জাতির পিতাকে হত্যার মধ্য দিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা এদেশের অগ্রযাত্রা রুখে দিতে যে চক্রান্ত করেছিলো

Spread the love

জাতির পিতাকে হত্যার মধ্য দিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা এদেশের অগ্রযাত্রা রুখে দিতে যে চক্রান্ত করেছিলো তা সফল হয়নি।আওয়ামী লীগের লক্ষ্য মানুষের আস্থা অর্জন করে দেশ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।তিনি আরো বলেন, ‘আমি দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাই, যাতে দেশ আর কখনো ১৫ আগস্টের নির্মম হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে থাকা হায়েনাদের হাতে না যায়।’প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই দেশে গুম খুনের কালচার শুরু করেছিলো জিয়াউর রহমান। নারায়ণগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজকে তুলে নিয়ে যাওয়া হলো, তার পরিবার তার লাশ আর পায়নি। চট্টগ্রামের মৌলভী সৈয়দকে ধরে নিয়ে নির্যাতন করে মেরে ফেলে দিলো, তার ঠিকানাও কেউ পায়নি। এমনকি বগুড়ার যুবলীগ নেতা পটলকেও এভাবে খুন করলো। এভাবে আমাদের অনেক নেতাকর্মীকে তুলে নিয়ে গিয়েছে, নির্যাতন করেছে, হত্যা করেছে, লাশ গুম করেছে।’প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘শুধু রাজনৈতিক দলের ওপর এই জুলুম করেছে তা নয়, সেনাবাহিনীতে যারা মুক্তিযোদ্ধা অফিসার ছিলেন সেরকম বহু অফিসারকে মেরে ফেলেছে। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কেউ কাজ করেনি, তারা কাজ করেছে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করার জন্য।’শেখ হাসিনা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যার মাধ্যমে ষড়যন্ত্রকারীরা এ দেশ ও এর স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস বিকৃত করার চেষ্টা করেছে।’ বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ১৫ আগস্টের ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিলেন এবং খুনিদের সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে পুনর্বাসন ও ব্যবসা করা সুযোগ করে দেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘যিনি দল সৃষ্টিকারী, সেই সৃষ্টিকারীই যখন খুনি আর খুনিদের নিয়েই যারা চলে তারা খুনের সঙ্গে যে জড়িত এটার আবার সাফাই গাওয়ার তো কিছু নেই।’‘৯৬ (১৯৯৬) সালে অবৈধ নির্বাচনে খালেদা জিয়া খুনি রশীদকে শুধু সংসদ সদস্য করে পার্লামেন্টের পবিত্রতা নষ্ট করে নাই, তাদের বিরোধী দলের আসনেও বসিয়েছিল। জিয়াউর রহমান যেমন খুনিদের পুরস্কৃত করলো, খালেদা জিয়াও একইভাবে এই খুনিদের পার্লামেন্টে নিয়ে আসলো, ভোট চুরি করে।’
তিনি বলেন, ‘তাহলে বিএনপি যে খুনির দল না সে কথা তারা বলে কী করে? যে বিএনপি জাতির পিতার আত্মস্বীকৃত খুনিদের এনে বসালো পার্লামেন্টে?’
প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের আদর্শের রাজনীতিকে কলুষিত করে একটা খুনের রাজত্ব করেছিল বলেও মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।
হায়েনাদের বিষয়ে সবাইকে সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে কাজ করে গেছি। বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যা করার পর মানুষের সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার সম্ভবনা হারিয়ে গিয়েছিল। আজকে আমরা সব ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি।’
‘এখান থেকে যেন আর কখনও ওই রকম হায়েনাদের হাতে না পড়ে এ ব্যাপার দেশবাসীকে সর্তক থাকার আহ্বান জানাই।’তিনি জানান, তাঁর সরকারের লক্ষ্য দেশকে এগিয়ে নেওয়া। ‘আল্লাহর রহমতে আমরা তা অর্জন করেছি। এখান থেকে কেউ বাংলাদেশকে টেনে নামাতে পারবে না।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘জাতির পিতা না থাকলেও তাঁর আদর্শ রয়েছে। কেউ যদি রাজনীতিতে সফল হতে চায় তাহলে তাঁকে অবশ্যই জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করতে হবে।’
ঢাকা,শুক্রবার, ৩০ আগষ্ট,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

সর্বশেষ আপডেট



» বিএনপি নেতারা কি বেগম জিয়ার মুক্তি নয়, বন্দীদশা ও স্বাস্থ্য নিয়ে রাজনীতিই করতে চায় : তথ্যমন্ত্রী

» চোখের জলে চিরবিদায় জানানো হয় ‘গুরুদক্ষিণা’খ্যাত অভিনেতা তাপস পালকে

» রাবনাবাদ চ্যালেনের মাছ ধরা ট্রলার ডুবি।। নিখোঁজ-১

» এস কে সিনহার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার অভিযোগে নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে মামলার অনুমোদন দিল দুদক

» খালেদা জিয়াকে নিয়ে বারবার প্রশ্নের জবাব দেব সেই সময় আমার হাতে নেই-ওবায়দুল কাদের

