেন, তাঁর কাছে রেনুর ছবিও আছে। এরপর ছেলেধরাকে স্কুলের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানেও তাঁকে মারা হয়। এরপর নিচে নামিয়ে এনে আরো মারা হয়। এরপর আমিও মারতে শুরু করি। ওই মহিলার কথায় আমি মারছি।
এরপর বিচারক হৃদয়কে পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠানোর আদেশ দেন।
ঢাকা,বুধবার, ২৪ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments
Download Nulled WordPress Themes
Download WordPress Themes Free
Premium WordPress Themes Download
Download Premium WordPress Themes Free
udemy paid course free download

সর্বশেষ আপডেট



» বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর উপায় হচ্ছে তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করা:মোস্তাফা জব্বার

» ঠাকুরগাঁওয়ে যাত্রীবাহী দুই বাসের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত

» বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া ড্রিমলাইনার ‘গাংচিল’ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

» দুর্নীতির অভিযোগে ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম গ্রেপ্তার

» ডেঙ্গু জ্বরে ক্ষতিগ্রস্ত সকল মানুষের প্রতি সমবেদনা জানালেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী

» দুর্নীতির দায়ে ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী পি. চিদাম্বরমকে গ্রেফতার করেছে দেশটির সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন

» গ্রেনেড হামলা মামলায় খালেদা জিয়াকে আসামি করা না হলেও, তিনি হামলার দায় এড়াতে পারেন না

» ৮ সেপ্টেম্বর একাদশ সংসদের চতুর্থ অধিবেশন আহ্বান করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

» ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় পলাতকদের রায় কার্যকর সম্ভব, এ বছরই শুনানি শুরু: আইনমন্ত্রী

» নতুন দায়িত্ব নিয়ে ভীষণ খুশি ডমিঙ্গো। তবে সেইসঙ্গে কাজ করাটাকেও চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছেন প্রধান কোচ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

আজ শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে রেনু হত্যা মামলার অন্যতম আসামি হৃদয়ের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

রাজধানীর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে তাছলিমা বেগম রেনু নামে এক নারীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় অন্যতম হোতা আসামি হৃদয়ের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার (২৪ জুলাই) বিকেলে মহানগর মুখ্য আদালতের বিচারক এ নির্দেশ দেন।হত্যার পাঁচদিন পর মঙ্গলবার রাতে নারায়ণগঞ্জের ভুলতা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ জানায় বাড্ডার ওই স্কুলের পাশে সবজি বিক্রি করতো হৃদয়। ঘটনার দিন রেনুকে স্কুলঘরের তালা ভেঙে বাইরে এনে এলোপাতাড়ি পেটানোর সময় যোগ দেয় হৃদয়ও। আদালতে শুনানিতে বাদীপক্ষের আইনজীবী জাহিদুল ইসলাম বলেন, আসামি হৃদয় যেভাবে ভিকটিমকে হত্যা করেছে, দেশবাসী তাতে স্তব্ধ হয়ে গেছে। ৪০০ থেকে ৫০০ জন আসামির মধ্যে এই আসামি হচ্ছেন মাস্টার মাইন্ড। রেনুর পাঁচ বছর বয়সী শিশু তুবা এখনো জানে না তার মা গুজবের মধ্যে পড়ে মারা গেছেন। বাচ্চাটা আজও তার মায়ের জন্য অপেক্ষা করে আছে।
আইনজীবী বলেন, এটা শুধু একটি গুজব নয়। একটি বড় ধরনের যড়যন্ত্র। হত্যার পরে আসামিকে যেন কেউ চিনতে না পারে সে জন্য তিনি মাথার চুল কেটে ফেলেছেন।
এরপর বিচারক হৃদয়কে প্রশ্ন করে বলেন, আপনার পক্ষে কোনো আইনজীবী আছে কি না? জবাবে হৃদয় বলেন, না, কোনো আইনজীবী নেই।
বিচারক আবার বলেন, আপনি কেন খুন করেছেন?
তখন হৃদয় বলেন, এক মহিলা বলেন, ওই নারী (রেনু) ছেলেধরা। সেই মহিলা দাবি করেন, তাঁর কাছে রেনুর ছবিও আছে। এরপর ছেলেধরাকে স্কুলের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানেও তাঁকে মারা হয়। এরপর নিচে নামিয়ে এনে আরো মারা হয়। এরপর আমিও মারতে শুরু করি। ওই মহিলার কথায় আমি মারছি।
এরপর বিচারক হৃদয়কে পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠানোর আদেশ দেন।
ঢাকা,বুধবার, ২৪ জুলাই,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com