» সিঙ্গাপুরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এক বাংলাদেশির অবস্থা আশঙ্কাজনক-পররাষ্ট্রমন্ত্রী

» ২১শে ফেব্রুয়ারিতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ রাজধানীর আশপাশের এলাকায় ৪ স্তরের নিরাপত্তা

» বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি আগামী রোরবার

» চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দুই হাজার পেরিয়েছে

» সিনেমা হল বাঁচলে চলচ্চিত্র শিল্প ও শিল্পীরা বাঁচবে -তথ্যমন্ত্রী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জাতির পিতাকে হত্যার মধ্য দিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা এদেশের অগ্রযাত্রা রুখে দিতে যে চক্রান্ত করেছিলো

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

জাতির পিতাকে হত্যার মধ্য দিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা এদেশের অগ্রযাত্রা রুখে দিতে যে চক্রান্ত করেছিলো তা সফল হয়নি।আওয়ামী লীগের লক্ষ্য মানুষের আস্থা অর্জন করে দেশ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।তিনি আরো বলেন, ‘আমি দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাই, যাতে দেশ আর কখনো ১৫ আগস্টের নির্মম হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে থাকা হায়েনাদের হাতে না যায়।’প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই দেশে গুম খুনের কালচার শুরু করেছিলো জিয়াউর রহমান। নারায়ণগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজকে তুলে নিয়ে যাওয়া হলো, তার পরিবার তার লাশ আর পায়নি। চট্টগ্রামের মৌলভী সৈয়দকে ধরে নিয়ে নির্যাতন করে মেরে ফেলে দিলো, তার ঠিকানাও কেউ পায়নি। এমনকি বগুড়ার যুবলীগ নেতা পটলকেও এভাবে খুন করলো। এভাবে আমাদের অনেক নেতাকর্মীকে তুলে নিয়ে গিয়েছে, নির্যাতন করেছে, হত্যা করেছে, লাশ গুম করেছে।’প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘শুধু রাজনৈতিক দলের ওপর এই জুলুম করেছে তা নয়, সেনাবাহিনীতে যারা মুক্তিযোদ্ধা অফিসার ছিলেন সেরকম বহু অফিসারকে মেরে ফেলেছে। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য কেউ কাজ করেনি, তারা কাজ করেছে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করার জন্য।’শেখ হাসিনা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যার মাধ্যমে ষড়যন্ত্রকারীরা এ দেশ ও এর স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস বিকৃত করার চেষ্টা করেছে।’ বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ১৫ আগস্টের ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিলেন এবং খুনিদের সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে পুনর্বাসন ও ব্যবসা করা সুযোগ করে দেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘যিনি দল সৃষ্টিকারী, সেই সৃষ্টিকারীই যখন খুনি আর খুনিদের নিয়েই যারা চলে তারা খুনের সঙ্গে যে জড়িত এটার আবার সাফাই গাওয়ার তো কিছু নেই।’‘৯৬ (১৯৯৬) সালে অবৈধ নির্বাচনে খালেদা জিয়া খুনি রশীদকে শুধু সংসদ সদস্য করে পার্লামেন্টের পবিত্রতা নষ্ট করে নাই, তাদের বিরোধী দলের আসনেও বসিয়েছিল। জিয়াউর রহমান যেমন খুনিদের পুরস্কৃত করলো, খালেদা জিয়াও একইভাবে এই খুনিদের পার্লামেন্টে নিয়ে আসলো, ভোট চুরি করে।’
তিনি বলেন, ‘তাহলে বিএনপি যে খুনির দল না সে কথা তারা বলে কী করে? যে বিএনপি জাতির পিতার আত্মস্বীকৃত খুনিদের এনে বসালো পার্লামেন্টে?’
প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের আদর্শের রাজনীতিকে কলুষিত করে একটা খুনের রাজত্ব করেছিল বলেও মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।
হায়েনাদের বিষয়ে সবাইকে সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে কাজ করে গেছি। বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যা করার পর মানুষের সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার সম্ভবনা হারিয়ে গিয়েছিল। আজকে আমরা সব ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি।’
‘এখান থেকে যেন আর কখনও ওই রকম হায়েনাদের হাতে না পড়ে এ ব্যাপার দেশবাসীকে সর্তক থাকার আহ্বান জানাই।’তিনি জানান, তাঁর সরকারের লক্ষ্য দেশকে এগিয়ে নেওয়া। ‘আল্লাহর রহমতে আমরা তা অর্জন করেছি। এখান থেকে কেউ বাংলাদেশকে টেনে নামাতে পারবে না।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘জাতির পিতা না থাকলেও তাঁর আদর্শ রয়েছে। কেউ যদি রাজনীতিতে সফল হতে চায় তাহলে তাঁকে অবশ্যই জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করতে হবে।’
ঢাকা,শুক্রবার, ৩০ আগষ্ট,এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক-কাজী আবু তাহের মো. নাছির।
নির্বাহী সম্পাদক,আফতাব খন্দকার (রনি)

ফোন:+88 01714043198

গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা লিংকরোড ঢাকা-১২১২
Email: hbnews24@gmail.com

© Copyright BY HBnews24.Com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com